মাত্র ৫ মাসে কঙ্গনার ফলোয়ার সংখ্যা ৩০ লক্ষ, আনন্দে পোস্ট অভিনেত্রীর

মাত্র ৫ মাসে কঙ্গনার ফলোয়ার সংখ্যা ৩০ লক্ষ, আনন্দে পোস্ট অভিনেত্রীর

অল্পদিন হল তিনি নিজেই টুইটার ও ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডল করছেন। আর এবার টুইটারে তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ছাড়ালো ৩ মিলিয়ন বা ৩০ লক্ষ। টুইটারে সেই জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে একটি পোস্ট করেছেন কঙ্গনা।

অল্পদিন হল তিনি নিজেই টুইটার ও ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডল করছেন। আর এবার টুইটারে তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ছাড়ালো ৩ মিলিয়ন বা ৩০ লক্ষ। টুইটারে সেই জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে একটি পোস্ট করেছেন কঙ্গনা।

  • Share this:

    #মুম্বই: একটা সময়ে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট সামলাতেন তাঁর দিদি রঙ্গোলি। অল্পদিন হল তিনি নিজেই টুইটার ও ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডল করছেন। আর এবার টুইটারে তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা ছাড়ালো ৩ মিলিয়ন বা ৩০ লক্ষ। টুইটারে সেই জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে একটি পোস্ট করেছেন কঙ্গনা। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট সামলানোর অভিজ্ঞতাও শেয়ার করেছেন তিনি।

    কঙ্গনা লিখছেন, সকলকে ধন্যবাদ। আমি অগাস্টে টুইটারে যোগ দিই। এর আগে আমার টিম এটা সামলাতো। তখন ফলোয়ার সংখ্যা হাজারে ছিল। ভাবিনি এত তাড়াতাড়ি আমরা ৩ মিলিয়নে পৌঁছে যাব। টুইটার মাঝে মাঝে বিভ্রান্ত করে। কিন্তু এটা বেশ মজারও। ধন্যবাদ।

    কঙ্গনা বরাবরই নিজের মতামত স্পষ্ট করে বলার জন্যই পরিচিত। টুইটারেও তিনি নিজের মতামত ব্যক্ত করেন। এর জন্য বহু মানুষের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়ান অভিনেত্রী। টুইট করেই অন্যান্য তারকাদেরও নিশানা করেন বলিউডের রিভলভার রানি। সম্প্রতি অভিনেতা কমল হাসান ও কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরের সঙ্গে টুইট যুদ্ধে জড়ান তিনি।

    কমল হাসান দাবি করেন, প্রত্যেক গৃহবধূ মহিলার বেতন পাওয়া উচিত। এই মন্তব্য শুনেই গর্জে ওঠেন কঙ্গনা। অভিনেত্রী টুইট করেন, যে যৌনতায় আমরা ভালোবাসার জন্য জড়াই সেখানে প্রাইস ট্যাগ বসাবেন না। নিজের সংসার লালন পালনের জন্য আমাদের টাকা দিতে হবে না। বাড়িতে নিজের রাজ্যের রানি হওয়ার জন্য আমাদের বেতন দিতে হবে না। সবকিছুকে ব্যবসার দিক থেকে দেখা বন্ধ করুন। বরং নিজের স্ত্রীর কাছে নিজেকে সঁপে দিন। শুধু ভালোবাসা, শ্রদ্ধা ও বেতন নয়। আপনাকে সম্পূর্ণ ভাবে তাঁর দরকার।

    এর উত্তরে মুখ খোলেন শশী থারুর। তিনি প্রথম থেকেই কমল হাসানের এই মতামতের সঙ্গে সহমত ছিলেন। এর পরে শশী কঙ্গনার এই টুইট শেয়ার করে লেখেন, আমি সহমত যে একজন গৃহবধূর জীবনে অর্থের উর্ধ্বেও কিছু জিনিস রয়েছে। কিন্তু বিষয় সেটা নয়। তবে প্রত্যেক মহিলারা কতটা কাজ করে সেটা বোঝা দরকার এবং তাঁরা যাতে আয় করতে পারেন সেটা দেখা দরকার। আমি চাই ভারতের প্রত্যেক মহিলা তোমার মতো ক্ষমতা থাক।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: