বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ড্রাগ চ্যাটের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকা ! NCB-র হাতে নয়া তথ্য !

ড্রাগ চ্যাটের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকা ! NCB-র হাতে নয়া তথ্য !
photo source collected

আজ এনসিবি-র কাছে হাজিরা ও প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে রাকুল প্রীত সিং ও দীপিকার ম্যানেজার করিশ্মাকে।

  • Share this:

#মুম্বই: বলিউডের এখন টালমাটাল অবস্থা। সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর থেকে পুরো বলি পাড়ার চিত্রটাই বদলে গিয়েছে। সুশান্তের মৃত্যু রহস্যের তদন্ত সিবিআই শুরু করার পর থেকেই ঘটে চলেছে নানা ঘটনা। বলিউডের মাদকচক্র ও বলি স্টারদের মাদক-যোগের কথা সামনে চলে আসতে থাকে। এবার সেই সূত্র ধরেই দীপিকা পাড়ুকোনকে তলব করেছে এনসিবি। মাদকের সঙ্গে দীপিকার যোগ খতিয়ে দেখতেই দীর্ঘ প্রশ্ন করা হবে অভিনেত্রীকে। তবে খবর ছিল আগামিকাল অর্থাৎ শুক্রবার এনসিবি-র জেরার মুখোমুখি হওয়ার কথা দীপিকার। তবে নায়িকা জানিয়েছেন শুক্রবার নয় তাঁকে শনিবার ডেকেছে এনসিবি। এর মধ্যেই সামনে এল আরও একটি ঘটনা। মাদকচক্রের সঙ্গে সরাসরি যোগ মিলল দীপিকার।

দীপিকার একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ঘিরেই সন্দেহ দানা বাঁধে। তিনি মাদকচক্রের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন, এমনটাই উঠে আসছে ওই চ্যাটে। দীপিকা এই চ্যাট ফাঁস হওয়ার জন্য নিজের ম্যানেজার করিশ্মাকে দোষারোপ করেছেন। এনসিবি তদন্তে উঠে এসেছে যে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে মাদক নিয়ে কথা হত, সেই গ্রুপটি ২০১৭ সালে খোলা হয়েছিল। এই গ্রুপে করিশ্মা, দীপিকা ছাড়াও আরও বেশ কয়েকজন ছিলেন। এই গ্রুপের অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন। তিনিই হোয়াটসঅ্যাপে এই গ্রুপটি তৈরি করেছিলেন। এই তথ্য সামনে আসতেই ফের চাঞ্চল্য তৈরি হয়।

তবে শুধু দীপিকা নয় এর সঙ্গে জড়িয়ে থাকতে পারেন আরও অনেকে। দীপিকা পাড়ুকোনের বাড়ির সামনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। পুলিশের তরফ থেকে জানা গিয়েছে দাদর থানার একটি পুলিশ দলকে দীপিকার প্রভাদেবীর 'বিউমন্ড' টাওয়ারে মোতায়েন করা হয়েছে। এখানে দীপিকার অ্যাপার্টমেন্ট রয়েছে। এই সমস্ত খবরে বার বার প্যানিক অ্যাটাক হচ্ছে অভিনেত্রীর। স্বামী রণবীর সিং এনসিবির জেরার সময় দীপিকার সঙ্গে থাকতে চেয়ে আবেদনও করেছেন। যদিও সে ব্যাপারে এনসিবি সিলমোহর দেয়নি। আগামিকাল দীর্ঘ জেরার মুখোমুখি হতে হবে দীপিকাকে।

আজ এনসিবি-র কাছে হাজিরা ও প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে রাকুল প্রীত সিং ও দীপিকার ম্যানেজার করিশ্মাকে। জেরায় রাকুল জানিয়েছেন ২০১৮ সালে তাঁর সঙ্গে রিয়ার ড্রাগ চ্যাট হয়েছে। তবে রাকুল নিজে ড্রাগ নিতেন না। রিয়ার বাড়ি রাকুলের পাশেই। সেই সূত্র ধরেই কথা হয়েছিল। প্রসঙ্গত, রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর ভাই শৌভিক এখনও জেলেই রয়েছেন। মাদক যোগের জন্য গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। এই সমস্তটাই সামনে আসে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত করতে গিয়ে।

Published by: Piya Banerjee
First published: September 25, 2020, 5:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर