সন্তানের ছবি তোলায় সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা! বিরুষ্কাকে কী বললেন পাপারাজ্জি

সন্তানের ছবি তোলায় সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা! বিরুষ্কাকে কী বললেন পাপারাজ্জি

অনুষ্কা ও বিরাট যে উপহার পাঠিয়েছেন সেটি দেখা যায় সেই ভিডিওয়। সঙ্গে ছিল অনুষ্কা ও বিরাটের পাঠানো একটি চিঠি। সেই চিঠিতেই বিরুষ্কা অনুরোধ করেছেন যাতে তাঁদের সন্তান বড় না হওয়া পর্যন্ত কোনও ছবি তোলা না হয়।

অনুষ্কা ও বিরাট যে উপহার পাঠিয়েছেন সেটি দেখা যায় সেই ভিডিওয়। সঙ্গে ছিল অনুষ্কা ও বিরাটের পাঠানো একটি চিঠি। সেই চিঠিতেই বিরুষ্কা অনুরোধ করেছেন যাতে তাঁদের সন্তান বড় না হওয়া পর্যন্ত কোনও ছবি তোলা না হয়।

  • Share this:

    #মুম্বই: সদ্যজাত মেয়ের ধারেকাছে পাপারাজ্জিদের ঘেঁষতে দেবেন না। অনুষ্কা শর্মা ও বিরাট কোহলি উপহার পাঠিয়ে পাপারাজ্জিদের অনুরোধ করেছেন, বড় হওয়া পর্যন্ত তাঁদের সন্তানের ছবি যেন তোলা না হয়। সেই অনুরোধ সাদরে গ্রহণ করেছেন ভিরাল ভয়ানি নামে এক চিত্রগ্রাহক।

    ভিরাল জানিয়েছেন, তাঁর পুরো টিমকে তিনি জানিয়ে দেবেন যেন বিরুষ্কার সন্তানের ছবি অনুমতি ছাড়া তোলা না হয়। তাঁরা যে ব্যক্তিগত পরিসরে সন্তানকে রাখতে চাইছেন, তাকে যেন লঙ্ঘন না করা হয়। ভিরালের এই পদক্ষেপের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন অভিনেত্রী রবিনা টান্ডন।

    বৃহস্পতিবার ভিরাল ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। অনুষ্কা ও বিরাট যে উপহার পাঠিয়েছেন সেটি দেখা যায় সেই ভিডিওয়। সঙ্গে ছিল অনুষ্কা ও বিরাটের পাঠানো একটি চিঠি। সেই চিঠিতেই বিরুষ্কা অনুরোধ করেছেন যাতে তাঁদের সন্তান বড় না হওয়া পর্যন্ত কোনও ছবি তোলা না হয়।

    তাই ভিরাল ভিডিওটি শেয়ার করে লিখেছেন, "বিরাট কোহলি ও অনুষ্কা শর্মা আমায় ও আমার টিমকে উপহার পাঠিয়েছেন। সেখানে হিন্দি ও ইংরেজিতে লেখা একটি চিঠিও রয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে সন্তান বড় না হওয়া পর্যন্ত যেন কোনও ছবি তোলা না হয়।"

    বিরুষ্কার সেই অনুরোধ রাখবেন বলে জানিয়েছেন ভিরাল। তিনি লিখছেন, "অবশ্যই। আমি আমার টিমকেও এই কথাটি জানিয়ে দেব।"

    ভিরালের এই পোস্ট দেখে মুগ্ধ হয়েছেন রবিনা টান্ডন। সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন, "ওদের (বিরুষ্কা) আবেগটা সম্পূ্‌র্ণ ভাবে বুঝতে পারছি। আর আমাদের সকল চিত্রগ্রাহকদের কুর্ণিশ। তাঁরা সব সময়ে মানুষের ইচ্ছেকে সম্মান জানান। আমার সন্তানরাও যখন ছোট ছিল তখন আমি চাইনি ওদের ছবি তোলা হোক। তোমরা সেই ইচ্ছে রেখেছিলে। আর তাই তোমাদের ধন্যবাদ জানাই।"

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: