দু'বার গর্ভপাত থেকে অসহ্য দাম্পত্য, সব কিছু নিয়ে মুখ খুললেন মহিমা চৌধুরি!

দু'বার গর্ভপাত থেকে অসহ্য দাম্পত্য, সব কিছু নিয়ে মুখ খুললেন মহিমা চৌধুরি!

দু'বার গর্ভপাত থেকে অসহ্য দাম্পত্য, সব কিছু নিয়ে মুখ খুললেন মহিমা চৌধুরি!

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মহিমা জানালেন তাঁর দুঃসহবাসের সেই সব ভয়ঙ্কর স্মৃতি।

  • Share this:

#মুম্বই: পরিচালক সুভাষ ঘাই (Subhash Ghai) মনে করতেন তাঁর ছবির নায়িকাদের নাম ‘ম’ আদ্যাক্ষর দিয়ে হলে ছবি হিট হবে। আর তাই পরদেশ (Pardes) ছবিতে রিতু চৌধুরি (Ritu Chaudhry) হয়ে গেলেন মহিমা চৌধুরি (Mahima Chaudhry)। ছবি বক্স অফিসে সুপার হিট হল। মহিমার রোদ্দুর ঝরানো হাসি দেখে মজে গেলেন আমজনতা। কিন্তু তার পর এক-আধটা মাঝারি মাপের হিট ছবি ছাড়া মহিমা আস্তে আস্তে হারিয়ে গেলেন বলিউডের অরণ্যে। ২০০৬ সালে স্থপতি ববি মুখোপাধ্যায়ের (Bobby Mukherji) সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। যদিও দীর্ঘস্থায়ী হয়নি সেই দাম্পত্য। ২০১৩ সালে বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায় দু'জনের।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মহিমা জানালেন তাঁর দুঃসহবাসের সেই সব ভয়ঙ্কর স্মৃতি। বন্ধু হোক বা আত্মীয় স্বজন, কাউকে মন খুলে নিজের সমস্যার কথা বলতে পারতেন না নায়িকা। কারণ কারও সঙ্গে সমস্যা শেয়ার করার আগে তাঁর মনে হত যে এটা সামান্য একটা সমস্যা যেটা হয় তো মিটে যাবে। এই ভাবে একটা একটা করে সমস্যার পাহাড় জমতে থাকে। প্রথম একটি কন্যা সন্তানের পর আরও একটি সন্তান চেয়েছিলেন মহিমা। কিন্তু দুই বার গর্ভধারন করার পরেও তাঁর গর্ভপাত হয়ে যায়। এটা তাঁর কাছে একটা বড় মানসিক চাপ ছিল। যেখানে থাকতেন, সেখানে সুখের অভাব ছিল বলেই এমনটা হয়েছে বলে ধারণা মহিমার।

স্মৃতিচারণায় মহিমা বলেন যে যখনই কোনও অনুষ্ঠান বা শ্যুটিং করতে তিনি বাইরে যেতেন মেয়ে আরিয়ানাকে মায়ের কাছে রেখে যেতে হত। একদিন তিনিও মেয়ের সঙ্গে মায়ের কাছে দুই দিন থেকে যান। মহিমার মনে হয় এটাই তাঁর শান্তির জায়গা। আর তখনই বিবাহবিচ্ছেদ করার সিদ্ধান্ত সম্ভবত তাঁর মনে উঁকি দেয়।

১৯৯৯ সালে অজয় দেবগণ (Ajay Devgan) ও কাজল (Kajol) অভিনীত দিল কেয়া করে (Dil Kya Kare)-তে কাজ করেছিলেন মহিমা। আর তখনই এক বীভৎস ট্রাক দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তিনি। ট্রাকের সামনের কাচ ভেঙে মহিমার মুখে লেগেছিল। ছবির প্রযোজকও ছিলেন অজয় ও কাজল। তাঁরা এই বিষয়টা গোপন রাখেন কারণ জানাজানি হলে সেটা মহিমার কেরিয়ারের পক্ষে ভালো হত না।

মহিমা আজও কৃতজ্ঞ প্রযোজক অজয় দেবগণের কাছে। মহিমাকে সঠিক ডাক্তার দেখানো থেকে শুরু করে তাঁর সেবা-শুশ্রূষার দায়িত্ব নিয়েছিলেন অজয়।

Published by:Piya Banerjee
First published:

লেটেস্ট খবর