সুপ্রিম কোর্টকে নিয়ে জোকস! আদালত অবমাননার অভিযোগে ক্ষমা চাইতে রাজি নন কুণাল

সুপ্রিম কোর্টকে নিয়ে জোকস! আদালত অবমাননার অভিযোগে ক্ষমা চাইতে রাজি নন কুণাল
আদালত অবমাননার অভিযোর ওঠে কৌতুকশিল্পী কুণাল কামরার বিরুদ্ধে। কিন্তু সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ক্ষমা চাইবেন না। জানিয়ে দিলেন শিল্পী। কেন ক্ষমা চাইবেন না, সেই বিষয়টিও স্পষ্ট করে দেন কুণাল।

আদালত অবমাননার অভিযোর ওঠে কৌতুকশিল্পী কুণাল কামরার বিরুদ্ধে। কিন্তু সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ক্ষমা চাইবেন না। জানিয়ে দিলেন শিল্পী। কেন ক্ষমা চাইবেন না, সেই বিষয়টিও স্পষ্ট করে দেন কুণাল।

  • Share this:

    #মুম্বই: সুপ্রিম কোর্টকে নিয়ে রসিকতা করায় আদালত অবমাননার অভিযোর ওঠে কৌতুকশিল্পী কুণাল কামরার বিরুদ্ধে। কিন্তু সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ক্ষমা চাইবেন না। জানিয়ে দিলেন শিল্পী। কেন ক্ষমা চাইবেন না, সেই বিষয়টিও স্পষ্ট করে দেন কুণাল। জানিয়ে দেন নিখাদ মজা ও রসিকতার জন্য কোনও রকমের সাফাই গাওয়ার প্রয়োজন নেই তাঁর।

    আদালতের এই নোটিশের উত্তরে কুণাল বলেছেন, "মজা বা রসিকতা কখনওই বাস্তব নয়।" একটি টুইট করে কৌতুকশিল্পী লেখেন, "একজন কৌতুকশিল্পীর দৃষ্টিভঙ্গি থেকে তৈরি জোকসের জন্য সাফাই গাওয়ার প্রশ্ন ওঠে না।" তাঁর মতে এই রসিকতা কমেডিয়ানের সম্পূর্ণ নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গির উপর তৈরি হয়।

    কুণাল এও বলেন, "সুপ্রিম কোর্টের প্রতি মানুষের বিশ্বাসকে খর্ব করার উদ্দেশ্য ছিল না আমার টুইটের।" টেলিভিশন উপস্থাপক অর্ণব গোস্বামীকে কয়েক মাস আগে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। সুপ্রিম কোর্ট তাঁকে জামিন দেওয়ায় সুপ্রিম কোর্টকে কটাক্ষ করে একটি টুইট করেন কুণাল কামরা। এমনকি বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের নিন্দাও করেছিলেন তিনি ব্যঙ্গের ভঙ্গিতে। এই টুইটের পরেই তাঁর বিরুদ্ধে ওঠে আদালত অবমাননার অভিযোগ।


    এছাড়া কৌতুকশিল্পী মুনাওয়া ফারুকির গ্রেফতারি প্রসঙ্গেও কথা বলেন কুণাল। তিনি জানান, মত প্রকাশের স্বাধীনতা যাতে খর্ব না হয় তা আদালতকে দেখতে হবে। এই মৌলিক অধিকার যাতে বজায় থাকে সেদিকে নজর দিতে হবে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: