• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • সারাদিন চরস-গাঁজার নেশায় ডুবে থাকত সুশান্ত, দাবি রিয়া চক্রবর্তীর !

সারাদিন চরস-গাঁজার নেশায় ডুবে থাকত সুশান্ত, দাবি রিয়া চক্রবর্তীর !

বরাবরের মত এবারও আক্রমণাত্মক রিয়া, তাঁর সাজানো যুক্তি, '' ওকে প্রাণ হারাতে হল, সেইজন্য সরি বলেছিলাম! অন্য কী বলতাম ? আমি সুশান্তের কাছে ক্ষমা চাই, কারণ ওর মৃত্যুটা একটা তামাশায় পরিণত হয়েছিল। আমি ওর কাছে ক্ষমা চাই, কারণ ওর শেষ স্মৃতি আজ আর ওর ভাল কাজ, বুদ্ধিমত্তা যা সমাজসেবা নয়, দেশবাসী ওর শেষ স্মৃতিটাকেও বিকৃত করেছে!''

বরাবরের মত এবারও আক্রমণাত্মক রিয়া, তাঁর সাজানো যুক্তি, '' ওকে প্রাণ হারাতে হল, সেইজন্য সরি বলেছিলাম! অন্য কী বলতাম ? আমি সুশান্তের কাছে ক্ষমা চাই, কারণ ওর মৃত্যুটা একটা তামাশায় পরিণত হয়েছিল। আমি ওর কাছে ক্ষমা চাই, কারণ ওর শেষ স্মৃতি আজ আর ওর ভাল কাজ, বুদ্ধিমত্তা যা সমাজসেবা নয়, দেশবাসী ওর শেষ স্মৃতিটাকেও বিকৃত করেছে!''

'কেদারনাথ' ছবির শ্যুটিং শুরুর কিছু আগে থেকেই এই নেশা শুরু করে সুশান্ত।

  • Share this:

    #মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত শুরু হয়েছে। আর তদন্ত শুরু হতেই সুশান্তের কাছের বন্ধু-সহ প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর নাম বার বার উঠে এসেছে। এমনকি রিয়া সুশান্তকে মাদকদ্রব্য এনে দিতেন। সুশান্তকে নেশায় ডুবিয়ে রাখতে চাইতেন রিয়া। এই কথা সামনে আসার পরই ফের রিয়াকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়।

    রিয়াকে প্রশ্ন করা হয় গোয়ার গৌরব আরিয়ার সঙ্গে তিনি যোগাযোগ করেছিলেন। কিন্তু কেন? গৌরব মাদকদ্রব্য সাপ্লাই করে। গোয়াতে রিসর্টও আছে তাঁর। রিয়া জানান, গৌরবকে তিনি চিনতেন। তবে সে মাদকদ্রব্য সাপ্লাই করত কিনা, সে বিষয়ে রিয়া কিছুই জানেন না। যদিও নারকোটিক ডিপার্টমেন্ট তদন্ত শুরু করেছে, এখন আমি এর বেশি কিছু বলতে পারবো না।

    রিয়াকে প্রশ্ন করা হয়, সে জয়া নামের মহিলাকে কি করে চেনে? জয়ার কথাতেই রিয়া সুশান্তের চায়ে মাদকদ্রব্য মিশিয়ে ছিলেন? এই প্রশ্নের উত্তরে রিয়া জানান, তিনি জয়াকে চিনতেন না। জয়া ভাল বন্ধু ছিল সুশান্তের বন্ধু। আর সুশান্তের চায়ে কিছু মেশাতে রিয়া চাননি। কিন্তু সুশান্তের নেশা কাটাতে অন্য কিছু ব্যবহারের জন্যই ওই জিনিস চায়ে মেশানো হয়। তবে সুশান্ত ফোনে জয়ার সঙ্গে কথা বলে। এবং সুশান্তই ওই দ্রব্য চায়ে মেশাতে বলে। অতএব চায়ে মাদক মিশিয়ে সুশান্তকে নেশা করানো হত।

    রিয়া আরও জানান, সুশান্ত মারিজোয়ানার নেশা করতেন। এবং বার বার এই নেশায় ডুবে যেত সুশান্ত। চরসের নেশায় আটকে গেছিল সে। 'কেদারনাথ' ছবির শ্যুটিং শুরুর কিছু আগে থেকেই এই নেশা শুরু করে সুশান্ত। রিয়া জানান, তিনি বহুবার বারণ করেছেন সুশান্তকে। কিন্তু সে কথা শুনত না। তবে রিয়ার এই সমস্ত বক্তব্যই এক তরফা। এই সব কিছু এখন যাচাই করে দেখছে সিবিআই। রিয়া আদৌ সত্যি বলছেন কিনা, সেটাই বড় প্রশ্ন।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: