• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • শ্যুটিং করার নামে অভিনেত্রীকে ধর্ষণ, হলিউডে জোর বিতর্ক !

শ্যুটিং করার নামে অভিনেত্রীকে ধর্ষণ, হলিউডে জোর বিতর্ক !

Photo- youtube

Photo- youtube

সালটা ১৯৭২ ৷ গোটা দুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছিল বার্তুলুচির ছবি ‘দ্য লাস্ট ট্যাঙ্গো ইন প্যারিস’ ৷ মূলত, ছবির সাহসী যৌনদৃশ্য গুলির

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নিউ ইয়র্ক: সালটা ১৯৭২ ৷ গোটা দুনিয়ায় আলোড়ন তুলেছিল বার্তুলুচির ছবি ‘দ্য লাস্ট ট্যাঙ্গো ইন প্যারিস’ ৷ মূলত, ছবির সাহসী যৌনদৃশ্য গুলির জন্যই গোটা দুনিয়ায় বিতর্কের ঝড় তুলেছিল এই ছবি৷ বেশ কিছু দেশে এই ছবির প্রর্দশনে এসেছিল নিষেধজ্ঞাও ৷

    বার্তুলুচির সেই ছবি ফের খবরের শিরোনামে ৷ তাও সেই যৌনদৃশ্যের জন্যই ৷

    সম্প্রতি ‘দ্য লাস্ট ট্যাঙ্গো ইন প্যারিস’ ছবির পরিচালক বার্তুলুচির একটি সাক্ষাৎকার নিয়েই শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক ৷ সাক্ষাৎকারে পরিচালক স্বীকার করেছেন, ‘লাস্ট ট্যাঙ্গো ইন প্যারিস ছবির ধর্ষণ দৃশ্যটি মোটেই অভিনয় নয় ৷ অভিনেত্রীকে সত্যিকারের ধর্ষণ করেছিল অভিনেতা মার্লিন ব্র্যান্ডো !’

    বার্তুলুচির এই স্বীকারোক্তি নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক ৷ হলিউডের তাবড় অভিনেতা, পরিচালকরা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে রীতিমতো গালিগালাজ দিতে শুরু করেছেন পরিচালককে ৷

    ‘লাস্ট ট্যাঙ্গো ইন প্যারিস’ ছবির এই ধর্ষণ দৃশ্যটি খুবই জনপ্রিয় ৷ যা বাটার রেপ নামেই জনপ্রিয় ৷ এই দৃশ্যে অভিনয় করেছিলেন ১৯ বছরের অভিনেত্রী মারিয়া ৷ জানা গিয়েছে, এই দৃশ্যে অভিনয়ের পর অভিনেত্রী মারিয়া নাকি বেশ কিছুদিন মানসিক অশান্তিতে ভুগেছিলেন ৷ রিহাবেও রাখা হয়েছিল তাঁকে ৷ দু’বছর আগে মৃত্যু হয়েছে মারিয়ার !

    ২০০৭ সালে এক পত্রিকায় দৃশ্য সম্পর্কে অজ্ঞাত থাকার কথাও জানিয়ে ছিলেন মারিয়া ৷ এমনকী, ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন পরিচালক বার্তুলুচির নামেও ৷

    First published: