তেলেঙ্গানায় সোনু সুদের মন্দির, মাটির মানুষ সোনু লিখলেন, 'এতটা আমার প্রাপ্য নয়'

তেলেঙ্গানায় সোনু সুদের মন্দির, মাটির মানুষ সোনু লিখলেন, 'এতটা আমার প্রাপ্য নয়'

তেলেঙ্গানার সিড্ডিপেট জেলার দুব্বা টান্ডা গ্রামে অভিনেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তৈরি হল মন্দির

তেলেঙ্গানার সিড্ডিপেট জেলার দুব্বা টান্ডা গ্রামে অভিনেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তৈরি হল মন্দির

  • Share this:

    #মুম্বই: করোনাকালের এক ও একমাত্র বাস্তব হিরো বলিটাউনের অভিনেতা সোনু সুদ! লকডাউনে তিনি সিঃস্বার্থভাবে পরিযায়ী শ্রমিকদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বিশেষ গাড়ি, বাসের ব্যবস্থা করে শ্রমিকদের পৌঁছে দিয়েছেন নিজ-নিজ বাড়ি! এখানেই শেষ নয়! দেশের যে-কোনও প্রান্তে যখনই যে বিপদে পড়েছেন, সোনুকে একবার জানালেই হল... সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন 'দাবাং' স্টার! লকডাউনে বহু মানুষ কর্মহারা হয়েছেন। সোনু তাঁদের সাহায্য করেছেন নতুনভাবে জীবন শুরু করতে! এমনকী আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত জলপাইগুড়ির অসহায় মহিলাকেও নতুন বাড়ি বানিয়ে দেন সোনু সুদ।

    আজ গোটা দেশ সোনু সুদকে ভগবানের মতো ভক্তি করে! মানুষের মনের মণিকোঠায় তাঁর অবিচল শ্রদ্ধার আসন। বিহারে বানানো হয়েছে তাঁর বিশাল মূর্তি, এবার তেলেঙ্গানার সিড্ডিপেট জেলার দুব্বা টান্ডা গ্রামে অভিনেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তৈরি হল মন্দির। মন্দিরে স্থাপিত হয়েছে সোনুর মূর্তি। ২০ ডিসেম্বর গ্রামবাসীদের উপস্থিতিতে মূর্তির উদ্বোধন হয়। সাবেকী দক্ষিণী সাজে সেজে মহিলারা আরতি করেন, গীতিতে মুখর হয়ে ওঠে অনুষ্ঠান। জেলা পরিষদের সদস্য গিরি কোন্ডল রেড্ডি জানান, '' তাঁর মহান কাজের মধ্যে দিয়ে সোনু সুদ মানুষের মনে ভগবানের আসন লাভ করেছেন। তিনি আমাদের কাছে ভগবান।'' মূর্তির নির্মাতা শিল্পী মধুসূদন পাল বলেন, '' সোনু সুদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপনে আমি ওঁর মূর্তি বানাই।''

    সোনু সুদের মন্দির, তাঁর মূর্তির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হতেই নেটিজেনরা তেলেঙ্গানার গ্রামবাসীদের মহান প্রয়াসের ধন্য ধন্য করছেন! কিন্তু মাটিছোঁয়া অভিনেতা সোনু এ'কধা জানতে পেরে রীতিমতো লজ্জিত! জানিয়েছেন, '' আমি আপ্লুত, কিন্তু এতটা আমার প্রাপ্য নয়।''

    দরিদ্রদের পাশে দাঁড়াতে নিজের সম্পত্তিও বন্ধক রেখেছেন সোনু সুদ। মুম্বইয়ের জুহুতে তাঁর ৮টি সম্পত্তি বন্ধক রাখা হয়েছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের কাছে। জুহুর শিব সাগর CGHS-এর গ্রাউন্ড ফ্লোরে ২টি দোকান এবং ৬টি ফ্লোরের ৬খানি ফ্ল্যাট বন্ধক রাখা হয়েছে। ইস্কন মন্দিরের কাছে এবি নায়ার রোডে অবস্থিত এই বিল্ডিং। রেজিস্ট্রেশনের ৫ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছে ১০ কোটি ঋণের জন্য। রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে ২৪ নভেম্বর। এগরিমেন্ট সই করা হয়েছে ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে। এই সম্পত্তিগুলি সোনু এবং তাঁর স্ত্রী সোনালির নামে রয়েছে। জানা গিয়েছে, এই ঋণ গৃহঋণের চেয়ে অনেক চড়া সুদে নেওয়া হয়েছে।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: