corona virus btn
corona virus btn
Loading

'বিয়ের আগে সন্তানধারণ না করলেই পারতাম !' মেয়ের বিচ্ছেদে ভেঙে পড়লেন নীনা গুপ্তা

'বিয়ের আগে সন্তানধারণ না করলেই পারতাম !' মেয়ের বিচ্ছেদে ভেঙে পড়লেন নীনা গুপ্তা
photo source collected

ইনস্টাগ্রামে নীনা গুপ্তা বলেছেন, “কখনই বিবাহিত পুরুষদের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানো উচিত নয়।”

  • Share this:

#মুম্বই: নীনা গুপ্ত এমন একজন মানুষ, যে নিজের জীবনের সব কিছু নিয়েই খোলাখোলি কথা বলেন । ব্যক্তিগত হোক বা কর্মজীবন রাখঢাক নেই তাঁর। ভিভ রিচার্ডের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল । আর সেই সম্পর্কের সুফল তাঁর মেয়ে মাসাবা। তবে এখন সব কিছু বদলে গিয়েছে নীনার জীবনে। সম্প্রতি বিচ্ছেদ হয়েছে তাঁর মেয়ে মাসাবার। আর তাতেই অনেকটা ভেঙে পড়েছেন নীনা। মাসাবা ছিলেন নীনা ও ভিভের লাভ চাইল্ড। তবে মেয়ের বিচ্ছেদের পর নিজের জীবনের সবথেকে বড় ভুলটা স্বীকার করে নিলেন তিনি। নিজের ইনস্টাগ্রামে একথা জানিয়েছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ার এই প্ল্যাটফর্মে তিনি একটি সিরিজ শুরু করেছেন। নাম ‘সচ কহুঁ’। সেখানেই নিজের জীবনের এই এই সত্যি ফাঁস করেন তিনি।

আটের দশকে ভিভ রিচার্ডসের সঙ্গে প্রেম জমে উঠেছিল নীনার। ভিভ তখন বিবাহিত। দুই সন্তানের বাবা। প্রেমের শুরুর দিকে ভারতে নিয়মিত যাতায়াত ছিল ভিভের। তবে কোনও দিনই সেই সম্পর্ক বিয়ে পর্যন্ত গড়ায়নি। ১৯৮৯ সালে জন্ম নেয় নীনা গুপ্তা আর ভিভ রিচার্ডসের মেয়ে মাসাবা। মেয়েকে দেখতে ভারতে এসেছিলেন ভিভ। তার পর ধীরে ধীরে ভাঙন ধরে নীনা-ভিভের সম্পর্কে। মেয়ে মাসাবাকে ‘সিঙ্গল মাদার’ হিসেবেই বড় করেন নীনা। নিজের বিবাহবহির্ভূত সন্তানধারণের সিদ্ধান্তে এর আগে আক্ষেপও প্রকাশ করেন অভিনেত্রী। ইনস্টাগ্রামে নীনা গুপ্তা বলেছেন, “কখনই বিবাহিত পুরুষদের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানো উচিত নয়।” কর্মব্যস্ত জীবন থেকে একটু ব্রেক নিয়ে আপাতত উত্তরাখণ্ডের মুক্তেশ্বরে ছুটি কাটাচ্ছেন তিনি। তার ফাঁকে ভিডিও বার্তায় এমনই মন্তব‌্য করেছেন ওই অভিনেত্রী। বলেছেন, “বিয়ের আগে সন্তানধারণ না করলেই পারতাম। প্রত্যেক সন্তানের বাবা-মা দু’জনকেই প্রয়োজন।” তাঁর এই ভিডিওতে রয়েছে আরও অনেক জীবনের কথা। তবে আজ এই বয়সে এসে এভাবে ভেঙে না পড়লেই পারতেন হয়তো তিনি ! কিন্তু সন্তান মানুষকে যেমন জিতিয়ে দেয়, তেমন হারিয়েও দেয় ।

 
View this post on Instagram
 

#sachkahoontoe

A post shared by Neena ‘Zyada’ Gupta (@neena_gupta) on

Published by: Piya Banerjee
First published: March 4, 2020, 8:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर