‘দৈত্য হাত’-এর ছবি পোস্ট করে বিপন্ন আরণ্যককে বাঁচানোর আর্জি জয়ার

জয়া আহসান, ছবি-ফেসবুক

দুই বাংলার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর বক্তব্য, পৃথিবীতে যাঁরা অযথা গাছ কেটে প্রকৃতির ক্ষতিসাধন করে, তাদের বিরুদ্ধে এই ভাস্কর্য হল প্রতিবাদের প্রতীক ৷ সাধারণ মানুষের কাছে অভিনেত্রীর আর্জি, ‘আসুন অযথা গাছ কাটা বন্ধ করি, প্রকৃতিতে রক্ষা করি!!’

  • Share this:

    কলকাতা :  বিশাল হাত প্রসারিত আকাশের দিকে ৷ বাঁচার জন্য অসহায় আর্তি স্পষ্ট তার শরীরী ভঙ্গিমায় ৷ ঘন অরণ্যের মধ্যে সে হাত তুলে যেন সাহায্য চাইছে সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের কাছে ৷ এরকমই একটি ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেছেন জয় আহসান ৷ দুই বাংলার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর বক্তব্য, পৃথিবীতে যাঁরা অযথা গাছ কেটে প্রকৃতির ক্ষতিসাধন করে, তাদের বিরুদ্ধে এই ভাস্কর্য হল প্রতিবাদের প্রতীক ৷ সাধারণ মানুষের কাছে অভিনেত্রীর আর্জি, ‘আসুন অযথা গাছ কাটা বন্ধ করি, প্রকৃতিতে রক্ষা করি!!’

    এই গাছ ভাস্কর্যের ছবি কিছু দিন ধরে আবার নেটমাধ্যমে ঘোরাফেরা করছে ৷ অনেকেই দাবি করেছেন ভাস্কর্যটি আছে জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ৷ কিন্তু তা আদপেই ঠিক নয় ৷ এর অবস্থান ইংল্যান্ডের ওয়েলসে ৷ বিগত এক দশক ধরে সে আছে সেখানে অরণ্যের মাঝে ৷

    কোনও এক সময়ে ভির্নওয়ে হ্রদ প্রদেশে এই পাইন গাছটি ছিল ইংল্যান্ডের উচ্চতম গাছ ৷ ২০৯ ফিট উচ্চতা নিয়ে গাছটি টেক্কা দিত ২০ তলা উঁচু বহুতলকেও৷ কিন্তু এক বা ঝড়ে গাছটি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় তাকে ভাস্কর্যে পরিণত করেন শিল্পী সিমোন ও’ রুরকে ৷ তাঁর শৈল্পিক ছোঁয়ায় দৈত্যাকার গাছটি এখন বিপন্ন আরণ্যকের প্রতীক৷

    তার ছবি সিমোন শেয়ার করেছেন নিজের ফেসবুকেও ৷ গাছ ভাস্কর্যের এখন পরিচয় ‘ভির্নওয়ে হ্রদের দৈত্য হাত’ নামে ৷

    সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের প্রোফাইলে বিভিন্ন বিষয়ে পোস্ট করেন জয়া ৷ কিছুদিন আগেই তিনি সোচ্চার হয়েছিলেন প্যালেস্তাইন ইজরায়েল রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ নিয়ে ৷ সংঘর্ষে নিরপরাধ শিশুদের মৃত্যু তিনি মেনে নিতে পারছেন না৷ আর্জি রেখেছিলেন, যাতে শিশুরা রোদভরা মাঠে খেজুরগাছের ছায়ায় খেলতে পারে৷ এর পর বাংলাদেশের সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে গ্রেফতারের বিরুদ্ধেও নেটমাধ্যমে সোচ্চার হন জয়া ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: