• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • সুশান্ত স্যারের দেহ ঝুলতে দেখেছি!সুশান্তের শেষ মুহূর্তের বর্ণনা দিলেন রাঁধুনি নীরজ

সুশান্ত স্যারের দেহ ঝুলতে দেখেছি!সুশান্তের শেষ মুহূর্তের বর্ণনা দিলেন রাঁধুনি নীরজ

একটি সংবাদমাধ্যমে সুশান্তের রাঁধুনি নীরজের বয়ানে ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। তাঁর বিস্ফোরক বক্তব্য, ঘরের দরজা ভাঙার পর, অভিনেতাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেছিলেন তিনি৷ তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধার্থ পাঠানি ও দীপেশ৷ নীরজ বলেন, '' সেদিন আমার কাছে ঠান্ডা জল চান সুশান্ত স্যর৷ তারপর তিনি ওপরে নিজের ঘরেই ছিলেন৷ একতলায় খাবার ঘর, রান্না ঘর, অতিথিদের ঘর এবং আমাদের থাকার ব্যবস্থা৷ দোতলায় স্যর থাকতেন৷ সেখানে আমরা খুব একটা যেতাম না৷ শুধু জিজ্ঞাসা করা হত তিনি কী খাবেন, সেই মতো সব ব্যবস্থা করা হত৷ সেই দিনও আমি স্যরের সঙ্গে কথা বলে নীচে চলে আসি৷ আবার ৫ মিনিট পর যখন কী খাবেন জানতে ওপরে যাই, দেখি ঘর বন্ধ৷ সাধারণত একবার ডাকলে সাড়া না দিলে বুঝে যেতাম তিনি ব্যস্ত আছেন, আর ডাকতাম না৷ সেদিনও তাই হল৷ সাড়া দিলেন না৷''

একটি সংবাদমাধ্যমে সুশান্তের রাঁধুনি নীরজের বয়ানে ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। তাঁর বিস্ফোরক বক্তব্য, ঘরের দরজা ভাঙার পর, অভিনেতাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেছিলেন তিনি৷ তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সিদ্ধার্থ পাঠানি ও দীপেশ৷ নীরজ বলেন, '' সেদিন আমার কাছে ঠান্ডা জল চান সুশান্ত স্যর৷ তারপর তিনি ওপরে নিজের ঘরেই ছিলেন৷ একতলায় খাবার ঘর, রান্না ঘর, অতিথিদের ঘর এবং আমাদের থাকার ব্যবস্থা৷ দোতলায় স্যর থাকতেন৷ সেখানে আমরা খুব একটা যেতাম না৷ শুধু জিজ্ঞাসা করা হত তিনি কী খাবেন, সেই মতো সব ব্যবস্থা করা হত৷ সেই দিনও আমি স্যরের সঙ্গে কথা বলে নীচে চলে আসি৷ আবার ৫ মিনিট পর যখন কী খাবেন জানতে ওপরে যাই, দেখি ঘর বন্ধ৷ সাধারণত একবার ডাকলে সাড়া না দিলে বুঝে যেতাম তিনি ব্যস্ত আছেন, আর ডাকতাম না৷ সেদিনও তাই হল৷ সাড়া দিলেন না৷''

সুশান্তের শেষ সময়ে বাড়িতে ছিলেন তাঁর রাঁধুনিও৷ তিনি দেখেছেন কী হয়েছিল৷ সেই রাঁধুনি নিরজের বয়ানে...

  • Share this:

    #মুম্বই: সুশান্ত সিং মামলার তদন্তভার এখন সিবিআইয়ের হাতে৷ ইতিমধ্যেই সিবিআইয়ের বিশেষ দল পৌঁছে গিয়েছে মুম্বই৷ আবারও দফায় দফায় সকলকে জেরা করা হবে৷ তবে এরমধ্যেই আবার সুশান্তের রাঁধুনি নীরজের বয়ানে চাঞ্চল্য ছড়াল৷ কারণ তিনি জানিয়েছেন যে, সুশান্তের ঘরের দরজা ভাঙার পর, অভিনেতাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেছিলেন তিনি৷ তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন আরও ২ জন৷ ছিলেন সিদ্ধার্থ পাঠানি ও আরও একজন, দীপেশ৷ একটি সংবাদমাধ্যমে এমনই জানান নীরজ৷

    নীরজ বলেন, সেদিন আমার কাছে ঠান্ডা জল চান সুশান্ত স্যার৷ তারপর তিনি ওপর নিজের ঘরেই ছিলেন৷ একতলায় ছিল খাবার ঘর, রান্না ঘর, অতিথিদের ঘর এবং আমাদের থাকার ব্যবস্থা৷ দোতলায় স্যার থাকতেন৷ সেখানে আমরা খুব একটা যেতাম না৷ শুধু জিজ্ঞাসা করা হত তিনি কী খাবেন, সেই মতো সব ব্যবস্থা করা হত৷ সেই দিনও আমি স্যারের সঙ্গে কথা বলে নীচে চলে আসি৷ আবার ৫ মিনিট পর যখন কী খাবেন তিনি জানতে ওপরে যাই, দেখি ঘর বন্ধ৷ সাধারণত তিনি একবার ডাকলে সাড়া না দিলে বুঝে যেতাম যে তিনি ব্যস্ত৷ আর ডাকতাম না৷ সেদিনও তাই হল৷ সাড়া দিলেন না৷

    নীরজ আরও জানান যে রিয়ার সঙ্গে তাদের সামনে কখনও ঝগড়া করেননি সুশান্ত৷ রিয়া বাড়ি ছাড়েন শান্তভাবে৷ তাকেই রিয়া বলেছিলেন সব কাপড় গুছিয়ে দিতে৷ তবে শেষ ক’দিন সুশান্ত খুবই চুপচাপ থাকতেন বলে জানান নীরজ৷ বেশি কথা বলতেন না এবং ঘর থেকেও বেশি বাইরে আসতেন না প্রয়াত অভিনেতা৷

    অন্যদিকে সুশান্তের মৃত্যুতে তারা ৩ জন এতটাই হতভম্ব হয়ে গিয়েছিলেন যে একবার ওই দৃশ্য দেখার পর আর সেই ঘরে যাননি৷ সুশান্তের দেহ নামিয়েছেন সিদ্ধার্থ পাঠানি, এমনই জানান নীরজ৷ তবে সেই সময় কারও একটা ফোন আসে সিদ্ধার্থের কাছে৷ এবং ফোনের নির্দেশ দেওয়া হয় ঝুলন্ত দেহ নামিয়ে ফেলার৷

    আপাতত সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে এদের সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে৷ আদৌ কি সুশান্ত সিং রাজপুত আত্মহত্যা করেছেন না কি তাঁকে হত্যা করা হয়েছে ? সর্বপ্রথমে সিবিআইয়ের নজরে সুশান্তের সঙ্গে যুক্ত ছয়জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে ৷ সুশান্ত সিং রাজপুত যেই আবাসনে বসবাস করতেন সেই আবাসনেও যাওয়ার কথা আছে তদন্তকারী দলের ৷ গত ১৪ জুন বলিউডের তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু হয় ৷ তারপর থেকেই তাঁর মৃত্যু নিয়ে নানান জল্পনা শুরু হয়েছে ৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: