corona virus btn
corona virus btn
Loading

BMC-নতুন ঝটকা কঙ্গনাকে! এবার খার ওয়েস্টের বাড়ির ভিতর অবৈধ নির্মানের অভিযোগ

BMC-নতুন ঝটকা কঙ্গনাকে! এবার খার ওয়েস্টের বাড়ির ভিতর অবৈধ নির্মানের অভিযোগ

বিএমসির বক্তব্য, কঙ্গনার অফিসের থেকেও বেশি নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে তাঁর বাড়িতে।

  • Share this:

#মুম্বই: কঙ্গনা রানাউত এবং মহারাষ্ট্র সরকারের মধ্যে বিরোধের কারণে শীঘ্রই বিএমসি থেকে আরেকটি ধাক্কা পেতে পারে কঙ্গনা রানাওয়াত। এর আগে বিএমসি কঙ্গনাপ পালি হিলসের অফিসে অবৈধভাবে নির্মাণের অভিযোগে বুলডোজারে গুড়িয়েছিল। এর পরে, মুম্বইয়ের খারে কঙ্গনার বাড়ির অভ্যন্তরে অবৈধ নির্মাণের অভিযোগে বিএমসিও নোটিশ পাঠিয়েছে।

বিএমসির বক্তব্য, কঙ্গনার অফিসের থেকেও বেশি নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে তাঁর বাড়িতে। বর্তমানে, কঙ্গনার বাড়ি অবৈধভাবে নির্মাণের মামলা আদালতে চলছে, যার শুনানি হবে ২৫ সেপ্টেম্বর।

মুম্বইয়ের খার ওয়েস্টের, ১৬ নম্বর রোড-এর DB Breeze (Orchid Breeze) বিল্ডিং-এ থাকেন অভিনেত্রী৷ পাঁচ তলায় তাঁর ফ্ল্যাট। এই তলায় কঙ্গনার মোট ৩ টি ফ্ল্যাট রয়েছে৷ এই তিনটি ফ্ল্যাটই ৮ মার্চ ২০১৩ এ কঙ্গনার নামে রেজিস্টার করা হয়েছে। বিএমসি বলছে যে ১৩ ই মার্চ, ২০১৩-এ, কঙ্গনার ফ্ল্যাটটি নেওয়ার পাঁচ বছর পরে, তিনি এই ফ্ল্যাটের অভ্যন্তরে অবৈধভাবে নির্মাণের অভিযোগে করা হয়েছিল।

অভিযোগের পরে, ২ March শে মার্চ, ২০১৮-এ বিএমসি কঙ্গনার ফ্ল্যাটগুলি পরিদর্শন যায়৷ এরপর বিএমসি ২৭মার্চ ২০১৪ এ নোটিশ দিয়েছিল।

বিএমসির জারি করা নোটিশে জানানো হয়েছিল যে -

১) ইলেক্ট্রিক ফিটিংস কংক্রিট সিমেন্ট দিয়ে ভরানো হচ্ছে এবং কার্পেট এরিয়াও ব্যবহার করা হচ্ছে৷

২) গাছ লাগানোর জন্য দেওয়া জায়গায় সিঁড়ি বসানো হয়েছে।

৩) জালনার নীচে দেয়াল ভেঙে বারান্দা হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

৪) সার্ভিস স্ল্যাবগুলি কংক্রিট সিমেন্ট দিয়ে ভরানো হয়েছে এবং প্রাচীর ভেঙে একটি বারান্দায় রূপান্তরিত করে ঘর তৈরি করা হয়েছে।

৫) উত্তর-পশ্চিম দিকের সিঁড়ি এবং রান্নাঘরের মধ্যে সাধারণ পথ এবং রান্নাঘরের নিকটবর্তী দরজা ভরাট করা হয়েছে।

৬) তিনটি ফ্ল্যাটের মধ্যে দেওয়া সাধারণ জায়গাতে লিফটের সামনে অবৈধ দরজা তৈরি করা হয়েছে।

৭) তিনটি ফ্ল্যাট সংযোগ করতে সাধারণ দেয়ালগুলি ভেঙে দেওয়া হয়েছে।

৮) টয়লেট- বাথরুমের টিউবগুলি আকারে পাল্টে ফেলা হয়েছে বা আবৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে।

বিএমসির কর্মকর্তাদের দাবি যে, বিএমসির ভেঙে দেওয়া কঙ্গনা অফিসের থেকেও তাঁর বাড়িতে মারাত্মকভাবে লঙ্ঘিত হয়েছে নিময়গুলো। এই নোটিশে বিএমসি কঙ্গনা রানাওয়াতকে এক মাসের সময়সীমা দিয়েছে৷ তার মধ্যে অভিনেত্রী কিছু ব্যবস্থা না করলে বিএমসিই ফের পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে৷

প্রাথমিক পদক্ষেপের পরে, কঙ্গনা ২২ মে ২০১৮ তে সিভিল কোর্টে যান৷ বর্তমানে বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন এবং বিএমসির পক্ষ থেকে আর্জি রাখা হয়েছে যত দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য৷ মামলার পরবর্তী শুনানি ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০।

Published by: Pooja Basu
First published: September 13, 2020, 3:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर