corona virus btn
corona virus btn
Loading

সুশান্তের শেষ ফোনটা ধরতে পারলেন না বন্ধু, ‘কলব্যাক’ যখন করলেন তখন সব শেষ!

সুশান্তের শেষ ফোনটা ধরতে পারলেন না বন্ধু, ‘কলব্যাক’ যখন করলেন তখন সব শেষ!
ব্রেকিং বুম-এর খবর অনুযায়ী, আত্মহত্যার আগের রাতে সুশান্তের মোবাইলে একটি ফোন আসার পরই চিন্তিত হয়ে পড়েন সুশান্ত ৷ এর কিছুক্ষণ পর থেকেই নিজের প্রিয় বন্ধু মহেশ শেঠি ও বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে একের পর এক ফোন করতে থাকেন সুশান্ত ৷

বন্ধুকে শেষ কলে কী বলতে চেয়েছিলেন সুশান্ত ? সেই ফোনটা যদি মহেশ ধরতেন তা হলে হয়তো এ ভাবে চলে যেতে হত না তাঁকে । আফসোসটা থেকেই যাবে...

  • Share this:

#মুম্বই: ‘সুশান্ত, দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ । হয়তো কোনওদিন তাঁর উপর বায়োপিক হলে এমনই হবে সেই ছবির শিরোনাম । সবটাই খুব অবাক করে দিচ্ছে গোটা দেশকে । উত্তর মিলছে না অনেক কিছুর । ৩৪ বছরের একটা তরতাজা যুবক, যে কিনা সকালে উঠে ঘর থেকে বেরিয়ে জুস খেল... স্বাভাবিক ছিল... ঘরে ঢুকেই সে কী করে আত্মহত্যা করতে পারে! এটাই ভাবিয়ে তুলছে সকলকে । গতকাল বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ । শনিবার রাতে শুতে যাওয়ার আগে বন্ধুকে ফোন করেছিলেন সুশান্ত । রাত তিনটের সময় বন্ধু মহেশ শেট্টি’কে ফোন করেছিলেন । কিন্তু সে সময় সুশান্তে ফোন ধরতে পারেননি মহেশ । এরপর ঘুরিয়ে কলব্যাক করেন বেলা ১২টা নাগাদ । কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ । আর পাঁচটা দিনের মতোই রবিবারও সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে পড়েন সুশান্ত। সকাল দশটা নাগাদ নিয়ম মেনে ফলের রসও খান তিনি। এরপর আবার ঢুকে যান নিজের বেডরুমে । পরিচারক তাঁকে ডাকেন ১১টা নাগাদ। সাড়া দেননি সুশান্ত। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর আবাসনের অন্য বাসিন্দাদের এবং সুশান্তের ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের খবর দেন ওই পরিচারক। বন্ধুরা ফোন করেন ১০৮ নম্বরে। দরজা ভাঙতে ভাঙতে বেলা দেড়টা বেজে যায়। তখনই দেখা যায়, বিছানার চাদর ব্যবহার করে ঝুলে রয়েছে অভিনেতা । বন্ধুকে শেষ কলে কী বলতে চেয়েছিলেন সুশান্ত ? সেই ফোনটা যদি মহেশ ধরতেন তা হলে হয়তো এ ভাবে চলে যেতে হত না তাঁকে । হয়তো... হয়তো আবার ফিরতে পারতেন জীবনের মূল স্রোতে... হয়তো... । অনেককিছুই হতে পারতো । কিন্তু কিছুই করার সময় দিলেন না পর্দার ধোনি ।

Published by: Simli Raha
First published: June 15, 2020, 2:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर