corona virus btn
corona virus btn
Loading

'ক্যাশ চাই আমার ক্যাশ চাই',ভাইরাল রিয়া চক্রবর্তীর ভিডিও

'ক্যাশ চাই আমার ক্যাশ চাই',ভাইরাল রিয়া চক্রবর্তীর ভিডিও

এই মুহূর্তে গোটা দেশে সমস্ত আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রিয়া চক্রবর্তী। মাদক কান্ডে অভিযুক্ত রিয়া আপাতত বাইকুল্লা জেলে রয়েছেন

  • Share this:

#মুম্বই:  এই মুহূর্তে গোটা দেশে সমস্ত আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রিয়া চক্রবর্তী। মাদক কান্ডে অভিযুক্ত রিয়া আপাতত বাইকুল্লা জেলে রয়েছেন! বিগত আড়াই মাসে সব খবরের শিরোনামেই তিনি! তাঁকে নিয়ে প্রতি মুহূর্তেই একটার পর একটা চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসছে! ২৮ বছরের রিয়াকে নিয়ে মানুষের মনে কৌতূহলও তুঙ্গে! এই মুহূর্তে নেট দুনিয়ায় ভাইরাল রিয়ার একটি পুরনো অডিশনের ভিডিও। ২০১৩ সালে শ্যুট করা এই ভিডিওটিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার 'জনজির' ছবির গান 'পিঙ্কি হ্যায় পয়সেওয়ালো কি'-র ধুনে নাচতে দেখা যায় রিয়াকে। সেই বছরই 'মেরে ড্যাড কি মারুতি' দিয়ে বলিউডে পা রাখেন রিয়া ।

ভিডিওতে দেখা যায় রিপড জিনস, মিকি মাউস প্রিন্টের টি-শার্ট পরেছেন রিয়া, গানের কলি ' ক্যাশ চাহিয়ে মুঝে ক্যাশ চাহিয়ে'-র সঙ্গে রিয়ার দেদার  ঠুমকা দেখতে ভিড় জমিয়েছেন আট থেকে আশি। গানের শেষের দিকে রিয়াকে ভাঙ্গরা নাচতেও দেখা যায়।

টানা ৩ দিন জেরার পর মঙ্গলবার মাদককাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) গ্রেফতার করে প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের চর্চিত বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে। সেদিনই রিয়ার এক দফা জামিনের আর্জি খারিজ হয়ে যায়। নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর অফিসেই রাত কাটান রিয়া চক্রবর্তী। বুধবার সকালে অভিনেত্রীকে মুম্বইয়ের বাইকুল্লা জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। মাদককাণ্ডে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয় তাঁকে।

বৃহস্পতিবার বিশেষ আদালতে রিয়াকে ফের 'নির্দোষ' দাবি করে জামিনের আবেদন করেন আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে। আবেদনে বলা হয়, 'রিয়া কোনও অপরাধ করেননি। তাঁকে মিথ্যা ফাঁসানো হয়েছে। তাঁর থেকে এনসিবি জোর করে বয়ান আদায় করেছে!' রিয়ার পাশাপাশি জামিনের আবেদন করা হয় রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তী সহ মাদককাণ্ডে গ্রেফতার হওয়া আরও ৫ জনের। কিন্তু জামিনের শুনানি শেষে রায়দান স্থগিত রাখে আদালত। শুক্রবার ১১ সেপ্টেম্বর সকালে বিচারক জি বি গুরাও রিয়া এবং শৌভিক চক্রবর্তীর পাশাপাশি আরও ৪ অভিযুক্তর জামিন সংক্রান্ত রায় ঘোষণা করেন। রায়ে জানানো হয়, গ্রেফতার হওয়া ৬ জন, অর্থাৎ রিয়া, শৌভিক, দীপেশ সাওয়ান্ত, স্যামুয়েল মিরান্ডা, আবদেল বসিত পরিহার ও জায়েদ ভিলাত্রার জামিনের আবেদন খারিজ করেছে আদালত। ফলে আগামি ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত  বাইকুল্লা জেলেই কাটাতে হবে রিয়া চক্রবর্তীকে।

নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর তরফে দাবি করা হয়, রিয়া চক্রবর্তী 'ড্রাগ সিন্ডিকেট'-এর সঙ্গে সরাসরিভাবে যুক্ত, সক্রিয় সদস্য। সুশান্তের জন্য তিনিই মাদক আনাতেন, অন্যান্য নানা জায়গাতেও মাদক পৌঁছে দেওয়ার কাজ করতেন। NDPS আইন অনুসারে ২৭ এ, ২১, ২২, ২৮ ও ২৯ ধারায় মামলা দায়ের করেছে। রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তী, সুশান্তের প্রাক্তন হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা ও অভিনেতার রাঁধুনী দীপেশের বিরুদ্ধে মাদক জোগাড় ও সুশান্তকে মাদক জোগান দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে জাইদ ভিলাত্রা ও আবদেল বসিত পরিহার নামে ২ মাদক পাচারকারীকে । গ্রেফতার হওয়া মোট ৬ জনকেই ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: September 14, 2020, 4:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर