৬৩ বছরে পা! জন্মদিনে ফিরে দেখা অনিল কাপুরের কেরিয়ারের এই সব হিট গান!

৬৩ বছরে পা! জন্মদিনে ফিরে দেখা অনিল কাপুরের কেরিয়ারের এই সব হিট গান!

কেরিয়ারের সেকেন্ড ইনিংসে দিল ধড়কনে দো ছবিতে তুখোড় অভিনয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন অনিল কাপুর।

কেরিয়ারের সেকেন্ড ইনিংসে দিল ধড়কনে দো ছবিতে তুখোড় অভিনয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন অনিল কাপুর।

  • Share this:

#মুম্বই: ঝকাস! এই শব্দটা বার বার নানা ভাবে উচ্চারণ করার ক্ষেত্রে বলিউডে অনিল কাপুরের (Anil Kapoor) জুড়ি নেই! কথ্য এই ভাষার সঙ্গে যে যৌবনের উন্মাদনা, প্রাণবন্ত ভাব আর স্ফূর্তি জুড়ে থাকে, ঠিক তারই যেন ককটেল নায়ক নিজে! আজ তাঁর জন্মদিন, খবর মোতাবেকে ৬৩ বছরে পা রাখলেন তিনি। কিন্তু তাঁকে দেখলে সে কথা কিছুতেই বিশ্বাস হতে চাইবে না। শুধু বলিউড কেন, ভারতীয় ছায়াছবির যে কোনও নতুন প্রজন্মের অভিনেতাকে লজ্জা দেওয়ার ক্ষমতা ধরে তাঁর ফিটনেস! কী অভিনয়ে, কী ব্যক্তিগত পরিসরে, জীবনের জয়গান সর্বাদাই গেয়ে চলেছেন এই নায়ক!

আজ জন্মদিনে সেই সূত্রেই ফিরে দেখা যাক নায়কের কেরিয়ারের কিছু হিট গান!

মাই নেম ইজ লখন

রাম লখন ছবির এই গান অনিল কাপুর বললেই মনের প্লে-স্টেশনে বেজে ওঠে। ওয়ান টু কা ফোর, ফোর টু কা ওয়ান- এই মন্ত্র আমাদের শিখিয়েছিলেন তিনিই! অনিল কাপুর অভিনীত চরিত্রগুলোর মধ্যেও উপরের দিকে থাকবে এই লখনই!

ইয়ার বিনা চয়ন কহাঁ রে

ছবির নাম সাহেব। বাংলা ভাষায় একই গল্পে তাপস পাল চরিত্রটিকে করে তুলেছিলেন নিজের অভিনয় দিয়ে অনেক বেশি ঘরোয়া, সে যেন ঠিক পাশের বাড়ির ছেলে। সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে ঠিক এই এক ব্যাপার প্রতিষ্ঠা করেন অনিল কাপুর। ছবির এই গান এখনও সব তরুণ প্রজন্মের মনের কথা বলে।

আই লাভ ইউ

অনিল কাপুর অভিনীত সেরা ছবি কোনটি? উত্তরে অনেকেই একবাক্যে মিস্টার ইন্ডিয়া-র কথা বলবেন। সেই ছবির এই গান এখনও প্রথম প্রেমের অস্থির অনুভূতি জাগিয়ে তোলে।

তারেঁ হ্যায় বরাতি বিরাসত ছবিটি নিঃসন্দেহেই অনিল কাপুরের কেরিয়ারের এক মাইলস্টোন। তাই ছবির এই গানটিকেও নায়কের কেরিয়ারের সেরা গানের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া যায় না।

গল্লাঁ গুড়িয়াঁ

কেরিয়ারের সেকেন্ড ইনিংসে দিল ধড়কনে দো ছবিতে তুখোড় অভিনয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন অনিল কাপুর। সঙ্গে এই গানটিতেও তাঁর প্রাণবন্ত ভাব সবাইকে চমকে দেয়!

Published by:Piya Banerjee
First published: