আবর্জনায় ভর্তি হচ্ছে সোশাল মিডিয়া, কোনও কাজের নয় : ইমরান হাশমি

আবর্জনায় ভর্তি হচ্ছে সোশাল মিডিয়া, কোনও কাজের নয় : ইমরান হাশমি

বেশ আট-ন মাস হল, সোশাল মিডিয়ায় নিশ্চুপ ইমরান হাশমি

বেশ আট-ন মাস হল, সোশাল মিডিয়ায় নিশ্চুপ ইমরান হাশমি

  • Share this:

    #মুম্বই: কিস কিং বলেই সুনাম অর্জন করেছিলেন এককালে। একটা ছবিতে কতগুলো কিসিং সিন আছে তা দিয়েই প্রযোজকরা নির্ধারণ করতেন ছবি বিক্রি কেমন হবে! এখন ইমরান হাশমি কিন্তু আমূল বদলে গিয়েছেন। রোমান্সের মোড়ক খুলে যেন বেরিয়ে এসেছে ভেতরের রাশভারী মানুষটা।

    নিজের লিভিং রুমে বসে অনলাইনে সাক্ষাতকার দিচ্ছেন মিডিয়াকে। রুমের আসবাবে অ্যান্টিক টাচ। সোফাসেটের পাশে টেবিল ল্যাম্প। নরম আলো পড়েছে ফ্লোরে। মানানসই সাদা কুশন। শৌখিনতার ছাপ সবখানে। নিজেও সেজেছেন পরিপাটি করে। ধোপদুরস্ত চেহারা। বাড়িতে আছেন বলে এলোমেলো অগোছালো হয়ে থাকবেন, এমনটা তাঁর না-পসন্দ।

    আপনি তো প্রচণ্ড পাংচুয়াল। বলিউডের অভিনেতারা খুব কমই এমনটা হন... "অভিনেতা হয়েছি বলে কি স্কুলে যা শিখেছি সব ভুলে যাব? স্কুলে আজীবন আমি টাইমের মধ্যেই সবকিছু করে ফেলতাম। এখন ব্যাপারটাকে কেউ কেউ কমপালসিভ ডিসঅর্ডার বলেন। যা খুশি বলুন। মুম্বই শহরে পাংচুয়াল হওয়া যায় না, ট্রাফিক সম্পর্কে আগে থেকে কিছু বলা যায় না এমন তো অনেক শুনেছি। কিন্তু বিশ্বাস করুন, সবরকম ট্রাফিক জ্যাম উপেক্ষা করে আমি ঠিক টাইমে সেটে পৌঁছতাম।" বললেন ইমরান।

    বার্ড অফ ব্লাড সিরিজে আপনার অভিনয়ের প্রশংসা করছেন সবাই। শোনা যাচ্ছে সিরিজের দ্বিতীয় পর্বেও আপনি থাকছেন? "কবে শুরু হবে জানা নেই। গল্পটা এমনই যে পরবর্তী পর্বেও এসেনশিয়াল আমার চরিত্র। কিন্তু এখনও জানি না। আমার অভিনয় করা দুটো প্রজেক্ট নিয়ে আমি বেশ আশাবাদী। "মুম্বই সাগা" প্রথমটা। আর পরেরটা বচ্চনসাবের সঙ্গে "চেহরে"।

    তবে কখন মুক্তি পাবে এখনই বলা যাচ্ছে না। আগে দেখা হোক সিনেমাহলে কেমন লোক হচ্ছে। তার পর মুক্তি হলে ছবিদুটোর প্রতি সুবিচার হবে।"

    বেশ আট-ন মাস হল, আপনি সোশাল মিডিয়ায় নিশ্চুপ। আগে আপনার চাঁছাছোলা মন্তব্য পাওয়া যেত। সোজা কথা রাখঢাক না করে বলতে পারতেন। কী এমন হল যে আপনি নির্লিপ্ত হয়ে গেলেন? "আবর্জনায় ভর্তি হয়ে যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া! আগে মনে হত, এটা একটা মানসিক আদানপ্রদানের প্ল্যাটফর্ম। আমি রেসপন্ড করতাম। মূল্যবান মতামত নিতাম। এখন এত নেগেটিভ কমেন্টে ভরে যাচ্ছে যে পড়াই বন্ধ করে দিয়েছি। এমনকি নিউজ মিডিয়ার উপর থেকেও বিশ্বাস হারাচ্ছি। ভেবে দেখলাম সিম্পলি ওয়েস্ট অফ টাইম। " বললেন ইমরান।

    মিউজিক ভিডিওতে এত রোম্যান্টিক আপনি, এখন এত সিরিয়াস হয়ে গেছেন কীভাবে? লকডাউন এফেক্ট? "লকডাউনে বাড়িতে বসে থাকতে হচ্ছে, জোর করে কাজে ফিরতে চাই, এমনটা কিন্তু নয়! কাজ আমার কাছে এমনিই আসবে। আমার দায়িত্ব কাজটা বেছে সঠিকভাবে করা। এই ট্র্যাকটা একবার শুনেই মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলাম। তাই আর অন্য কিছু চিন্তা করিনি। আর শেষে বলি, আমি সবসময় সিরিয়াস!" মুচকি হাসলেন ইমরান।

    শর্মিলা মাইতি
    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    লেটেস্ট খবর