corona virus btn
corona virus btn
Loading

১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হল সৌভিক চক্রবর্তী ও বাকিদের

১৪ দিনের পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হল সৌভিক চক্রবর্তী ও বাকিদের

১৪ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হল সৌভিক চক্রবর্তী, স্যামুয়েল মিরিন্ডা, দীপেশ সওয়ান্ত ও বাকি মাদক ব্যবসায়ীদের। ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এনসিবি-র হেপাজতে ছিলেন তারা।

  • Share this:

#মুম্বই: ১৪ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠানো হল সৌভিক চক্রবর্তী, স্যামুয়েল মিরিন্ডা, দীপেশ সওয়ান্ত ও বাকি মাদক ব্যবসায়ীদের। ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এনসিবি-র হেপাজতে ছিলেন তারা। বুধবার সকালে তাঁদের মেডিক্যাল হয়। তারপর ভার্চুয়াল কোর্ট প্রোডিউস করা হয় তাদের।

এনসিবি হেড কোয়ার্টার থেকে বাইকুলা জেলে নিয়ে আসা হল রিয়া চক্রবর্তীকে। বেল না হওয়া পর্যন্ত এখানেই থাকতে হবে তাঁকে। মঙ্গলবার রাতে তাঁর বেলের আবেদন খারিজ করে আদালত। আজ ফের নতুন করে জামিনের আবেদন করবেন রিয়ার আইনজীবী।

তিন দিন টানা জেরার পর গতকাল গ্রেফতার করা হয়েছে বলিউড অভিনেত্রী ও সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘প্রেমিকা’ রিয়া চক্রবর্তীকে ! গতকাল তাঁকে গ্রেফতার করে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো ৷ মঙ্গলবার রাতে এনসিবি কোয়াটারে ছিলেন রিয়া ৷ আজ থেকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতে অভিনেত্রী ৷  গ্রেফতারের পরে এবার রিয়ার মেডিক্যাল টেস্ট করা হয় ৷ জানা গিয়েছে, অন্য তিন গ্রেফতার অভিযুক্তদের সঙ্গে রিয়াকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হবে ৷ খবর রয়েছে, রিয়ার বিরুদ্ধে প্রচুর তথ্য প্রমাণ পেয়েছে এনসিবি ৷ তবে রিয়ার করোনা টেস্ট নেগেটিভ এসেছে।

 রিয়ার আইনজীবীর চেষ্টা কোনও কাজে আসেনি। জামিনের আবেদন করা হলে, তা খারিজ করে দেওয়া হয় গতকাল। আপাতত ১৪ দিন হেফাজতেই কাটাতে হবে রিয়াকে। অন্যদিকে, জেরার মুখে রিয়ার ভাই ও সুশান্তের পরিচারক দীপেশ আগেই জানিয়ে ছিলেন, রিয়ার সঙ্গে মাদকচক্রের সংযোগ থাকার কথা ৷ এই সবের ওপর নির্ভর করেই নানা অভিযোগে রিয়াকে গ্রেফতার করা হয় ৷ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্যের তদন্ত শুরু করেছে সিবিআই। তদন্ত শুরু হওয়ার পর থেকেই একের পর এক তথ্য সামনে উঠে আসতে শুরু করে। বলিউডের মাদকচক্র নিয়েও নানা তথ্য উঠে আসতে থাকে। সুশান্তের তৎকালীন প্রেমিকা রিয়ার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ করা হয়। সুশান্তের পরিবার রিয়াকেই দায়ী করেছেন অভিনেতার মৃত্যুর জন্য। এর পর রিয়াকে জেরা শুরু হতেই রিয়া জানান সুশান্ত মাদক নিতেন। কিন্তু তাঁর কোনও যোগ নেই মাদকচক্রের সঙ্গে। তবে আজ এনসিবির জেরার মুখে পড়ে রিয়া জানান তিনিও ড্রাগ নিতেন। মাদক সেবন করতেন নিয়মিত। সূত্রের এই খবর সামনে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়ায়। গ্রেফতার করা হয় রিয়াকে। রিয়ার গ্রেফতারের পর সুশান্তের দিদি শ্বেতা ট্যুইটারে লেখেন, এবার সব সত্যি সামনে আসবে।

Published by: Akash Misra
First published: September 9, 2020, 10:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर