corona virus btn
corona virus btn
Loading

'আর কতজনকে চাপা দিয়ে মারবেন'? সাইকেল চালানোর ছবি পোস্ট করায় সলমনকে আক্রমণ

'আর কতজনকে চাপা দিয়ে মারবেন'? সাইকেল চালানোর ছবি পোস্ট করায় সলমনকে আক্রমণ

২০০২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে হিট অ্যান্ড রান মামলায় নাম জড়ায় সলমন খানের। মাঝ রাতে পানশালা থেকে মত্ত হয়ে ফেরার পথে সলমন বেশ কয়েকজন ফুটপাতবাসীর গায়ে গাড়ি তুলে দেন বলে অভিযোগ ওঠে। জানা যায়, সেই রাতে সলমনের গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয় ১ জনের, আহত হন আরও ৪ জন

  • Share this:

#মুম্বই: নীল হুডি, ছাই রঙা শর্টস, মুখে মাস্ক... সকাল-সকাল বিন্দাস মুডে সাইকেল চালাচ্ছেন সলমন খান! ছবিটি নিজেই নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন সল্লু মিঞা, ক্যাপশনে লেখেন​'সাবধানে থাকুন'। সলমনের এই পোস্টের পরই বেজায় চটে গিয়েছেন নেটিজেনরা! শুর জোর আলোচনা-সমালোচনা! তীব্র ট্রোলের শিকার খান! কেউ বা সল্লুকে আক্রমণ করে লিখেছেন, '' সাবধানে থাকুন... সলমন ভাই এবার আপনার দেহের উপর দিয়ে সাইকেল চালিয়ে দেবেন! '' কারও বা কটাক্ষ, '' এই মানুষটার থেকে 'স্টে সেফ' অর্থাৎ সাবধানে থাকুন... সলমন ভাই সাইকেল চালাচ্ছে!''

সলমনের বিরোধীতায় কমেন্ট বক্সে রীতিমত মন্তব্যের ঝড় উঠেছে! কেউ লিখলেন, ''' প্রথমে গাড়ি, তারপর ট্র্যাকটর আর এবার বাইসাইকেল... আর কত মানুষকে তিনি মারবেন?'' কারও মত, '' আপনার কারণে কেউ-ই নিরাপদ নয়!'' কারও বা ব্যাঙ্গাত্মক উক্তি, '' দয়া করে ফুটপাথে সাইকেল চালাবেন না!''

View this post on Instagram

#StaySafe

A post shared by Salman Khan (@beingsalmankhan) on

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু-সহ বিগত আড়াই মাসে বলিটাউনে যে একের পর ঝড় বয়ে চলেছে, তা নিয়ে একবারও মুখ খোলেননি সলমন খান! সে বিষয়েও খান-কে আক্রমণ করতে ছাড়লেন না নেটিজেনরা! তাঁদের কথায়, '' শিভ সেনা কঙ্গনার অফিস, বাড়ি ভেঙে দিচ্ছে। আপনাদের মত বলিটাউনের তথাকথিত হিরোরা একটা কথাও তো বললেন না, উলটে সাইকেল চালানোর ছবি পোস্ট করছেন? মাথায় রাখবেন, এই বলিউডই কিন্তু আপানাকে এই জীবনটা দিয়েছে, এই লাইফস্টাইলটা দিয়েছে যেটা পনি এখন উপভোগ করছেন!''

প্রসঙ্গত, ২০০২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে হিট অ্যান্ড রান মামলায় নাম জড়ায় সলমন খানের। মাঝ রাতে পানশালা থেকে মত্ত হয়ে ফেরার পথে সলমন বেশ কয়েকজন ফুটপাতবাসীর গায়ে গাড়ি তুলে দেন বলে অভিযোগ ওঠে। জানা যায়, সেই রাতে সলমনের গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয় ১ জনের, আহত হন আরও ৪ জন। সেই বছরই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা শুরু হয়। কিন্তু ২০১৫ সালে শেষ পর্যন্ত হিট অ্যান্ড রান মামলায় বেকসুর মুক্তি পেয়ে যান সলমন।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: September 11, 2020, 1:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर