এগারো বছর লেগেছে 'অভিনেতা' শব্দটা অর্জন করতে: নমিত দাস

এগারো বছর লেগেছে 'অভিনেতা' শব্দটা অর্জন করতে: নমিত দাস
অভিনেতা হতে গেলে কী কী অর্জন করতে হয়? নাকি বিসর্জন দিতে হয়? আধুনিক বলিউডে তিরের গতিতে উঠে আসছে যে অভিনেতারা, তাদের প্রথম সারিতে আজ এসেছেন নমিত দাস।

অভিনেতা হতে গেলে কী কী অর্জন করতে হয়? নাকি বিসর্জন দিতে হয়? আধুনিক বলিউডে তিরের গতিতে উঠে আসছে যে অভিনেতারা, তাদের প্রথম সারিতে আজ এসেছেন নমিত দাস।

  • Share this:

    শর্মিলা মাইতি

    #মুম্বই: অভিনেতা হতে গেলে কী কী অর্জন করতে হয়? নাকি বিসর্জন দিতে হয়? আধুনিক বলিউডে তিরের গতিতে উঠে আসছে যে অভিনেতারা, তাদের প্রথম সারিতে আজ এসেছেন নমিত দাস। কিন্তু দীর্ঘ অভিনয় জীবনে অভিনেতা শব্দটা অর্জন করতেই এক দশকেরও বেশি সময় লেগে গিয়েছে। নেটফ্লিক্সে রমরমিয়ে চলা সুটেবল বাঙালি পাত্র নমিত দাস ধরা দিলেন ভার্চুয়াল চ্যাট সেশনে। মুখে স্মিত হাসি।


    প্রথম যখন অভিনয় করতে আসি, তখন আমার বয়স পঁচিশ। একরাশ স্বপ্ন চোখে আঁকা। যা চরিত্র পাই, তাতেই করে দেখিয়ে দেব। লড়ে নেব জমি। এমনটাই ছিল ভাবখানা। অয়ন মুখোপাধ্যায়ের ছবি 'ওয়েক আপ সিড' আমার প্রথম কাজ। তার আগে দীর্ঘ সময় ধরে থিয়েটারে অভিনয় করেছি। অসংখ্য টিভি শো কমার্শিয়াল করেছি। বড়পর্দা তখনও ছিল অধরা। প্রথম ছবি থেকেই দারুণ সাফল্য পাব,  সবাই আমায় চিনে নেবে, এমনও ভাবিনি। শুধু নিজের জীবনযাত্রা নিজের মতো করেই চলতে দিয়েছি। চলার পথ যত দীর্ঘ হোক, হাঁটব। তাড়াহুড়ো করব না, " হাসলেন নমিত।

    মীরা নায়ার আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন পরিচালক। তাঁর কাছ থেকে ডাক পাওয়াটা ভাগ্যের ব্যাপার! "তা তো বটেই। আমার মতো ক্ষুদ্র অভিনেতার কাছ থেকে তিনি যে এত কিছু প্রত্যাশা করেছিলেন, ভাবলে গায়ে কাঁটা দিচ্ছে। জেনেছিলাম, উনি আমায় অভিনয় বহুদিন ধরে ফলো করেন। " বলতে বলতে চোখ কৃতজ্ঞতায় ভরে গেল।

    OTT প্ল্যাটফর্মে শো নতুন একটা গতিপথ নমিতের জীবনে। "আর্যা" ও মাফিয়া সিরিজেও মারাত্মক নজর কেড়েছেন তিনি। তাঁর চোখে সুটেবল বয়? "প্রত্যেকেই। প্রতিটি ছেলের মধ্যে যোগ্যতা আছে আলাদা আলাদা ভাবে। এটার কোনও নির্দিষ্ট মাপকাঠি নেই। আমাদের সমাজ সংস্কৃতি চিন্তাধারা একটা রূপরেখা তৈরি করে আমাদের মনস্তত্ত্বে। আমি এই ছবিটা অভিনয় করতে করতে নিজেকে নিয়ে অনেক গভীরে ভেবেছি। কোনও কোনও চরিত্র ব্যক্তিসত্তাকেও বদলে দেয়। এত জোরালো। "

    আপনার অভিনীত যেসব চরিত্র আড়ালেই থেকে গিয়েছে, কখনও মনে হয়নি বলিউড বড় একপেশে। পার্শ্ব অভিনেতাদের মূল্য দেয় না! "জানেন, আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি যে, এগারো বছর সময় পেয়েছি মানুষকে চেনাতে। আমি শিল্পে ঘোরতর বিশ্বাসী। আমার বাড়িতে সবাই সঙ্গীত জগতের লোক। গানের ভেলাতেও নিজেকে ভাসিয়েছি। গায়ক হওয়া হয়নি, কিন্তু শিল্পরে আকণ্ঠ পান করার অবকাশ পেয়েছি। সাফল্য বড় কথা নয় এই জগতে। এই আত্মিক সম্পর্কটাই বড় আমার কাছে। " বললেন নমিত দাস।

    এখনও কিছুই অ্যাচিভ করেননি নমিত, স্থির বিশ্বাস করেন। "আসলে এই স্ট্রাগল, মানে যেটাকে আপনারা স্ট্রাগল বলেন, সেটাই আমার এগিয়ে চলার প্রেরণা। হঠাৎ নবাব হতে চাই না। মাটিতে পা দিয়েই চলব। এভাবেই কেটে যাবে সারা জীবন। ' নমিতের কথাগুলো প্রায় স্বগতোক্তির মতো শোনাল।

    Published by:Akash Misra
    First published: