Home /News /entertainment /

Saif-Kareena: চুলে হাত দিলে কুপিয়ে খুনও করে দিতে পারেন বেবো! করিনাকে নিয়ে অকপট সইফ!

Saif-Kareena: চুলে হাত দিলে কুপিয়ে খুনও করে দিতে পারেন বেবো! করিনাকে নিয়ে অকপট সইফ!

ভাগ্যবশত করিনা (Kareena Kapoor Khan) কিন্তু তাঁর চুলের সঙ্গে একেবারেই খারাপ ট্রিটমেন্ট করেননি, তাও সংযোজন করেন সইফ (Saif Ali Khan)।

  • Share this:

#মুম্বই: গত বছর দেশ জুড়ে চলতে থাকা লকডাউনে প্রায় কয়েক মাস যাবতীয় সেলুন, স্পা বন্ধ ছিল। অগত্যা সেলিব্রিটিরা নিজেরাই একে অপরকে নতুন লুক দিতে সাহায্য করেছেন। বাড়িতেই একে অপরের চুল কাটার ছবি ধরা পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু তিনি তো আর পাঁচজনের মতো নয়। যে কোনও কাজেই নিজস্বতার ছাপ রাখতে ভালবাসেন। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন তিনি আর কেউই নন, বলিউড অভিনেত্রী করিনা কাপুর খান (Kareena Kapoor Khan)৷ তাই স্বামী সইফ আলি খান (Saif Ali Khan) তাঁর চুল কাটলে হয় তো তিনি ছুরি দিয়ে তাঁকে আঘাতও করতে পারেন। এমন স্বীকারোক্তি খোদ স্বামী সইফের।

সইফ আলি খানকে একবার ফিট আপ উইথ দ্য স্টারস (Feet Up With The Stars) অনুষ্ঠানে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে তিনি এবং করিনা কি কখনও একে অপরের চুল কাটার চেষ্টা করেছেন? যার উত্তরেই সইফ পরিষ্কার জানিয়ে দেন, তিনি কখনওই এই ধরনের ঝুঁকি নেবেন না। সইফ চুল কেটে দিলে বেবোর কী প্রতিক্রিয়া হবে তাই নিয়েই হাসির ছলে সইফ বলেন, "আমার মনে হয় ও আমাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করতে পারে।" আসলে একজন অভিনেতার কাছে বাহ্যিক দর্শন যে অতন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই কোনও ভাবেই নিজের অপারদর্শিতার কারণে বেবোর লুকের বারোটা বাজাতে চান না সইফ। এ প্রসঙ্গে অভিনেতার বক্তব্য ছিল, "আমি চুল কাটার জন্য একেবারেই পেশাদার নই। করিনা একজন জাতীয় সম্পদ। আমরা এখনও কাজ করছি, তাই আমরা একে অপরের চুল খারাপ করে দিতে পারি না।" যদিও ভাগ্যবশত করিনা কিন্তু তাঁর চুলের সঙ্গে একেবারেই খারাপ ট্রিটমেন্ট করেননি, তাও সংযোজন করেন সইফ।

তবে আগে সইফের চুলের খুব একটা ভালো স্টাইল ছিল না বলেই মনে করেন অভিনেতা। সংশ্লিষ্ট শো-এর একটি বিভাগে সইফকে বিগত বছরগুলিতে তাঁর অভিনীত চরিত্রগুলি মূল্যায়ণের জন্য দেওয়া হয়েছিল। যেখানে তিনি বলেছিলেন, "আগে আমার চুল কাটার ধরন ভাল ছিল না যা আর এখন নেই।" একই সঙ্গে শো-এ সইফ ইয়ে দিল্লাগি (Yeh Dillagi) সিনেমায় তাঁর লম্বা চুল দেখিয়ে একটি প্লেকার্ডও নিয়েছিলেন। যদিও আসল চুলের চেয়ে ওই ছবিতে তাঁর চুল, অনেক ভালো দেখতে লেগেছিল বলে জানান তিনি। কৌতুকের সুরে সইফ বলেন, "আমাকে দেখতে অমর চিত্র কথার নায়কের মতো লাগছিল, যেখানে ইয়ে দিল্লেগিতে আমায় বোকার মতো দেখতে লেগেছিল।"

প্রসঙ্গত, সইফ এবং করিনা তশান (Tashan) সিনেমার শুটিং চলাকালীন একে অপরের প্রেমে পড়েন। এরপর ১৬ অক্টোবর ২০১২ সালে সইফের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন করিনা। বর্তমানে নবাব দম্পত্তির দুই সন্তান রয়েছে। তৈমুর আলি খানের (Taimur Ali Khan) বয়স হয়ে গেল চার বছর এবং এই বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে তাদের দ্বিতীয় সন্তান জেহ (Jeh) জন্মায়।

এবছর শুরুর দিকে সইফকে Amazon Prime সিরিজ তান্ডবে (Tandav) দেখা গিয়েছিল। আগামী দিনে সইফের বান্টি অউর বাবলি ২ (Bunty Aur Babli 2), ভূত পুলিশ (Bhoot Police) এবং আদিপুরুষ (Adipurush)-এর মতো বিগ বাজেটের সিনেমাও আসতে চলেছে।

অন্য দিকে, করিনাকে শীঘ্রই সুপারস্টার আমির খানের (Aamir Khan)-এর বিপরীতে লাল সিং চাড্ডা (Laal Singh Chaddha)-তে দেখা যাবে। এছাড়া করণ জোহরের (Karan Johar) তখত (Takht) ছবিটিও করিনার ঝুলিতে রয়েছে।

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Kareena Kapoor Khan, Saif Ali khan

পরবর্তী খবর