• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • Shashi Kapoor Birth Anniversary: অপর্ণা সেন থেকে রেখা, দেশের নায়িকাদের কেরিয়ার সামলেছেন প্রযোজক শশী কাপুর!

Shashi Kapoor Birth Anniversary: অপর্ণা সেন থেকে রেখা, দেশের নায়িকাদের কেরিয়ার সামলেছেন প্রযোজক শশী কাপুর!

Shashi Kapoor Birth Anniversary: অপর্ণা সেন থেকে রেখা, দেশের নায়িকাদের কেরিয়ার সামলেছেন প্রযোজক শশী কাপুর!

Shashi Kapoor Birth Anniversary: অপর্ণা সেন থেকে রেখা, দেশের নায়িকাদের কেরিয়ার সামলেছেন প্রযোজক শশী কাপুর!

প্রযোজক হিসেবে তাঁর বরাবর লক্ষ্য ছিল ব্যতিক্রমী ছবির ধারার দিকে। ফিল্মওয়ালা নামে একটা প্রযোজনা সংস্থাও খুলেছিলেন তিনি।

  • Share this:

#মুম্বই: বলিউডের কাপুর পরিবারের উজ্জ্বল রত্নটি কে? রাজ কাপুর (Raj Kapoor) না কি শশী কাপুর (Shashi Kapoor)? এই বিতর্কের সমাধান এখনও হয়নি। এই দুই কাপুর ভাই অভিনয় হোক, কী ছবি প্রযোজনা... দেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে একের পর এক কিংবদন্তি মুহূর্ত সৃষ্টি করেছেন। চারবার জাতীয় পুরস্কার পাওয়া, পদ্মভূষণ সম্মানলাভ, দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারের সঙ্গে নাম জুড়ে যাওয়া- এগুলোর কোনওটাই শুধু বংশকৌলীন্য দিয়ে হয় না। তার জন্য যে বিরল প্রতিভা প্রয়োজন, নিঃসন্দেহেই তার অধিকারী ছিলেন শশী কাপুর।

৬ দশকের কেরিয়ারে ১৬০টি ছবির সঙ্গে জড়িয়ে আছে শশী কাপুরের নাম। আজ জন্মবার্ষিকীতে নজর দেওয়া যাক দেশের অন্যতম জনপ্রিয় এই নায়কের প্রতিভার আরেক দিকে। সেটা তাঁর প্রযোজক সত্ত্বা। অভিনেতা হিসেবে বলিউডের অনেক মশালা ছবি সই করেছিলেন শশী। কিন্তু প্রযোজক হিসেবে তাঁর বরাবর লক্ষ্য ছিল ব্যতিক্রমী ছবির ধারার দিকে। ফিল্মওয়ালা নামে একটা প্রযোজনা সংস্থাও খুলেছিলেন তিনি। আর সেই সূত্রেই অপর্ণা সেন থেকে শুরু করে রেখা, শ্যাম বেনেগাল থেকে শুরু করে গিরিশ কারনাড- দেশের চলচ্চিত্রজগতের খ্যাতনামাদের কেরিয়ার সামলানোর সঙ্গেও জুড়ে গিয়েছে তাঁর নাম।

৩৬ চৌরঙ্গি লেন (36 Chowringhee Lane)

শশী প্রযোজনার হাত বাড়িয়ে না দিলে অপর্ণা সেনের (Aparna Sen) পরিচালক সত্ত্বাকে হয় তো অনেক দেরিতে আবিষ্কার করত দেশ। ১৯৮১ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবি জাতীয় পুরস্কার জয় করেছিল।

জুনুন (Junoon)

প্রযোজক শশী কাপুরের এই ছবিটি দেশের আরেক বিখ্যাত নায়িকা শাবানা আজমির (Shabana Azmi) কেরিয়ারের পালে হাওয়া দিয়েছিল। ১৯৭৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল শাবানার প্রথম ছবি। তার পরে এই ঐতিহাসিক ছবিতে তাঁকে কাস্ট করার সিদ্ধান্ত যে ভুল নয়, তা প্রমাণ করেছিল জুনুন। পাশাপাশি, ১৯৭৬ সালের ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া নাফিসা আলি (Nafisa Ali) এই ছবি দিয়েই শুরু করেছিলেন তাঁর অভিনয়ের কেরিয়ার।

কলযুগ(Kalyug)

পরিচালক শ্যাম বেনেগালের (Shyam Benegal) সঙ্গে শশীর হৃদ্যতা সুবিদিত। জুনুন ছবির পরে কলযুগ ছবিতেও উঠে এসেছিল প্রযোজক শশী আর পরিচালক বেনেগালের সফল জুটি। তবে ১৯৮১ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবির অন্যতম সম্পদ রেখার (Rekha) অভিনয়। তিনি যে ব্যতিক্রমী ধারার ছবির অভিনয়েও সমান স্বচ্ছন্দ, সে কথা প্রমাণিত হয়েছিল প্রযোজক শশীর হাত ধরেই!

বিজেতা (Vijeta)

নতুন মুখ খুঁজে আনতে, তাঁদের উপরে ভরসা করতে বলিউডে প্রযোজক শশীর জুড়ি মেলা ভার! এই সূত্রে বিজেতা ছবিটির উল্লেখ করতেই হয়। পরিচালক গোবিন্দ নিহালনি (Govind Nihalani) যে অনেক দূর যাওয়ার ক্ষমতা ধরেন, তা প্রমাণ করেছিল তাঁর কেরিয়ারের দ্বিতীয় এই ছবি। ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স নিয়েও খুব সম্ভবত এটিই দেশের প্রথম ছবি, যেখানে নিজের ব্যতিক্রমী অভিনয়ের রেকর্ড গড়েছিলেন রেখা।

উৎসব (Utsav)

রেখা বরাবরই শশীর সব চেয়ে পছন্দের নায়িকা। প্রাচীন ভারতীয় নারীর যে ধ্রুপদী সৌন্দর্য বার বার রেখার প্রসঙ্গে উঠে আসে, সেই ভাবমূর্তিটি কিন্তু তৈরি হয়েছিল প্রযোজক শশীর সূত্রে। ১৯৮৪ সালে পরিচালক গিরিশ কারনাডের (Girish Karnad) এই ছবিতে সংস্কৃত সাহিত্যের প্রসিদ্ধ গণিকা বসন্তসেনার ভূমিকায় রুপোলি পর্দায় নজির গড়েছিলেন রেখা। এবং এটিই একমাত্র ছবি, যেখানে খলনায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন শশী!

Published by:Rukmini Mazumder
First published: