রাস্তায় এই কাজ ভুলেও করা চলবে না, সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা কার্তিক আরিয়ানের

রাস্তায় এই কাজ ভুলেও করা চলবে না, সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা কার্তিক আরিয়ানের

সোশ্যাল মিডিয়ার সঙ্গে 'দোস্তানা' বজায় রাখলেন কার্তিক আরিয়ান, বলছেন রাস্তায় এই কাজ ভুলেও করা চলবে না!

যে ছেলে দিন নেই রাত নেই পরের পর পোস্ট দিয়ে যান সোশ্যাল মডিয়ায়, তিনি এক্কেবারে চুপ!

  • Share this:

#মুম্বই: করণ জোহরের (Karan Johar) প্রোডাকশন হাউজের আগামী ছবি থেকে যে কার্তিক আরিয়ান (Kartik Aaryan) বাদ পড়েছেন, এটা আপাতত গোটা দেশ জেনে ফেলেছে। ধর্ম প্রোডাকশনস (Dharma Productions) ঢাক-ঢোল পিটিয়ে এটাও বলে রেখেছে যে কার্তিক যেটুকু অংশ শ্যুটিং করেছিলেন সেটা আবার অন্য কাউকে দিয়ে শ্যুট করাতে তাঁদের বাড়তি ২০ কোটি টাকা খেসারত দিতে হবে। করণ বলেছেন তাই সই, তবুও কার্তিকের সঙ্গে আর কোনও ছবি নয়। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ একপাশে সরিয়ে রেখে নেটিজেনরা কিছু দিন কার্তিকের জন্য কোমর বেঁধে লড়েছেন। যার নেতৃত্বে ছিলেন কঙ্গনা রানাউত (Kangana Ranaut)। তিনি আরও এক ধাপ এগিয়ে কাঁদুনি গেয়েছেন যে কার্তিক যেন মন-টন খারাপ করে আবার কিছু করে না বসেন! এদিকে যে ছেলে দিন নেই রাত নেই পরের পর পোস্ট দিয়ে যান সোশ্যাল মডিয়ায়, তিনি এক্কেবারে চুপ!

এসব দেখে-টেখে নেটিজেনরাও বেজায় ঘাবড়ে গিয়েছিলেন। তবে কার্তিক আবার টুকটুক করে পোস্ট দিতে শুরু করেছেন। বেজায় গুরুগম্ভীর পোস্ট, তবে ওই যে দিচ্ছেন তাতেই ভক্তরা নেচে কুঁদে আহ্লাদে আটখানা হয়েছেন। যদিও কোনও পোস্টেই বিতর্ক নিয়ে কোনও কথা বলেননি তিনি। ঘটনার পর প্রথম পোস্ট তিনি দেন Twitter-এ। সেখানে প্রয়াগরাজে এক বন্ধুর হয়ে অ্যাম্বুলেন্সের কথা বলেন তিনি। এর পর নিজের একখানা মাস্ক পরা ছবি দেন। ছবিটি মূলত কার্তিকের একটি ক্লোজ আপ শট। মুখের খুব কাছ থেকে তোলা এই ছবিতে কার্তিককে দেখা যাচ্ছে মাস্ক পরিহিত অবস্থায়। মুখের নিম্নাংশ সম্পূর্ণটা ঢাকা রয়েছে মাস্কে। কানের দুই পাশ থেকে উঁকি মারছে বড় খোলা চুল। পরনে হুড দেওয়া জ্যাকেট। যা দেখে নেটিজেনদের একাংশের ধারণা ছবিটি তোলা হয়েছে গতবছর শীতকালের সময়। মাস্ক পরিহিত নিজের ছবির ক্যাপশনেও কার্তিক একটি মাস্কের ছবি দেন। যা থেকে পরিষ্কার বোঝা গিয়েছে, কোভিড পরিস্থিতিতে নিজের স্টারডম ব্যবহার করে জনসাধারণকে মাস্ক ব্যবহার করার উপদেশ দেবার জন্যেই নিজের ওই ছবি পোস্ট করেন কার্তিক। গতকাল আবার এই মাস্ক নিয়েই নতুন পোস্ট দিয়েছেন অভিনেতা।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে সাতরঙা একটি জ্যাকেট এবং টার্টল নেক পড়েছেন তিনি। টার্টল নেক টেনে নাকের কাছে নিয়ে গিয়েছেন, তার পর সেটা আঙুল দিয়ে নামিয়ে দিয়েছেন। কার্তিকের এই ছবির ক্যাপশন হল ডোন্ট ট্রাই দিজ ইন পাবলিক। অর্থাৎ রাস্তায় এমনটা করার চেষ্টা না করাই ভালো। সাধারণত বিপজ্জনক কোনও স্টান্ট করার সময় এরকম বলা হয়ে থাকে। মাস্ক হ্যায় জরুরি বলে হ্যাশট্যাগও দিয়েছেন কার্তিক!

Published by:Rukmini Mazumder
First published: