বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কঙ্গনাও ড্রাগ নেন! বলেছিলেন প্রাক্তন প্রমিক, এখন হাত জোর করে বলছেন...ভিডিওটি দেখুন

কঙ্গনাও ড্রাগ নেন! বলেছিলেন প্রাক্তন প্রমিক, এখন হাত জোর করে বলছেন...ভিডিওটি দেখুন
Adhyayan Suman

এই মামলায় কঙ্গনা নামের সঙ্গে উঠে আসছে তার নামও! তা দেখে অধ্যায়ন সুমন (Adhyayan Suman) একটি ভিডিও প্রকাশ করে আবেদন করেন তাঁকে এসবের মধ্যে না জড়াতে৷ তিনি বলেন যে, যে কঙ্গনার সঙ্গে তাঁর আর কোনও সম্পর্ক নেই।

  • Share this:

#মুম্বই: কঙ্গনা রানাওয়াত এবং মহারাষ্ট্র সরকার সমুখ সমরে। দু’পক্ষের এই কোন্দলের মধ্যে, শেখর সুমনের ছেলে অধ্যয়ন সুমনের (Adhyayan Suman)একটি পুরানো সাক্ষাৎকারের ভিডিও সামনে আসে যেখানে তিনি বলেছিলেন যে, কঙ্গনার ড্রাগ নিতেন এবং তাঁকেও জবরদস্তি ড্রাগ নিতে বাধ্য করেছিলেন৷ এই ভিডিও প্রকাশ করে এটাই প্রমাণ করার চেষ্টা করছে কঙ্গনার বিরোধীরা যে, কঙ্গনা অন্যদের বিরুদ্ধে ড্রাগ নিয়ে সবর হলেও, তিনি নিজেও এই ড্রাগ সেবনের সঙ্গে জড়িত৷ এরই প্রেক্ষিতে সম্প্রতি, অধ্যয়ন সুমন একটি ভিডিও ট্যুইট করেছেন এবং হাত জোড় করে এতে তিনি অনুরোধ করেছেন যে, কঙ্গনার কোনও বিষয় যেন তাঁকে না টানা হয়৷ সব পুরনো কথা তিনি ভুলে অনেকটা জীবনে এগিয়ে গিয়েছেন৷ এখন আর এই বিতর্কের মধ্যে তিনি পড়তে চান না৷

ভিডিওতে অধ্যয়ন বলেন যে, গতকাল থেকে আমি খুব বেশি বিরক্ত হয়েছি কারণ পুরোনা সাক্ষাৎকারটি সামনে এনে ফের একবার কঙ্গনার মামলায় আমার নাম টানা হচ্ছে। আমি এই সাক্ষাৎকারটি ২০১৬ সালে দিয়েছিলাম। সেটা অনেক বছর আগের কথা৷ আমি জীবনে অনেক এগিয়েছি৷ দয়া করে এই ভিডিও নিয়ে অযথা মাতামাতি করা ঠিক হবে না৷ আমায় এসবের থেকে দয়া করে দূরে রাখুন৷ এমনই আর্জি জানিয়েছেন অধ্যয়ন৷ কঙ্গনার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ও তার পরিণতি নিয়ে অনেক জলঘোলা হয়েছিল৷ তবে সেসব এখন অতীত৷

আরও পড়ুন রিয়ার টি-শার্টে বুকের ওপর যা লেখা তা আদতে পিতৃতন্ত্রর প্রতিবাদ নয়, স্যানিটারি প্যাডের প্রচার!

তিনি আরও বলেন যে, আমার যা যা বলা উচিত ছিল আমি সেই সময়, অর্থাৎ ২০১৬-এ জাতীয় সংবাদমাধ্যমে বলেছিলাম৷ তখন আমার ও আমার পরিবারকে হেনস্থার মুখে পড়তে হয়েছিল৷ খুবই খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছি আমরা৷ অনেক কাঠ-খড় পুড়িয়ে এই জায়গায় এসেছি৷ অনেক সংগ্রামের পর, আমি এই জায়গায় পৌঁছেছি৷। আপনাদের সবার অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। তিনি বলেন যে, কঙ্গনা রানাওয়াতের সঙ্গে আমার কোনও সম্পর্ক নেই এবং এরপরে আর কোনও সম্পর্ক থাকবে না। তবে আমাদের লড়াই এক, সুশান্তের সুবিচার।

সুশান্ত মামলায় ড্রাগের বিষয়টি সামনে আসার পর আবারও কঙ্গনা বলিউডকে টার্গেট করেছিলেন। অধ্যয়ন সুমন, যিনি কঙ্গনার সহশিল্পী ছিলেন এবং প্রাক্তন প্রেমিকও, তিনি ২০১৬ সালে একটি সাক্ষাৎকারে কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন যে তিনি মাদক সেবন করেন। আরও অভিযোগ করা হয়েছিল যে, কঙ্গনা তাকে জোর করে ড্রাগ দিয়েছিলেন। শিবসেনা নেতা সুনীল প্রভু এবং প্রতাপ এই পুরনো সাক্ষাৎকারের ভিডিওটি সামনে আনেন৷ এরই একটি কপি মহারাষ্ট্র সরকারের কাছে তাঁরা জমাও দিয়েছেন। এর পরে সরকার পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। এই মামলাটি তদন্ত করবে মহারাষ্ট্র পুলিশ।

Published by: Pooja Basu
First published: September 10, 2020, 11:20 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर