বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ক্লোজআপ ছবি তৈমুরের, পতৌদি নাকি কাপুর? কাদের মতো মুখের আদল ছোট্ট টিমের, দেখুন তো...

ক্লোজআপ ছবি তৈমুরের, পতৌদি নাকি কাপুর? কাদের মতো মুখের আদল ছোট্ট টিমের, দেখুন তো...

এবার এই ছবি দেখে শুরু হয়েছে জল্পনা৷ পতৌদি নাকি কাপুর খানদান, কোন পরিবারের মতো দেখতে হচ্ছে টিমকে৷

  • Share this:

#মুম্বই: ছোট থেকেই ফোটোগ্রাফারদের বড্ড প্রিয় তৈমুর৷ একেবারে জন্মের পর থেকেই তৈমুরকে নিয়ে পাপারাৎজিদের বিশেষ উৎসাহ ছিল৷ করিনা-সইফের ছেলে রাতারাতি হয়ে উঠেছিল সব ম্যাগাজিনের কভার বয়৷ সেই ট্রেন্ড চলেই আসছে৷ দিন দিন বেড়ে উঠছে তৈমুর৷ সেও ভাল বুঝতে পারে যে ফোটোগ্রাফারদের আর্কষণের কেন্দ্রবিন্দু সে৷ বাড়ির বাইরে বেরলেই তাকে দেখে জ্বল জ্বল করে ওঠে হাজার ফ্ল্যাশ বাল্ব৷ তবে ঘনঘন তাঁর দিকে ক্যামেরা, এবং সবসময় ছবি তোলা খুব বেশি পছন্দ করে না তৈমুর৷ তা কিছুদিন আগেই ধর্মশালার রাস্তায় বুঝিয়ে দিয়েছে সে৷ বাবার হাত ধরে শান্তি মনে ধর্মশালার রাস্তায় ঘুরতে ব্যস্ত তৈমুর নিজেই ছবি তুলতে মানা করে দিল৷ তার ও তার পরিবারের দিকে ক্যামেরা তাক করে থাকা ব্যক্তিকে সরাসরি বুঝিয়ে দিল যে তার গোপনীয়তা চাই৷ এভাবে ছবি তুলে আদতে তাকে বিরক্ত করা হচ্ছে বলে স্পষ্ট বুঝিয়ে দিল সে৷

তবে ছেলের একটি ছবি পোস্ট করলেন মা করিনা৷ একেবার ক্লোজআপ এই ছবিটি দেখে বেশ বোঝা গেল যে তৈমুরও অনেকটা বড় হয়েছ৷ এই ছবিটি তুলেছেন অর্জুন কাপুর৷ তিনিও এই মুহূর্তে রয়েছেন ধর্মশালায়৷ সেখানে চলছে তাঁর ও করিনার ছবি ভূত পুলিশের শ্যুটিং৷ তাই তাঁর বিশেষ বান্ধবী মালাইকাও রয়েছেন উপস্থিত৷ মালাইকা আবার করিনারও খুব ভাল বন্ধু৷ অর্থাৎ সইফ, করিনা, তৈমুর, অর্জুন ও মালাইকা দারুণ সময় কাটাচ্ছেন সেখানে৷ এই সব স্টারদের মাঝেও নজর কাড়ছে ছোট্ট তৈমুর৷

এবার এই ছবি দেখে শুরু হয়েছে জল্পনা৷ পতৌদি নাকি কাপুর খানদান, কোন পরিবারের মতো দেখতে হচ্ছে টিমকে৷ ছোট্ট এই নবাবের শরীরে বইছে নীল রক্ত৷ জন্মসূত্রে পতৌদির নবাব সে৷ আবার তার সঙ্গে জুড়ে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির কাপুর পরিবারের লেগাসি৷ বাবা ও মা দু’জনেই জনপ্রিয় অভিনেতা৷ একই সঙ্গে পরিবারের সকলেই সুপরিচিত এবং প্রতিষ্ঠিত৷ তারকা খচিত এই পরিবারের সবথেকে ছোট্ট সদস্যটির মুখের আদল কী তাঁর বাবার পরিবারের মতো, নাকি মিল রয়েছে কাপুরদের সঙ্গে, সেই নিয়ে শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায় জোর চর্চা৷

Published by: Pooja Basu
First published: November 19, 2020, 8:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर