Kangana Ranaut: বিয়ের অছিলায় রাতের পর রাত ধর্ষণ! কঙ্গনা রানাউতের এক্কেবারে ব্যক্তিগত দেহরক্ষী গ্রেফতার

পুলিশের জালে কঙ্গনার দেহরক্ষী কুমার হেগ। ফাইল ছবি।

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের (Kangana Ranaut) ব্যক্তিগত দেহরক্ষী (Personal bodyguard) কুমার হেগ (Kumar Hegde)।

  • Share this:

    #মুম্বইঃ বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের (Kangana Ranaut) ব্যক্তিগত দেহরক্ষী (Personal bodyguard) কুমার হেগ (Kumar Hegde)। ধর্ষণের অভিযোগ সামনে আসার পর থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল কুমার। রবিবার কর্ণাটক থেকে তাকে গ্রেফতার (Arrest) করে মুম্বই পুলিশের (arrested by Mumbai police) একটি দল। কুমারের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ছাড়াও প্রতারণার (rape and cheating charges) অভিযোগ রয়েছে।

    এক বিউটিশিয়ানের (beautician) সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল কঙ্গনার দেহরক্ষী কুমারের। এরপর তাঁকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েই সহবাস (Raping pretext of marriage) করে কুমার। পরে বিয়ে করতে অস্বীকার করে। এ দিন মুম্বইয়ের ডিএন নগর থানার (DN Nagar police station) পক্ষ থেকে জানানো হয়, কর্ণাটকের মান্ড জেলার (Mandya district) হেজ্ঞাদাহাল্লি গ্রাম  (Heggadahalli village) থেকে গ্রেফতার করে হয় কুমারকে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে সোমবার বিয়ের পিঁড়িতে  বসত কুমার। কিন্তু থিক তার আগেরদিনই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে মহিলা বিউটিশিয়ানের অভিযোগের ভিত্তিতে।

    অভিযোগকারী ওই বিউটিশিয়ান জানিয়েছেন, দীর্ঘ ৮ বছর ধরে কুমারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল তাঁর। ২০২০ সালের মার্চ মাসে তাঁরা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। সেই প্রস্তাবও নাকি দিয়েছিলেন কুমারই। এরপর তাঁদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বাড়তে শুরু করে। চলতি বছরের ২৭ এপ্রিল কুমার মায়ের মৃত্যুর খবর জানিয়ে তাঁর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ধার নেন এবং গ্রামে চলে যান। মহিলার দাবি, ঠিক সেই সময়ের পর থেকেই আর কোনওভাবেই কুমারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না তিনি। ফোনেও যোগাযোগ করতে পারেননি। এরপর তিনি খবর পান অন্য একটি মেয়েকে বিয়ের জন্য সমস্ত প্রস্তুতি সারা হয়ে গিয়েছে কুমারের, তখন তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন।

    তবে উল্লেখযোগ্য, যিনি বলিউড, রাজনীতি বা ব্যক্তিগত পরিসরে কখনও কাউকে নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে পিছুপা হন না, সেই কঙ্গনা রানাউতের ব্যক্তিগত দেহরক্ষী গ্রেফতার হওয়ার পরে তিনি এখনও এক্কেবারে চুপ। এমনকি কোনও বিজ্ঞপ্তি পর্যন্ত প্রকাশ করেননি।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: