'জোম্যাটো বয় যে প্রধানমন্ত্রী হবে না, কে বলতে পারে', রাখি সাওয়ান্তের মন্তব্যে বিতর্ক

photo source collected

সব সময় বিতর্কে থাকা রাখি সাওয়ান্তের স্বভাব। নিজেকে কিভাবে খবরে রাখতে হয় তা তাঁর জানা।

  • Share this:

    #মুম্বই: সব সময় বিতর্কে থাকা রাখি সাওয়ান্তের স্বভাব। নিজেকে কিভাবে খবরে রাখতে হয় তা তাঁর জানা। কোনও চলতি প্রোজেক্টে কাজ না করেও রাখি সব সময় খবরে থাকেন। সদ্যই বিগবস ১৩ থেকে ফিরেছেন তিনি। সেখানে গিয়েও নানা কাণ্ড বাঁধানোতে রাখির জুরি মেলা ভার। কখনও তিনি বলেছেন, তাঁকে ভূতে ধরেছে। আবার কখনও বলছেন আলু খেলে পেটে গ্যাস হয়, আর তাতেই নাকি ভালো হয় হার্ট। এমন সব আজগুবি কথা বলায় তিনি পারদর্শী। বিগবসের ঘরে রাখি আসার পর থেকে টি আর পি হু হু করে বাড়তে থাকে। সেখান থেকে ফিরেই মায়ের চিকিৎসার জন্য ছোটেন রাখি। তাঁর মায়ের ক্যানসার ধরা পড়েছে। বিগবসের ঘর থেকে জেতা টাকা দিয়েই মায়ের চিকিৎসা করেছেন তিনি। সলমন খানও তাঁকে সাহায্য করেছেন। তবে এবার জোম্যাটো ডেলিভারিকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে রাখি।

    সম্প্রতি জোম্যাটোডেলিভারি বয়ের সঙ্গে এমন একটি ঘটনা ঘটে যাতে গোটা দেশ তোলপাড় হয়। বলিউডের এক মেক-আপ আর্টিস্টকে খাবার ডেলিভারি করতে গিয়ে মার খেতে হয় ডেলিভারি বয়কে। মহিলা মেক-আপ আর্টিস্ট খাবার দেরিতে আনার জন্য মারতে থাকেন। এবং সে সময় জোম্যাটো বয়ের হাত লেগে ওই মেক-আপ আর্টিস্টের নাক ফেটে যায়। এরপর ওই মহিলা জোম্যাটো বয়ের নামে কেস করেন। পুলিশে জানায়। সাসপেন্ড করা হয় জোম্যাটো বয়কে। পরে জানা যায়, আসলে ওই ডেলিভারি ম্যানের কোনও দোষ ছিল না। রাগের বশে মহিলা এই সব করেন। জোম্যাটো ওই ডেলিভারি বয়ের পক্ষ নিয়ে পাল্টা প্রশ্ন তোলে। কেস হয়। এ মামলা চলছে। এর মাঝেই রাখিকে মুম্বইয়েতে একা পেয়ে জানতে চাওয়া হয়, জোম্যাটো বয়ের ঘটনায় তাঁর কি মন্তব্য? বিস্ফোরক কথা বলেন রাখি। তাঁকে এই প্রশ্ন করেন ভাইরাল ভায়ানি। তখনই রাখি মন খুলে কথা বলেন।

    তিনি বলেন, ' যা হয়েছে তা নিন্দনীয় ঘটনা। আরে সবাইকে সম্মান করতে শিখুন। জোম্যাটো বা অন্য ডেলিভারি সংস্থার ছেলেরা রাত বিরেতে আমাদের কাছে খাবার পৌঁছে দেয় নিজে না খেয়ে। তাঁকে মারবেন ? না, তাঁকে এক গ্লাস জল দিন। খাবার খাওয়াতে হবে না। সব পেশার মানুষকে সম্মান করতে শিখুন।" এর পরই রাখি বলেন, "জোম্যাটো বয় বলে অসম্মান করছেন, আপনি কিন্তু জানেন না, এই ছেলেই একদিন দেশের প্রধানমন্ত্রী হবে কিনা? তাই সম্মান করুন।" এই কথার পর বহু মানুষ তাঁর প্রশংসা করেন। রাখির মনোভাব প্রশংসা পায়। তবে অনেকেই এর মধ্যে তীর্যক মন্তব্য করেন। রাখির কথার অন্য মানে খোঁজার চেষ্টা করেন। প্রধানমন্ত্রীর কথা কেন তুললেন, কি ইঙ্গিত করতে চাইলেন, তাও বলা হয়। যদিও রাখির ইঙ্গিত সকলের কাছেই স্পষ্ট।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: