সাহসী পোশাক পরতে প্রিয়াঙ্কা অভ্যস্ত, কিন্তু কোন দুটি পোশাক পরে সবচেয়ে অস্বস্তিতে পড়েছিলেন তিনি? জানালেন নিজেই

সাহসী পোশাক পরতে প্রিয়াঙ্কা অভ্যস্ত, কিন্তু কোন দুটি পোশাক পরে সবচেয়ে অস্বস্তিতে পড়েছিলেন তিনি? জানালেন নিজেই

সম্প্রতি একটি ইন্টারভিউয়ে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, এমন দুটি রেড কার্পেট অনুষ্ঠানে পরা তাঁর দুটি পোশাকের কথা ৷ যেগুলি পরে তিনি নিজেই বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন !

সম্প্রতি একটি ইন্টারভিউয়ে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, এমন দুটি রেড কার্পেট অনুষ্ঠানে পরা তাঁর দুটি পোশাকের কথা ৷ যেগুলি পরে তিনি নিজেই বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন !

  • Share this:

    #মুম্বই: অস্কার, গ্র্যামি বা অন্য যে কোনও অনুষ্ঠানের রেড কার্পেটে একাই তাক লাগানোর জন্য যথেষ্ট প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ৷ তাঁর পোশাক, স্টাইলিং বরাবরই নজর কেড়েছে সকলের ৷ বিভিন্ন গ্ল্যামারাস আউটফিটে যেন আরোই মোহময়ী দেখায় প্রিয়াঙ্কাকে ৷ তাঁর রূপের ও গুণের প্রশংসা বলিউড থেকে হলিউড সর্বত্রই ৷ তবে এ ধরণের সাহসী পোশাকগুলি পরার জন্য মনের জোর থাকাটাও গুরুত্বপূর্ণ ৷ সম্প্রতি একটি ইন্টারভিউয়ে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, এমন দুটি রেড কার্পেট অনুষ্ঠানে পরা তাঁর দুটি পোশাকের কথা ৷ যেগুলি পরে তিনি নিজেই বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন !

    একটি ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, ‘‘ ২০০০ সালে আমি মিস ওয়ার্ল্ড খেতাব জিতেছিলাম ৷ যে পোশাকটি অনুষ্ঠানে পরেছিলাম তা একেবারেই কমফর্টেবল ছিল না ৷ হাঁটার সময়ে ‘নমস্তে’ করার মতো করে দু’হাত এক করে রেখেছিলাম ৷ যাতে ড্রেসের টেপটা বেরিয়ে না আসে ৷ দর্শকরা ভেবেছিলেন যে আমি হয়তো নমস্তে করছি ৷ কিন্তু আসলে আমি আমার ড্রেসটাকে কায়দা করে ধরে রেখেছিলাম ৷ ’’ এরপরেও একই ধরণের সমস্যায় পড়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা ২০১৮ সালে রালফ লরেনের রেড ভেলভেট পোশাকটি পরে ৷ প্রিয়াঙ্কা জানান, ‘‘আউটফিটটা এমনই ছিল যে আমি প্রায় নিঃশ্বাসই নিতে পারছিলাম না ৷ মনে হচ্ছিল আমার পাঁজরটাই এবার বেঁকে যাবে ৷ ডিনার করার সময় বসতে খুব অসুবিধা হয়েছিল ৷ তাই বলা বাহুল্য একেবারেই বেশি কিছু খেতে পারেনি আমি সেদিন ৷ ’’

    গ্র্যামি পুরস্কারে তাঁর পোশাক নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল। জেনিফার লোপেজের সঙ্গেও তুলনা টানা হয়েছিল প্রিয়াঙ্কার ৷ এই পোশাক বাছার জন্যে কটাক্ষ করার পাশাপাশি অনেকের মনেই প্রশ্ন উঠেছিল  ৷ কীভাবে এমন সাহসী পোশাক পরেও ওয়ার্ড্রোব ম্যালফাংশন এড়িয়ে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা ৷ সেই উত্তরও নিজের মুখেই দিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা ৷ একটি সাক্ষাৎকারে ভারতীয় অভিনেত্রী জানান, ‘রাল্ফ অ্যান্ড রুসে যখন আমার জন্যে কোনও পোশাক বানায় তখন তারা আমার শরীরের সঙ্গে ফিটেড পোশাকই তৈরি করে। আর অবশ্যই মাথায় রাখে যাতে কোনওভাবেই ওয়ার্ড্রোব ম্যালফাংশন না হয়।

    দূর থেকে দেখলে বোঝা যাবে না, তবে এই পোশাকটি ধরে রাখার জন্যে রাল্ফ অ্যান্ড রুসো আমার ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে তুলে নেটিং ব্যবহার করেছিল। আর ঠিক সেই কারণেই এতটা ভালো ফিট করেছিল ওই পোশাকটি। আরও একটা কথা এখানে বলে রাখতে চাই। যে কোনও পোশাক পরার সময়েই আমি একটা বিষয়ে নিশ্চিত না হয়ে ঘরের বাইরে পা রাখি না। যতক্ষণ না সেই পোশাক পরে আমি কনফিডেন্ট এবং সিকিওর ফিল করছি ততক্ষণ বাড়ি থেকে বেরোই না।’

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published:

    লেটেস্ট খবর