২২তম বিবাহবার্ষিকীতে অজয়কে 'স্যর' বলে ডাকলেন কাজল ! সম্পর্ক ঠিক আছে তো !

photo source collected

কাজল আর অজয়ের প্রথম দেখা ১৯৯৫ সালে 'হালচাল' ছবির সেটে। সে সময় দু'জনের দু'জনকে একদম পছন্দ ছিল না।

  • Share this:

    #মুম্বই: কাজল ও অজয় দেবগন। বলিউডের এই জুটির কথা কার না জানা ! কাজল বা অজয়ের অভিনয় নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। সকলেই জানেন, তাঁদের দক্ষতার কথা। কাজল-শাহরুখের জুটি সর্বকালের সেরা জুটির একটি। কিন্তু বাস্তব জীবনে কাজল বিয়ে করেছেন অজয় দেবগনকে। ২২ বছর আগে আজকের দিনেই তাঁদের বিয়ে হয়েছিল। খুব ছোট করে বাড়ির ছাদে বিয়ে সেরেছিলেন কাজল-অজয়। কোনও মিডিয়াকে আমন্ত্রণ জানাননি।

    View this post on Instagram

    A post shared by Kajol Devgan (@kajol)

    কাজল আর অজয়ের প্রথম দেখা ১৯৯৫ সালে 'হালচাল' ছবির সেটে। সে সময় দু'জনের দু'জনকে একদম পছন্দ ছিল না। কাজলের অতিরিক্ত কথা বলায় বিরক্ত হয়েছিলেন অজয়। নায়ক হিসেবে অজয়কে মানতে পারছিলেন না কাজল। তবে ওই প্রথম ছবি করতে গিয়েই দু'জনের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। সে সময় অজয় এবং কাজল আলাদা আলাদা প্রেমিক- প্রেমিকার সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। যদিও বেস্ট ফ্রেন্ড ছিলেন অজয়। সক সময় দু'জনের দু'দিকের প্রেম ভেঙে যায়। এবং কখন যে তাঁরা নিজেরা প্রেম করতে শুরু করেন, তা তাঁরা নিজেরাও জানেন না। অজয়ের সঙ্গে কাজলকে বিয়ে দিতে চাননি কাজলের বাবা। চারদিন মেয়ের সঙ্গে কথা বন্ধ রেখেছিলেন। যদিও পরে তাঁদের বিয়েটা হয়।

    এর পর ২২ টা বছর কেটে যায়। এক ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে সুখের সংসার তাঁদের। এখনও এই জুটি এক সঙ্গে ছবিতে অভিনয় করেন। তবে শাহরুখের সঙ্গে নাকি কাজলকে কাজ করতে দিতে চাইতেন না অজয়, এমন একটা গুঞ্জন শোনা যায় বলি পাড়ায়। ওদিকে টাবু নাকি বিয়ে করেননি অজয়ের জন্য। টাবু ও অজয় কলেজ জীবন থেকে একে অপরের বন্ধু। অজয়ের জন্যই নাকি বিয়ে হয়নি টাবুর। এমন সব গুঞ্জন বলিপাড়ায় কান পাতলেই শোনা যায়। তবেএতে খুব একটা কিছু এসে যায় না অজয়-কাজলের। তাঁরা দিব্যি আছেন প্রেমে।

    বিবাহবার্ষিকীতে কাজল তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে একটি দারুণ ছবি শেয়ার করেছেন। ছাদে দাঁড়িয়ে আছেন অজয়। মাটিতে বসে কাজল। একে অপরের দিকে অপলক দৃষ্টিতে তাঁকিয়ে আছেন তাঁরা। এই ছবি শেয়ার করে কাজল লেখেন, "হ্যাঁ আপনি স্যর ভীষণ সুন্দর। আর আমি এভাবেই মুগ্ধ চোখে তাকিয়ে আছি।" এই পোস্ট শেয়ার হতেই ভাইরাল হয়।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: