corona virus btn
corona virus btn
Loading

৬ বছর ধরে চলল মামলার শুনানি, অবশেষে ৬ মাসের জেল কোয়েনা মিত্রের

৬ বছর ধরে চলল মামলার শুনানি, অবশেষে ৬ মাসের জেল কোয়েনা মিত্রের
কোয়েনা মিত্র ৷-ফাইল চিত্র ৷
  • Share this:

#মুম্বই: জেলে যেতেই হচ্ছে বলিউডে পাড়ি দেওয়া বাঙালি অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্রকে ৷ অন্তিম রায় দিল আদালত ৷ আদালত থেকে স্পষ্ট ভাষায় খারিজ করে দেওয়া হল কোয়েনা মিত্রর সমস্ত আবেদন। চেক বাউন্স করার অবরাধে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিল মলেন পুনম শেঠি। তারই ভিত্তিতে এ বার রায় শোনাল আদালত। ছয় মাসের জেল ও ১.৬৪ হাজার টাকাসুদসহ ৪ লাখ ৬৪ হাজার টাকা পুনমকে ফেরত দেওয়ার কথাও বলা হয় এদিন আদালতের পক্ষ থেকে।

ঘটনার সূত্রপাত হয় ২০১৩ সালে। অভিনেত্রী ও মডেল কোয়েনা মিত্র পুনম শেটির থেকে ব্যাক্তিগত কারণ বশত ২২ লাখ টাকা ধার নেয়। কথা ছিল সেই অঙ্কের টাকা ধিরে ধিরে তিনি চুকিয়ে দেবেন। সেই চুক্তি অনুযায়ী তিন লাখ টাকার একটি চেক জমা দিলে তা বাউন্স করে। ঘটনার পর বারংবার পুনম কোয়েনাকে বিষয়টি দেখার কথা বলেন। এতে কোনও কাজ না হলে ২০১৩ সালের ১৯শে জুলাই আইনি নোটিশ পাঠান তিনি। এরপর চার মাস কেটে গেলে যখন কোনও সঠিক উত্তর মেলে না কোয়েনার থেকে তখন পুনম শেঠি তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন ১০ই অক্টোবর।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অন্ধেরি আদালতে কোয়েনা জানান যে পুনম শেঠির এত টাকা ঋণ দেওয়ার মতন কোনও ক্ষমতাই নেই। কিন্তু সেই যুক্তি খারিচ করে দিয়েই এদিন রায় শোনালেন আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট কেতকী চাভান। ফলে ৬ মাসের জেল নির্ধারিত হয় কোয়েনার।

First published: July 22, 2019, 1:31 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर