ভারত বনধ ও কৃষক আন্দোলনের সমালোচনা করে ভিডিও পোস্ট কঙ্গনার

ভারত বনধ ও কৃষক আন্দোলনের সমালোচনা করে ভিডিও পোস্ট কঙ্গনার

photo source collected

৮ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার ভারত বনধের দিনই সকালবেলা একটি ট্যুইট করেন অভিনেত্রী।

  • Share this:

    #মুম্বই: সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য হামেশাই তিনি চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছেন। আজ আন্দোলনরত কৃষকদের ধর্মঘট নিয়েও নিজের মত প্রকাশ করলেন বলিউডের পাঙ্গা ক্যুইন কঙ্গনা রানাউত। নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডলে আধ্যাত্মিক নেতা সদগুরু জজ্ঞি বাসুদেবের একটি ভিডিয়ো শেয়ার করে বনধকে বিদ্রূপ ইশারা অভিনেত্রীর।

    কৃষিবিল সংশোধনের দাবিতে দিল্লি-হরিয়ানা-সিংঘু সীমান্তে বিক্ষুব্ধ কৃষকেরা আজ মঙ্গলবার বনধ ডেকেছিল। সরকার তাঁদের দাবি না মানায় আজ প্রায় তিন মাসের উপর তাঁরা এই বিক্ষোভ জারি রেখেছে। শুধু পাঞ্জাব-হরিয়ানার কৃষকেরা নয় , এই আন্দোলনে সামিল হয়েছেন দেশের অন্যান্য স্থানের কৃষকেরাও।

    ৮ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার ভারত বনধের দিনই সকালবেলা একটি ট্যুইট করেন অভিনেত্রী। “এসো, ভারতকে বন্ধ করে দিই। এমনিতেই তো এই নৌকো পারাপারের পথে ঝড়ের অন্ত নেই। কিন্তু কোদাল নিয়ে এসে কিছু ছিদ্র তৈরি করে দিই। এখানে থেকে থেকে কত আশা রোজ মরে। দেশভক্তদের বলো গিয়ে, নিজের জন্য দেশের এক টুকরো তুমিও চেয়ে নাও। রাস্তায় নামো, তুমিও ধরনা দাও। চলো আজকে এই গল্পটাই শেষ করে দেওয়া যাক… ” কৃষকদের ডাকা ভারত বন্ধ নিয়ে মন্তব্য কঙ্গনার।

    কৃষক আইন নিয়ে প্রথম থেকেই কঙ্গনার মন্তব্যকে ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় তর্ক-বিতর্কের ঝড় ওঠে। কৃষি আন্দোলনের অন্যতম মুখ ৮২ বছরের মাহিন্দর কৌর- নামক এক জন বৃদ্ধাকে তিনি শাহিনবাগের দাদি বিলকিস বানো বলে কটাক্ষ করেন। শুধু তাই নয় আরও বলেন, যাকে দৈনিক ১০০ টাকা ভাড়া দিয়ে এই ধরনের আন্দোলন গুলিতে সামিল করা যায়। এবং তিনিই সেই দাদি যিনি টাইম ম্যাগাজিনে ভারতের শক্তিশালী ব্যক্তি হিসেবে চিহ্নিত হন। এই ধরনের কুরুচিকর মন্তব্য করায় পালটা জবাব দেয় একালের অন্যতম পাঞ্জাবি অভিনেতা – গায়ক দিলজিৎ দোসাঞ্জ এবং মিকা সিং। তারপরে অভিনেত্রী ট্যুইটটি বাতিল করে দিলেও, সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের ট্রোলের শিকার হন তিনি।

    Somosree Das

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    লেটেস্ট খবর