• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • জামাইবাবুর সঙ্গে প্রেম করত রাজের প্রাক্তন স্ত্রী ! শিল্পার জন্য ভাঙেনি সংসার !

জামাইবাবুর সঙ্গে প্রেম করত রাজের প্রাক্তন স্ত্রী ! শিল্পার জন্য ভাঙেনি সংসার !

কী ভাবে অবশেষে রাজ ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন, সেটা তিনি তাঁর বিবৃতিতে বিশদে বলেননি।

কী ভাবে অবশেষে রাজ ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন, সেটা তিনি তাঁর বিবৃতিতে বিশদে বলেননি।

কী ভাবে অবশেষে রাজ ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন, সেটা তিনি তাঁর বিবৃতিতে বিশদে বলেননি।

  • Share this:

#মুম্বই: শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রা (Shilpa Shetty Kundra) একদা এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন যে লন্ডনে থাকতে হবে ভেবে তিনি প্রথমে রাজ কুন্দ্রার (Raj Kundra) সঙ্গে সম্পর্কে জড়াতে চাননি! কিন্তু শিল্পার জন্য লন্ডন ছেড়েছিলেন রাজ, থিতু হয়েছিলেন মুম্বইতে। যিনি বিয়ের আগেই এতটা মানিয়ে নিতে পারেন, তাঁর বিয়ে ভাঙা কি এতটাই সহজ?

প্রশ্নটা এই কারণেই উঠছে, কেন না রাজের প্রাক্তন স্ত্রী কবিতা কুন্দ্রার (Kavita Kundra) এক সাক্ষাৎকারের ভিডিও সম্প্রতি ঘুরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিওয় কবিতা দাবি করেছেন যে শিল্পার জন্য তাঁর আর রাজের সুখের সংসার ভেঙে তছনছ হয়ে গিয়েছিল! শিল্পার জন্যই না কি রাজ তাঁকে ডিভোর্স দিয়ে নতুন সংসার পাতার পথে পা বাড়িয়েছিলেন!

"এটা খুবই মর্মান্তিক যে আমার স্ত্রীর জন্মদিনের দিনকয়েক পরেই ১১ বছর আগের এক সাক্ষাৎকারের ভিডিও আচমকা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে উঠল! কে বা কারা এটা করলেন, তা আমি জানি না! তবে এটুকু বুঝতে অসুবিধা হচ্ছে না যে নিশ্চয়ই এর নেপথ্যে কারও কোনও অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে। তাই আমি এবার প্রকৃত ঘটনা নিয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হলাম। এত দিন চুপ করে থাকলেও এবার যথেষ্ট বাড়াবাড়ি হচ্ছে, তাই কিছু কথা বলা দরকার", সাম্প্রতিক এক বিবৃতিতে একথা বলেছেন রাজ। তার পরে জানিয়েছেন ঠিক কী কারণে কবিতাকে ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি!

"কবিতা একজন সেলিব্রিটির উপরে তার সংসার ভাঙার দায় চাপাচ্ছে, আদতে কিন্তু এর জন্য সে নিজেই দায়ী! সত্যিটা হল এই যে কবিতা আমার বোনের স্বামীর সঙ্গে গভীর ভাবে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল। ওদের ঘনিষ্ঠ অবস্থায় আমার পরিবারের অনেকে দেখেছে। আমার পরিবারের অনেকেই এই নিয়ে আমার কাছে অভিযোগ করেছে, আমায় সতর্ক করেছে! এমনকি আমার গাড়ির চালক পর্যন্ত এটা বলতে ছাড়েনি যে ব্যাপারটা সুবিধার দিকে যাচ্ছে না! কিন্তু আমি এই নিয়ে কখনই কবিতাকে কিছু বলিনি, আমি ওকে অন্ধ ভাবে বিশ্বাস করতাম। তাছাড়া পরিবার নিয়ে বাইরের কে কী বলছে, সে কথায় কান দেওয়া উচিতও নয়, আজও আমি এই নৈতিকতা বজায় রেখেছি", জানিয়েছেন রাজ।

কী ভাবে অবশেষে রাজ ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন, সেটা তিনি তাঁর বিবৃতিতে বিশদে বলেননি। তবে এটা বলেছেন যে এক সময়ে আর থাকতে না পেরে তিনি ভারতে কবিতাকে তাঁর বাপের বাড়িতে রেখে দিয়ে আসেন। "এই সিদ্ধান্ত নেওয়া আমার পক্ষে সহজ ছিল না, বিশেষত ৪০ দিনের সন্তানকেও যখন ছেড়ে আসতে হল", শুধু এটুকু বলেই ভদ্রতা বজায় রেখেছেন তিনি!

Published by:Piya Banerjee
First published: