Priyanka Chopra: অক্সিজেন থেকে টিকা, করোনার জন্য বেনজির সাহায্য প্রিয়াঙ্কার! অভিনেত্রীর ত্রাণ তহবিলে সাহায্য করেছেন গোটা বিশ্বের মানুষ

অক্সিজেন থেকে টিকা, করোনার জন্য বেনজির সাহায্য প্রিয়াঙ্কার

বলিউড থেকে হলিউডে বহুদিন হল পাড়ি দিলেও নিজের দেশের বিপদ দেখে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাসও (Priyanka Chopra Jonas)।

  • Share this:

    #নিউইয়র্ক: করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে (Second wave corona) গোটা ভারতের অবস্থা ভয়াবহ। এই দ্বিতীয় ঢেউতে সংক্রমণ এমন জায়গায় পৌঁছয় যে অক্সিজেন (Oxygen), হাসপাতাল বেড (hospital beds) এইগুলিরও ঘাটতি দেখা যায়। এই অবস্থা দেখে সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন চলচ্চিত্র জগতের বহু তারকাই। বলিউড (Bollywood) থেকে হলিউডে (Hollywood) বহুদিন হল পাড়ি দিলেও নিজের দেশের বিপদ দেখে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাসও (Priyanka Chopra Jonas)। সঙ্গে সঙ্গে ভারতে করোনা ত্রাণ দিয়ে সাহায্য করতে একটি তহবিলও তৈরি করেন তিনি। বহু মানুষই প্রিয়াঙ্কার তহবিলে অর্থ দিয়ে সাহায্য করেছেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের মাধ্যমে প্রিয়াঙ্কা জানালেন সেখানে কত টাকা উঠেছে এবং তা দিয়ে কী কী চিকিৎসার সরঞ্জাম পাঠাতে পারবেন।

    প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন যা টাকা উঠেছে তা দিয়ে ৫০০ টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, ৪২২টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করা যাবে। এছাড়া ১০টি ভ্যাকসিনেশন কেন্দ্রে কর্মীর ব্যবস্থা করতে পাবেন। এই টিকাকরণ কেন্দ্রগুলিতে আগামী ২ মাসে ৬০০০ মানুষ ভ্যাকসিন পাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

    সারা বিশ্বের মানুষের থেকে সাহায্য পেয়েছেন তিনি। যাঁরা তাঁর তহবিলে অর্থ দিয়ে সাহায্য করেছেন তাঁদের কৃতজ্ঞতা জানাতেও ভোলেননি দেশি গার্ল। তিনি লিখছেন, "দয়া করে জানুন যে আপনারা মানুষের জীবন বাঁচাতে সাহায্য করেছেন।"

    ভারতের এমন ভয়াবহ অবস্থা দেখেই শিউরে উঠেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। সঙ্গে সঙ্গে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন ইনস্টাগ্রামে। সেই সময়ে তিনি লন্ডনে ছিলেন। ভিডিওয় বলেছিলেন, "আমার দেশ রক্তাক্ত। আমি লন্ডনে বসে আছি আর নিজের বন্ধু ও পরিবারের থেকে শুনছি হাসপাতালের কী অবস্থা, কোনও আইসিইউ রুম নেই, অ্যাম্বুল্যান্সগুলি ব্যস্ত, অক্সিজেনের অভাব, শ্মশানে গণদাহ হচ্ছে কারণ এত লোকের মৃত্যু হচ্ছে।"

    প্রসঙ্গত, মহামারীতে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মা ও ক্রিকেট তারকা বিরাট কোহলিও। তাঁরাও মহামারীর জন্য ত্রাণ তহবিল গড়েছেন। অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন নিজেই প্রায় ২৫ কোটি টাকা দিয়েছে করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য। আর যার কথা না বললেই নয়, তিনি হলেন অভিনেতা সোনু সুদ। করোনার প্রথম ঢেউ থেকে তিনি মানুষের সাহায্য করে চলেছেন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: