হারিয়ে যাওয়া বৃদ্ধকে তাঁর ভাইপোর হাতে তুলে দিলেন মিমি

করোনা পরিস্থিতিতে হারিয়ে যাওয়া কাকাকে ভাইপোর হাতে তুলে দিলেন সাংসদ অভিনেতা মিমি চক্রবর্তী। রানাঘাটের গাঙনাপুরের এক পরিবারের মেলবন্ধন ঘটান তিনি।

করোনা পরিস্থিতিতে হারিয়ে যাওয়া কাকাকে ভাইপোর হাতে তুলে দিলেন সাংসদ অভিনেতা মিমি চক্রবর্তী। রানাঘাটের গাঙনাপুরের এক পরিবারের মেলবন্ধন ঘটান তিনি।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে হারিয়ে যাওয়া কাকাকে ভাইপোর হাতে তুলে দিলেন সাংসদ অভিনেতা মিমি চক্রবর্তী।  রানাঘাটের গাঙনাপুরের এক পরিবারের মেলবন্ধন ঘটান তিনি। গত ২২ শে অগাস্ট অনুরাধা চক্রবর্তীর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট দেখেন মিমি। শেক্সপিয়র সরণিতে একজন বৃদ্ধকে, প্রায় অজ্ঞান অবস্থায় দেখতে পান অনুরাধা। বৃদ্ধের পায়ে অজস্র ঘা, যা পঁচে এসেছিল। এই অবস্থায় একজনকে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে অনুরাধা তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করার চেষ্টা করেন। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও বিভিন্ন হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ করেও হয় না কোনও সুরাহা। তখন  সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে একটি পোস্ট করেন তিনি। সেই পোস্ট দেখে যোগাযোগ করেন মিমি। কলকাতা পুলিশের সঙ্গে কথা বলেন সাংসদ- অভিনেতা। কলকাতা পুলিশের সাহায্যে সেই বৃদ্ধকে ভর্তি করা হয় শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালে।

এই খবর ভাইরাল হওয়ায়, বৃদ্ধের খবর পায় তাঁর বাড়ির লোকজন। এই বৃদ্ধের নাম কুমুদ শীল। রানাঘাটের বাসিন্দা তিনি। গত তিন মাস ধরে তিনি নিরুদ্দেশ ছিলেন। করোনা পরিস্থিতিতে নিজের পেনশন তুলতে গিয়ে হারিয়ে যান কুমুদ বাবু। কীভাবে তিনি কলকাতায় এলেন, তা জানে না বৃদ্ধের পরিবার।

কুমুদ বাবুর ভাইপো মিমির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পুরো ঘটনা খুলে বলেন তিনি। রানাঘাট থেকে কুমুদবাবুর সমস্ত পরিচয় পত্র নিয়ে শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালে আসেন তিনি। শনিবার বৃদ্ধাকে নিয়ে বাড়ি যান তাঁর ভাইপো। মিমি ভিডিও কল করে কুমুদ বাবুর ভাইপোর সঙ্গে কথা বলেন। তাঁদের ফিরে যাওয়ার সমস্ত ব্যবস্থা করে দেন সাংসদ-অভিনেতা। মিমির এই উপকারে অন্তর থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কুমুদ বাবুর পরিবার।

Published by:Akash Misra
First published: