• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • মিলেছে সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্ট, মহেশ ভাটকে প্রায় ৩ ঘণ্টা জেরা করল মুম্বই পুলিশ

মিলেছে সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্ট, মহেশ ভাটকে প্রায় ৩ ঘণ্টা জেরা করল মুম্বই পুলিশ

সুশান্তের মৃত্যুর পর প্রকাশ্যে আসে তাঁর চর্চিত বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও মহেশ ভাটের অন্তরঙ্গ কিছু মুহূর্তের ছবি! সুশান্তের ফ্যানেদের অনেকেই মহেশ ও রিয়াকে সুশান্তের মৃত্যুর জন্যও দায়ি করেন।

সুশান্তের মৃত্যুর পর প্রকাশ্যে আসে তাঁর চর্চিত বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও মহেশ ভাটের অন্তরঙ্গ কিছু মুহূর্তের ছবি! সুশান্তের ফ্যানেদের অনেকেই মহেশ ও রিয়াকে সুশান্তের মৃত্যুর জন্যও দায়ি করেন।

সুশান্তের মৃত্যুর পর প্রকাশ্যে আসে তাঁর চর্চিত বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও মহেশ ভাটের অন্তরঙ্গ কিছু মুহূর্তের ছবি! সুশান্তের ফ্যানেদের অনেকেই মহেশ ও রিয়াকে সুশান্তের মৃত্যুর জন্যও দায়ি করেন।

  • Share this:

    #মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা বলিউড! আচমকা কেন আত্মহননের পথ বেছে নিলেন তরতাজা এক তরুণ তুর্কি ? উঠছে হাজারটা প্রশ্ন! সত্যিই কি আত্মহত্যা ? না রয়েছে অন্য কোনও চক্রান্ত ? জোরকদমে তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ। অভিনেতার পরিবার, সহ-কর্মী, চর্চিত বান্ধবী রিয়া, এমনকী বলিউডের বেশ কিছু 'বিগি'দেরও জেরা করেছে পুলিশ। বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে সুশান্তের চিকিৎসকেরও!

    এবার সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু তদন্তে জিজ্ঞাসাবাদ করা হল পরিচালক মহেশ ভাটকে। সোমবার মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ থানায় হাজির হন পরিচালক। সকাল ১১টায় তিনি থানায় পৌঁছন। সাড়ে ১১টা নাগাদ শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। জানা গিয়েছে, দুপুর প্রায় ২টো পর্যন্ত চলে জেরা। সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনায় বয়ান রেকর্ডের পর ২টো নাগাদ থানা থেকে বের হতে দেখা যায় আলিয়া ভাটের বাবা মহেশ ভাটকে। জেরায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশের ডিসিপি ও তদন্তকারী অফিসার।

    প্রসঙ্গত, সুশান্তের মৃত্যুর পর প্রকাশ্যে আসে তাঁর চর্চিত বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও মহেশ ভাটের অন্তরঙ্গ কিছু মুহূর্তের ছবি! সুশান্তের ফ্যানেদের অনেকেই মহেশ ও রিয়াকে সুশান্তের মৃত্যুর জন্যও দায়ি করেন। অন্যদিকে, সুশান্ত সিং রাজপুতের ভিসেরা রিপোর্ট এসেছে মুম্বই পুলিশের হাতে। কালিনার একটি ল্যাব থেকে পাওয়া সেই  রিপোর্টে এখনও পর্যন্ত কোনও চক্রান্তের গন্ধ পাচ্ছে না পুলিশ। তবে নখের স্যাম্পেল আর স্টম্যাক ওয়াশের রিপোর্ট এখনও পুলিশের হাতে আসেনি।
    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: