• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • শিবসেনাকে ভীতু, কাপুরুষ বলে অন্যায়ের প্রতিবাদ করলেন কঙ্গনার মা আশা রানাওয়াত !

শিবসেনাকে ভীতু, কাপুরুষ বলে অন্যায়ের প্রতিবাদ করলেন কঙ্গনার মা আশা রানাওয়াত !

আশা রানাওয়াত এও বলেন, আমার মেয়ে ১৫ বছর বয়স থেকে কষ্ট করে টাকা উপার্জন করেছে। আর সেখানে এ কেমন সরকার যে, এই ধরণের কাজ করে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে !

আশা রানাওয়াত এও বলেন, আমার মেয়ে ১৫ বছর বয়স থেকে কষ্ট করে টাকা উপার্জন করেছে। আর সেখানে এ কেমন সরকার যে, এই ধরণের কাজ করে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে !

আশা রানাওয়াত এও বলেন, আমার মেয়ে ১৫ বছর বয়স থেকে কষ্ট করে টাকা উপার্জন করেছে। আর সেখানে এ কেমন সরকার যে, এই ধরণের কাজ করে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে !

  • Share this:

    #মুম্বই: কঙ্গনা রানাওয়াত ৷ বলিউডের ঠোঁটকাটা নায়িকা ৷ তার ওপর উদ্ভব ঠাকরের সঙ্গে বাক যুদ্ধে নেমে কঙ্গনা রানাওয়াতের তো রণং দেহি রূপ ! যেভাবে বিএমসি এসে কঙ্গনার স্বপ্নের মতো সাজানো ‘মনিকর্ণিকা’ অফিসের একাংশ ভেঙে দিল তাতে কঙ্গনা তো প্রতিবাদ করবেই ৷ এত সব ঘটনার পর কঙ্গনার মা আশা রানাওয়াত নামলেন মাঠে ৷ প্রতিবাদ জানালেন তিনিও ৷ আর তাঁর প্রতিবাদের ভাষা হল রাজনৈতিক পালাবদল ৷ হিমাচল প্রদেশে কংগ্রেসের এক নামজাদা নেত্রী ছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াতের মা আশা রানাওয়াত ৷ তবে যেই না বিএমসি ও কঙ্গনার মধ্যে শুরু হল লড়াই, ঠিক তখনই কঙ্গনার মা আশা রানাওয়াত কংগ্রেস ছেড়ে যোগ দিলেন বিজেপিতে ৷ বিজেপিতে যোগ দিয়ে আশা রানাওয়াত জানিয়েছেন, কংগ্রেসের সঙ্গে থেকে তো কিছু হলো না, উল্টে এরকম দিন দেখতে হলে, তাই বিজেপিতে যোগ দেওয়াই ভাল !’

    তবে এতেই চুপ থাকেননি কঙ্গনার মা। মেয়ের সঙ্গে হওয়া অন্যায়ের প্রতিবাদ করলেন তিনি। কঙ্গনার সঙ্গে উদ্ভব ঠাকরের তরজার নিন্দা করেছেন কঙ্গনার মা। তিনি জানিয়েছেন, 'আমার মেয়ের সাথে মুম্বইতে যা হয়েছে, তার জন্য সারা দেশ আমার মেয়ের পাশে রয়েছে।' একটি টিভি চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তাঁর মেয়েকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেছেন, পুরো দেশ দেখছে মহারাষ্ট্র সরকার কিভাবে বদলা নেওয়ার ভাবনা থেকে কাজ করছে। তিনি শিবসেনাকেও কড়া বার্তা দিয়েছেন। বলেছেন, 'এটা বালা সাহেব ঠাকরের শিবসেনা নয়। এরা ভীতু, কাপুরুষ।' আশা রানাওয়াত এও বলেন, আমার মেয়ে ১৫ বছর বয়স থেকে কষ্ট করে টাকা উপার্জন করেছে। আর সেখানে এ কেমন সরকার যে, এই ধরণের কাজ করে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে !

    প্রসঙ্গত, কঙ্গনা মুখ খুলেছিলেন সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে। অভিযোগ করেছিলেন বলিউডের তাবড় তাবড় পরিচালক প্রযোজকদের বিরুদ্ধে। নেপোটিজম, বলিউডের ড্রাগচক্রের মতো বহু বিষয় নিয়ে তিনি সরব হয়েছেন। এর পর থেকেই কঙ্গনা প্রাণের হুমকি পেতে শুরু করেন। ঘটনার সূত্রপাত দিনয়কয়েক আগে। বলিউডে নেপোটিজম এবং মাদক চক্র নিয়ে সরব কঙ্গনা মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেন। মুম্বইবাসীর ভাবাবেগে আঘাত করে এই মন্তব্য, এই যুক্তিতে প্রতিবাদে মুখর হয় শিবসেনা। শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত কঙ্গনাকে 'হারামখোর' ও বলেন। এই বিতণ্ডায় স্পষ্টই দু'ভাগ হয়ে যায় বলিউড। অনেকেই বলতে থাকেন, কঙ্গনা যেমন মুম্বইকে কদর্য আক্রমণ করছেন, তেমনই সঞ্জয়ের এই মন্তব্যও অত্যন্ত কুৎসিত।মুম্বইয়ের দিকে আঙুল তুলতে সঞ্জয় সপাটে বলেন, কঙ্গনার আর মুম্বই আসার দরকার নেই। দমবার পাত্রী নন কঙ্গনা। উত্তর ফিরিয়ে তিনিও সরাসরি বলেন, "আমার বাকস্বাধীনতা রয়েছে। যে কোনও প্রান্তে যাওয়ার অধিকারও রয়েছে।" কঙ্গনা একই সঙ্গে জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি ৯ সেপ্টেম্বর মুম্বইয়ে পা রাখতে চলেছেন। সেইমতো মুম্বই আসেন তিনি। এর পরই শিবসেনার উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন মহারাষ্ট্র সরকার কঙ্গনা রানাওয়াতের বিরুদ্ধে একের পর এক পদক্ষেপ নিতে শুরু করে দেয়। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনায় কঙ্গনা রানাওয়াত মুখ খোলার পর থেকেই শিবসেনার সঙ্গে অভিনেত্রীর একাধিক ইস্যুতে সংঘাত শুরু হয়। গতকাল বুধবার কঙ্গনার মুম্বইয়ের অফিস ভেঙে দেয় বিমসি। যার প্রতিবাদ করেন ফের কঙ্গনা। ফেসবুকে সরাসরি ভিডিও পোস্ট করে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ ছোড়েন তিনি। এর পর থেকেই খেলা আন্য দিকে ঘুরতে থাকে।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: