• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • 'করণ জোহর সারাদিন কাঁদছেন, কথা বলার অবস্থায় নেই,' জানালেন করণের বন্ধু

'করণ জোহর সারাদিন কাঁদছেন, কথা বলার অবস্থায় নেই,' জানালেন করণের বন্ধু

করণ জোহর ও সুশান্ত সিং রাজপুত

করণ জোহর ও সুশান্ত সিং রাজপুত

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই তীব্র ক্ষোভের মুখে পড়েছেন করণ৷ বলিউড হাঙ্গামা-কে করণের এক বন্ধু জানালেন, করণ জোহর নাকি কাঁদছেন৷ বারবার বলছেন, 'আমি কী করেছি, যে এত ঘৃণা আমাকে নিয়ে!'

  • Share this:

    #মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনায় বলিউডের যে সেলেব্রিটিদের তীব্র নিন্দার মুখে পড়তে হয়েছে, তাঁদের মধ্যে অন্যতম হলেন পরিচালক প্রযোজক করণ জোহর৷ সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই তীব্র ক্ষোভের মুখে পড়েছেন করণ৷ বলিউড হাঙ্গামা-কে করণের এক বন্ধু জানালেন, করণ জোহর নাকি কাঁদছেন৷ বারবার বলছেন, 'আমি কী করেছি, যে এত ঘৃণা আমাকে নিয়ে!'

    সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই নেপোটিজম বা স্বজনপোষণের বিতর্কে তোলপাড় বলিউড৷ করণ জোহর-সহ নির্দিষ্ট কয়েকজন সেলেবের দিকে অভিযোগের আঙুল উঠেছে৷ নেটিজেনরা দিনরাত তুলোধনা করছেন ওই সেলেবদের৷ অভিযুক্তদের তালিকায় রয়েছেন করণ জোহর, আলিয়া ভাট, সোনাক্ষী সিনহা, সোনম কাপুর ও সলমন খান৷

    প্রবল ট্রোল রুখতে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় কমেন্ট সেকশন লিমিটেড করে দিয়েছেন করণ, আলিয়া, সোনম ও করিনা কাপুর খান৷ বয়কট করণ জোহর ক্যাম্পেন শুরু হয়েছে ট্যুইটারে৷ সোনাক্ষী তো তাঁর ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট ডি-অ্যাক্টিভেট করে দিয়েছেন৷

    করণ জোহরের বন্ধুর কথায়, 'করণের কাছের কয়েকজনকে আক্রমণের শিকার হতে হয়েছে, তাতেই করণের নিজেকে অপরাধী লাগছে৷ ওঁর ৩ বছরের যমজ সন্তান রয়েছে৷ তাদেরও খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে৷ অনন্যা পান্ডে বলে একজন, যাঁর সঙ্গে সুশান্তের কোনও সম্পর্কই ছিল না, তাঁকেও সুশান্তের মৃত্যুর জন্য আত্মহত্যা করতে বলা হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷'

    সুশান্তের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে করণ কি কিছু বলতে চান? তাঁর বন্ধুর কথায়, 'আইনজীবীর পরামর্শ অনুযায়ী, একেবারেই না৷ চুপ থাকাই ভাল৷ এ ছাড়া করণ কথা বলার অবস্থাতেও নেই৷ সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছে৷ ওকে দেখে মনে হচ্ছে, ভাগ্য ওকে ব্যাপক পিটিয়েছে৷ করণের সঙ্গে কথা বলে ভাল লাগল না৷ ও ভেঙে পড়েছে, কাঁদছে৷ আমরা যখন ফোন করেছিলাম, ও কাঁদতে কাঁদতে একটা কথাই জিগ্গেস করছিল, আমি কী করেছি? কেন আমায় এত ঘৃণা!'

    Published by:Arindam Gupta
    First published: