corona virus btn
corona virus btn
Loading

#MSDHONI Review: ধোনিকে ছাপিয়ে, সিনেমার হিরো সুশান্ত সিং-ই!

#MSDHONI Review: ধোনিকে ছাপিয়ে, সিনেমার হিরো সুশান্ত সিং-ই!

সিনেপর্দায় কারও জীবনী তুলে আনাটা খুব একটা সহজ কাজ নয় ৷ কারণ, এক্ষেত্রে পরিচালকের হাতে খুব একটা স্বাধীনতা থাকে না,

  • Share this:

#কলকাতা: সিনেপর্দায় কারও জীবনী তুলে আনাটা খুব একটা সহজ কাজ নয় ৷ কারণ, এক্ষেত্রে পরিচালকের হাতে খুব একটা স্বাধীনতা থাকে না, চিত্রনাট্যেক নানারকম ভাবে এগিয়ে নিতে ৷ সিনেম্যাটিক করতে গিয়ে যদি চিত্রনাট্যে একটু বাড়াবাড়ি হয়ে যায়, তাহলেই সমালোচনার মুখে পড়তে হয়, গোটা ছবির টিমকে ৷

 ‘এমএস ধোনি’ ছবিটি অর্থাৎ মহেন্দ্র সিং ধোনির বায়োপিক প্রথম থেকেই এই জায়গাটাকেই শক্তপোক্ত ভাবে তুলে ধরেছেন পরিচালক নীরজ ৷ প্রথম দৃশ্য থেকেই শক্ত ভাবে ধরেছেন চিত্রনাট্যের নানা দিক ৷ কারণ, নীরজ ছবি তৈরির সময় থেকেই চেয়েছিলেন, গল্পের মধ্যে দিয়ে যেন ধোনি ইমেজটা তৈরি হয় ৷ ধোনির ইমেজ চিত্রনাট্যের ওপর এসে যাতে না পড়ে, সেটা নিয়েই সতর্ক থেকে ছিলেন নীরজ পাণ্ডে! আর সেই সতর্ক হওয়াটাই ছবির প্রথম দৃশ্য থেকে ধরা পড়েছে৷

‘এমএস ধোনি’ ছবির সবচেয়ে ভালো দিকই হল, এই ছবিতে কখনই ধোনির মাহাত্ম্য তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়নি ৷ বরং স্কুল থেকে চাকরি, চাকরি থেকে ক্রিকেটর, ক্রিকেটর থেকে ভারতীয় দলের ক্যাপ্টেন কুল হয়ে ওঠার স্ট্রাগল তুলে ধরা হয়েছে ৷ আর সেটা তুলে ধরার জন্যই ছবিতে যে কয়েকটি বিশেষ মুহূর্ত তুলে ধরা হয়েছে, তা ছবির সবচেয়ে ভালো দিক ৷

ছবি শুরু থেকেই মনযোগ টেনে রাখতে সমর্থ ৷ ধোনি ছোটবেলাকে থেকে স্কুল ও চাকরি সব কিছুই তুলে ধরা হয়েছে খুব সুন্দরভাবে ৷ বলা ভালো বায়োপিকের এরকম শুরু হয়তো বলিউডে এত সুন্দর করে আগে হয়নি৷

তবে বেশ কিছু দুর্বল জায়গাও রয়েছে ছবিতে ৷ বেশ কিছু দৃশ্য বার বার একইভাবে ফিরে আসে ৷ যা কখনও কখনও ছবির গতিকে শ্লথ করে দেয়৷ তবে এগুলো ছোটোখাটো ভুলকে পাশ কাটিয়ে গেলে নীরজ পাণ্ডের এই ছবি একেবারেই সঠিকভাবে ধোনিকে তুলে ধরেছে ৷ বিশেষ করে, ছবির নামের সঙ্গে স্বার্থকতা মিলিয়ে, এই ছবি ধোনির জীবন সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্যই তুলে ধরেছে ৷

এই ছবি একেবারেই সুশান্ত সিং রাজপুতের ছবি ৷ ধোনি চরিত্রে একেবারেই যেন পারফেক্ট সুশান্ত ৷ ছবিতে ধোনিকে সঠিকভাবে তুলে ধরার জন্য যতটা পরিশ্রম করেছেন তিনি, তা দেখা গিয়েছে প্রত্যেকটি দৃশ্যে ৷ অনুপম খের, ভূমিকা চাওলা, ছবির দুই হিরোইন দিশা পটানি, কিয়ারা আদবানি সবাই নিজের জায়গায় ঠিকঠাক ৷ তবে এই ছবি একেবারেই সুশান্ত সিং রাজপুতের ছবি ৷ শেষমেশ বলা যায়, ‘এমএস ধোনি’ ছবি থেকে বলিউডি গান-বাজনাকে হাটিয়ে আর একটু ক্রিকেট, স্টেডিয়াম, উত্তেজনাকে নিয়ে আসলে ছবিটা আরও ভালো হত ৷

First published: September 30, 2016, 1:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर