বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

'বডিশেমিং' নিয়ে তৈরি হচ্ছে নতুন বাংলা ছবি 'ফাটাফাটি' !

'বডিশেমিং' নিয়ে তৈরি হচ্ছে নতুন বাংলা ছবি 'ফাটাফাটি' !

তিন মাসে পাঁচ ইঞ্চি বা ছ-মাসে ১০ কিলো গ্যারান্টিড ওজন কমবে।এই পাউডার সেই বড়ি আরও কত কি।

  • Share this:

#কলকাতা:  তিন মাসে পাঁচ ইঞ্চি বা ছ-মাসে ১০ কিলো গ্যারান্টিড ওজন কমবে।এই পাউডার সেই বড়ি আরও কত কি। এরকম বিজ্ঞাপন আকছারই আমরা দেখে থাকি খবরের কাগজে, নয় টেলিভিশনের পর্দায়  বা রাস্তাতে দেওয়ালে পোস্টারে। সত্যি এগুলোতে কোনও কাজ হয় কিনা জানা না থাকলেও যাদের উদ্যেশ্যে এই বিজ্ঞাপন সেই মানুষগুলোর জীবন যে স্থূলতার কারণে দুর্বিষহ হয়ে থাকে তা একেবারেই সত্যিই।

যাকে আমরা চলতি ভাষায় 'বডিশেমিং' বলে থাকি, সেই বিষয় নিয়েই নতুন ছবির শ্যুটিং শুরু করবেন পরিচালক অরিত্র মুখোপাধ্যায়।ছবির নাম 'ফাটাফাটি'।যাদের শরীর  মেদ যুক্ত বা যাদের আমরা 'মোটা' বলে থাকি সেই মানুষগুলোকে জীবনে ঠিক কোন কোন কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয় সেই গল্পই এইবারে একেবারে বাঙালিয়ানার মোড়কে নিয়ে আসছে উইন্ডোস প্রোডাকশন। যেহেতু ‘স্থূলতা’ বিষয় এবং  রয়েছে ৪০ উর্ধ এক দম্পতির গল্প সেই কারণেই মুখ্য চরিত্রে  অপরাজিতা আঢ্য এবং অম্বরিশ ভট্টাচার্যকে বেছে নিয়েছেন পরিচালক অরিত্র।

কিন্তু এই বিষয় কেন? অরিত্র জানান "এটা এমন একটা সমস্যা যেটা নারী পুরুষ দুজনের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। এই মানুষগুলো স্থূলতার জন্য তো কষ্ট পানই আবার সেখান থেকেই পুরো বিষয়টা মানসিক সমস্যাও হয়ে দাঁড়ায়। তাঁদের নিয়ে ঠাট্টা বা বিদ্রুপ তো কম হয় না! সেই নানা সমস্যা হাইলাইট করার সঙ্গে হাসির মোড়কে এবার একটা দারুন পারিবারিক ছবি হতে চলেছে।"

নভেম্বর মাসের মাঝমাঝমাঝি থেকে শ্যুটিং শুরু হচ্ছে। ১৭ দিনের শ্যুটিং শিডিউল। কলকাতা ছাড়াও শহরের বাইরেও ছোট কোনও শহরে খানিকটা অংশ শ্যুট করার জন্য বেছে নেবেন পরিচালক অরিত্র।

এইটা অরিত্রের দ্বিতীয় ছবি। 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি' তাঁর প্রথম ছবি এবং মাত্র বারো দিন হলে চললেও বেশ প্রশংসা পায় সেই ছবিটি। লকডাউনের জন্য সব বানচাল হয়ে যায়। কিন্তু থেমে থাকলে চলবে কেমন করে? লকডাউনে বসে জিনিয়া সেনের লেখা গল্পে আবারও নতুন যাত্রা শুরু করতে চলেছেন অরিত্র। সব ঠিক থাকলে আগামী নারী দিবসে মুক্তি পাবে 'ফাটাফাটি'।

Published by: Akash Misra
First published: September 21, 2020, 6:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर