• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD TANUJA TURNS EMOTIONAL AS SHE WATCHES DAUGHTER KAJOLS VIDEO MESSAGE FOR HER ON SUPER DANCER TC RC

Tanuja-Kajol: কাজলের কথা শুনে কেঁদে ফেললেন তনুজা! মা-বাবার ডিভোর্স নিয়ে কী এমন বলেছেন নায়িকা?

কেঁদে ফেললেন তনুজা।

সবার সামনেই তাঁর একান্ত ব্যক্তিগত জীবনের সিদ্ধান্ত অর্থাৎ স্বামী সোমু মুখোপাধ্যায়ের (Shomu Mukherjee) সঙ্গে ডিভোর্স নিয়ে যে মুখ খুলেছেন বড় মেয়ে (Tanuja-Kajol)?

  • Share this:

#মুম্বই: ঘটনাটা ঘটেছে সুপার ডান্সার চ্যাপ্টার ৪-এর (Super Dancer Chapter 4) মঞ্চে। শোয়ের যেমন নিয়ম, তেমন ভাবেই সংশ্লিষ্ট দিনের নাচ-গান জমে উঠেছিল বলিউডের বিখ্যাত এক অভিনেতা এবং তাঁর কেরিয়ার-সফল ছবির গানগুলো নিয়ে, চলছিল তারই শ্যুটিং। ছিলেন বিচারক শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রা (Shilpa Shetty), অনুরাগ বসু (Anurag Basu) এবং গীতা কাপুর (Geeta Kapur)। আর যাঁকে ঘিরে এত আয়োজন, সেই তনুজা (Tanuja) কি না চোখের জল সামলে রাখতে পারলেন না!

অবশ্য বিগত দিনের অভিনেতারা যদি নতুন প্রজন্মকে তাঁদের কাজ ঘিরে উদ্বেল হয়ে উঠতে দেখেন, তখন আনন্দের অশ্রু দেখা দেয় বইকি! তবে তনুজার চোখের জল বাধ মানেনি একান্তই ব্যক্তিগত কারণে। সবার সামনেই তাঁর একান্ত ব্যক্তিগত জীবনের সিদ্ধান্ত অর্থাৎ স্বামী সোমু মুখোপাধ্যায়ের (Shomu Mukherjee) সঙ্গে ডিভোর্স নিয়ে যে মুখ খুলেছেন বড় মেয়ে কাজল (Kajol)!

এই প্রসঙ্গে উল্লেখ না করলেই নয়- কাজল কিন্তু মায়ের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বিরূপ কোনও মন্তব্য করেননি! বরং তিনি তনুজার সিঙ্গল মাদারহুডের তকমাকে সম্মান জানিয়েছেন সর্বতো ভাবে। সুপার ডান্সার চ্যাপ্টার ৪ কর্তৃপক্ষ তনুজার এই শোয়ে যোগ দেওয়া উপলক্ষ্যে কাজলের একটি ছোট সাক্ষাৎকার নিয়েছিল। সেই সাক্ষাৎকারের ভিডিও ক্লিপে কাজলকে বলতে শোনা গিয়েছে যে ভাবে মা তাঁকে বড় করেছেন, সেটাই তাঁর জীবনের সেরা উপহার!

যদিও এই প্রথম কাজল তাঁর মা-বাবার ডিভোর্স নিয়ে মুখ খোলেননি, মাঝে মাঝেই এই নিয়ে মনের মধ্যে জমিয়ে রাখা কথা তিনি ভাগ করে নেন সবার সঙ্গে। এর আগে যেমন এক সাক্ষাৎকারে নায়িকা জানিয়েছিলেন যে তাঁর যখন মাত্র ৪ বছর বয়স, তখন মা আর বাবা আলাদা হয়ে গেলেও তাঁর শৈশবে কোনও স্নেহের বঞ্চনা আসেনি। এই প্রসঙ্গে বিশেষ করে মায়ের অবদানের কথা উল্লেখ করতে ভোলেন না কাজল। বলেন যে মা যখনই যা করেছেন, তার কৈফিয়ত মেয়েকে দিয়েছেন, যেমন করে ছোট মেয়ে বুঝতে পারবে, সেই ভাবেই নিজের যুক্তিবোধ প্রতি মুহূর্তে পেশ করেছেন তনুজা, যা কাজলের বড় হয়ে ওঠা আর সবার থেকে আলাদা এবং বিশেষ করে তুলেছে!

Published by:Raima Chakraborty
First published: