বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্লিভলেস শর্ট ফ্রক, খোলা চুলে 'জারা জারা টাচ মি' গানে নাচছেন রাণু মণ্ডল

স্লিভলেস শর্ট ফ্রক, খোলা চুলে 'জারা জারা টাচ মি' গানে নাচছেন রাণু মণ্ডল

'রেস' ছবির 'জারা জারা টাচ মি টাচ মি টাচ মি' গানে ক্যাটরিনা কৈফ যে পোশাকটি পরেছিলেন, সেই ধাঁচের একটি পোশাক পরে নাচছেন রাণু

  • Share this:

#কলকাতা: রানাঘাটের স্টেশনের ভাইরাল রাণু রাতারাতি পৌঁছে যান লাইমলাইটের কেন্দ্রবিন্দুতে। স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে লতার গান গেয়ে স্টার হয়ে যান । এরপর থেকে রাণু কী করছেন, কী পরছেন, কী গাইছেন...তাঁর প্রতিটি খবরই শীর্ষে! রাণু পাড়ি দেন বলিউডেও। গত বছর পুজোতে কলকাতা ও শহরতলীর এমন কোনও প্যান্ডেল ছিল না যেখানে অন্তত একবার রাণুর গাওয়া সুপারহিট গান তেরি মেরি কাহানি বাজেনি! জলসা, মজলিস, রিয়েলিটি শো... সবেতেই একটাই নাম... রাণু মণ্ডল! সোশ্যাল মিডিয়াতেও ছেয়ে ছিলেন ‘ইয়ে প্যায়ার কা নাগমা হ্যায় গেয়ে স্টার হয়ে যাওয়া লতাকণ্ঠী রাণু!

রাতারাতি তারকা, কয়েক ঘণ্টায় খ্যাতির শীর্ষে, সমস্ত ফোকাস ঘোরানো তাঁরই দিকে... সেখান থেকে আচমকা কোথায় গেলেন তিনি ? অনেকের মত, অহঙ্কারই কাল হল রাণুর! নাম-ডাক হওয়ার পর অ্যাটিটুড-ই বদলে যায় তাঁর! ফ্যানেদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতে শুরু করেন! যেমন, গত ডিসেম্বরে কাতারে বসবাসকারী ভারতীয়দের নিজস্ব সংগঠন আমন্ত্রণ জানায় রাণুকে। সেখানে ছিলেন হিমেশ নিজেও। আয়োজকরা শিল্পীদের নিয়ে যান একটি শপিং মলে। ভিতরে এক বাঙালি মহিলা সেলফি তোলার জন্য পিছন দিক থেকে রানুর ঘাড়ের কাছে টোকা দেন। আর তাতেই ভয়ঙ্কর চটে প্রকাশ্যে তাঁকে অপমান করেন রাণু মণ্ডল! বলে দেন 'টাচ করবেন না! আমি এখন সেলিব্রিটি'!

এরপরই নেট দুনিয়ায় হাসির খোড়াক হয়ে ওঠেন রাণু! তাঁকে নিয়ে নানারকম মিম তৈরি হয়! তারমধ্যে তুমুল ভাইরাল ছিল 'রেস' ছবির 'জারা জারা টাচ মি টাচ মি টাচ মি' গানে ক্যাটরিনা কৈফ যে পোশাকটি পরেছিলেন, সেই ধাঁচের একটি পোশাক পরে রাণুর মিম! ছবিতে দেখা যায়, ক্যাটরিনার মতোই একটি ডান্স সিকোয়েন্স করছেন রাণু মণ্ডল! মিম-টি পুরনো, তবে ইদানীং ফের একবার ঘুরে ফিরে এসেছে নেট দুনিয়ায়, ফের ভাইরাল!

রাণুর ফ্যানের প্রতি খারাপ ব্যবহারে ক্ষুব্ধ হন হিমেশও। শোনা যায়, তিনি রানুর এক ঘনিষ্ঠের মাধ্যমে বলেন, ‘ একজন ফ্যানের সঙ্গে এমন আচরণ করা মোটেই ঠিক কাজ হয়নি, রাণুর ‘সরি’ বলা উচিত।’ কিন্তু রানু হীমেশের কথায় পাত্তাই দেননি, কোনও দুঃখপ্রকাশও করেননি।

রকেটের গতিতে উত্থান হয়েছিল রাণু মণ্ডলের। কিন্তু তারপরই ছন্দপতন! কোথায় গেল সেই রাণু ম্যাজিক? পরপর একাধিক বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন 'রানাঘাটের লতা'। লাইমলাইটে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রাণাঘাটের পুরনো বাড়ি ছেড়ে নতুন বাড়িতে উঠে যান রাণু মণ্ডল। কিন্তু লকডাউনের আগে ফেব্রুয়ারি মাস নাগাদ জানা যায়, নতুন বাড়ি ছেড়ে পুরনো বাড়িতেই ফিরে গিয়েছেন রাণু। নিন্দুকেরা বলেন, ইদানীং নাকি আর তেমন কাজ পাচ্ছেন না রাণু, তাই মিডিয়ার মুখোমুখি হচ্ছেন না। বলা যায়, মিডিয়া বিমুখ হয়ে পড়েছেন।

এরপর, শুরু হয় দীর্ঘ লকডাউন...প্রথমে বিতর্ক, তারপর লকডাউন... রাতারাতি জনপ্রিয় রাণুর নাম আজ ভুলেই গিয়েছে বাংলা! তিনি আজ সম্পূর্ণ বিস্মৃতির অতলে... ঘরবন্দি !লকডাউন চলাকালীন একটি ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে তিনি ত্রাণের আবেদন করেছিলেন, যা তিনি নিজে দুঃস্থদের হাতে তুলে দেবেন বলে জানান। যদিও ত্রাণ আসার পর রানু তেমন উৎসাহ দেখাননি। রানুকে যিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রথম তুলে ধরেন, সেই অতীন্দ্র চক্রবর্তী জানিয়েছিলেন, রাণু মণ্ডলের বাড়িতে কয়েকজন গরিব মানুষকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তিনি তাঁদের হাতে বিভিন্ন সামগ্রী তুলে দিয়েছিলেন। জানা যায়, ত্রাণের টাকার পাশাপাশি, নিজের রোজগারের টাকা থেকেও অসহায় মানুষদের জন্য চাল, ডাল, ডিম-সহ প্রয়োজনীয় দ্রব্য কিনেছিলেন রাণু।

রাতারাতি যেমন স্টার হয়েছিলেন, রাতারাতি তেমনি অপছন্দের তালিকায় চলে যেতে থাকলেন রাণু! গত বছর ৩১ ডিসেম্বর মুম্বইয়ের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের বর্ষশেষের অনুষ্ঠানে রাণুকে শিল্পীদের তালিকায় রাখা হয়েছিল। অনুষ্ঠানে থাকার কথা ছিল খোদ অমিতাভ বচ্চনের। কিন্তু কাতারের ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ তালিকা থেকে রানুর নাম বাদ দিয়ে দেন।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: September 26, 2020, 1:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर