Juhi Chawla 5G Petition: ৫জি টেলিকম নিয়ে কেন মামলা করেছিলেন জুহি? জরিমানার পর ব্যাখ্যা দিলেন নায়িকা

জুহি চাওলা।

৫জি ইন্টারনেট পরিষেবা (5G Internet) নিয়ে মামলা খারিজ হওয়ার পর কেন আদালতে এই মামলা করেছিলেন তিনি, তার ব্যাখ্যা দিলেন অভিনেত্রী জুহি চাওলা (Juhi Chawla)।

  • Share this:

    #মুম্বই: ৫জি ইন্টারনেট পরিষেবা (5G Internet) নিয়ে মামলা খারিজ হওয়ার পর কেন আদালতে এই মামলা করেছিলেন তিনি, তার ব্যাখ্যা দিলেন অভিনেত্রী জুহি চাওলা (Juhi Chawla)। নিজের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে একটি ভিডিও শেয়ার করে এই মামলা করার কারণ জানিয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু শুক্রবার জুহির সেই মামলা নাকচ করে দিয়েছে দিল্লি হাইকোর্ট। উপরন্তু অভিনেত্রীকে ২০ লক্ষ টাকা জরিমানার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

    জুহি এদিন নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করে সেখানে বলেছেন, 'গত কয়েকদিন ধরে এত চিৎকার শুরু হয়েছে যে, নিজেই নিজের কথা শুনতে পাচ্ছিলাম না। এই চিৎকারের চোটে একটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বার্তা ঢাকা পড়ে গিয়েছে। এবং সেটা হল আমরা ৫জি-র বিরুদ্ধে নই। আসলে, আমরা এটাকে স্বাগত জানাচ্ছি... শুধু কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের দাবি যে এই পরিষেবাকে সুরক্ষিত বলে ঘোষণা করা হোক।'

    View this post on Instagram

    A post shared by Juhi Chawla (@iamjuhichawla)

    জুহির আরও বক্তব্য, 'আমরা কর্তৃপক্ষের কাছে এটারই দাবি জানাচ্ছি যে, এই পরিষেবা সুরক্ষিত তা সার্টিফাই করা হোক এবং সমস্ত গবেষণা, নথিপত্র জনগণের সামনে তুলে ধরা হোক। যাতে কিনা সমস্ত ভয় কেটে যায়। যাতে আমরা নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারি। আমরা শুধু জানতে চাই এটা শিশু, অন্তঃসত্ত্বা, আসন্ন শিশু, বয়স্ক, গাছ-গাছালি, ফ্লোরা-ফনা সবের জন্য সুরক্ষিত।' প্রায় দেড় মিনিটের ভিডিয়োতে নিজের মনের প্রশ্নগুলি তুলে ধরেছেন মামলাকারী জুহি।

    ৫জি টেলিকম প্রযুক্তির তেজস্ক্রিয় বিকিরণ ক্ষতি করতে পারে পরিবেশ এবং বাস্তুতন্ত্রের। তাই এই প্রযুক্তি আগামী দিনে বাস্তবায়িত হলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে সমগ্র প্রাণীকুল। এই মর্মে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন অভিনেত্রী। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আরও ২ স্বেচ্ছাসেবী, বীরেশ মালিক এবং টিনা বচনি। দিল্লি হাইকোর্ট জানিয়েছে, অপ্রয়োজনীয় এবং অযৌক্তিক নানা ধরনের তথ্যের উপর ভিত্তি করে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

    একই সঙ্গে আদালতের পর্যবেক্ষণ, মামলাটি যাঁরা করেছেন, তাঁরা নিজেরাও বিষয়টি সম্পর্কে ভালো ভাবে জানেন না। গত ২ জুন ভার্চুয়াল শুনানির জন্য যে লিঙ্কটি জুহিকে দেওয়া হয়েছিল, সেটিও তিনি আগেভাগে নেটমাধ্যমে সকলের সঙ্গে শেয়ার করে দিয়েছিলেন। আদালত মনে করছে, পরিবেশ রক্ষার্থে নয়, শুধুমাত্র জনপ্রিয়তা পাওয়ার আশাতেই এই মামলা দায়ের করেছিলেন অভিনেত্রী।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: