• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • BOLLYWOOD RD BURMAN BIRTH ANNIVERSARY AMITABH BACHCHAN REMINISCED AND PRAISED PANCHAM DAS BEETI NA BITAI RAINA RC

Amitabh Bachchan: বাঙালি সেতারবাদকের ভিডিও শেয়ার করে পঞ্চমদার স্মৃতিরোমন্থনে অমিতাভ বচ্চন!

পঞ্চমদার স্মরণে অমিতাভ।

১৯৩৯ সালের ২৭ জুন জন্মেছিলেন বলিউডের বিখ্যাত সুরকার ও গায়ক রাহুল দেব বর্মণ (RD Burman birth anniversary)। স্মৃতিরোমন্থনের তালিকায় ঢুকে পড়েছেন অমিতাভ বচ্চনও (Amitabh Bachchan)।

  • Share this:

    #মুম্বই: ১৯৩৯ সালের ২৭ জুন জন্মেছিলেন বলিউডের বিখ্যাত সুরকার ও গায়ক রাহুল দেব বর্মণ (RD Burman birth anniversary)। যাঁকে আর ডি বর্মণ ও পঞ্চমদা নামেই বেশিরভাগ মানুষ ভালোবাসেন। বেঁচে থাকলে রবিবার তাঁর ৮২ বছর বয়স হত। প্রবাদপ্রতিম এই শিল্পীর জন্মদিবস উপলক্ষে বলিউডের নানা গুণীজনেরা ট্যুইট করে স্মৃতিরোমন্থন করেছেন পঞ্চমদার। তালিকায় ঢুকে পড়েছেন অমিতাভ বচ্চনও (Amitabh Bachchan)। ১৯৭২ সালে তৈরি 'পরিচয়' ছবির 'বিতি না বিতায়ে রয়না' গানের একটি অন্য স্বাদের ভিডিও শেয়ার করেছেন বিগ বি।

    বাঙালি সেতারবাদক পূর্বায়ণ চট্টোপাধ্যায়ের সেতার বাজিয়ে 'বিতি না বিতায়ে রয়না' গানের একটি ভিডিও এদিন প্রথম শেয়ার করেছিলেন বিশিষ্ট তবলাবাদক জাকির হুসেন। পূর্বায়ণ এদিন এই গানটি সেতারে বাজিয়ে মায়েস্ত্রো আর ডি-কেই সম্মান জানাতে চেয়েছেন। সেটি স্বাভাবিক ভাবেই ভাইরাল হয়ে যায় এবং চোখে পড়ে জাকির হুসেনের। তিনি এই ভিডিও শেয়ার করার পর অমিতাভেরও মনে ধরে সেটি। জাকির হুসেনের ট্যুইটটি নিজের হ্যান্ডেল থেকে ফের শেয়ার করে অমিতাভ আর ডি বর্মণকে স্মরণ করেন।

    ভিডিওটি শেয়ার করে অমিতাভ লিখেছেন, 'ওয়াহ... অদ্ভুত... কী সুন্দর এক মুহূর্ত ছিল পরিচয় ছবিটার... জিতেন্দ্র, জয় ও সঞ্জীব কুমার... পরিচালক গুলজার... বিতি না বিতায়ে রয়না। এই গানটার পিছনে দারুণ সব গল্প রয়েছে।' ১৯৭৫ সালে 'পরিচয়' ছবিটি তৈরি করেছিলেন গুলজার। প্রযোজনা করেছিলেন ভি কে সোবতি। এই ছবিতে দেখা গিয়েছিল জিতেন্দ্র, জয়া ভাদুড়ি, বিনোদ খান্না ও সঞ্জীব কুমারকে। এই ছবির সুরকার ছিলেন আর ডি বর্মণ। গানটি ভীষণ ভাবে জনপ্রিয় আজও।

    ১৯৬৫ সালের 'দ্য সাউন্ড অফ মিউজিক' ছবি এবং রাজ কুমার মৈত্রের লেখা বাংলা উপন্যাস 'রঙিন উত্তরণ' থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এই ছবিটি তৈরি করেছিলেন গুলজার। এই ছবি ছাড়াও গুলজারের সঙ্গে একাধিক ছবিতে সুর দিয়েছিলেন আর ডি বর্মণ। এই ছবিতে 'সারে কে সারে', 'মুসাফির হুঁ ইয়ারো' মতো চিররঙিন সব গান রয়েছে। ১৯৬০ থেকে ৯০ সাল পর্যন্ত প্রায় ৩৩১ টি ফিল্মের সুরকারের কাজ করেছেন আর ডি বর্মণ। তাঁর শেষ ছবি '১৯৪২: আ লভ স্টোরি'।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: