মেয়ের জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই ট্যুইটারে এই তথ্য বদলে ফেললেন বিরাট! জানুন সেটা কী

মেয়ের জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই ট্যুইটারে এই তথ্য বদলে ফেললেন বিরাট! জানুন সেটা কী
১১ জানুয়ারি, গত সোমবার বিকেলে মুম্বইয়ে ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে জন্ম হয় বিরাট-অনুষ্কার প্রথম সন্তানের ।

১১ জানুয়ারি, গত সোমবার বিকেলে মুম্বইয়ে ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে জন্ম হয় বিরাট-অনুষ্কার প্রথম সন্তানের ।

  • Share this:

    #মুম্বই: সদ্যোজাত মেয়ে’কে একেবারে নিরাপত্তার বলয়ে মুড়ে ফেলেছেন বিরাট কোহলি-অনুষ্কা শর্মা । বিরুষ্কার মেয়ে জন্মেছে পাক্কা এক সপ্তাহ হতে চলল । কিন্তু এখনও পর্যন্ত একটা ছবিও প্রকাশ্যে আসতে দেননি তাঁরা । সেলেবদের ক্ষেত্রে এমন ঘটনা বেশ কমই দেখা যায় ।

    প্রথম সন্তানের জন্ম বলে কথা । সব বাবা-মায়ের কাছেই তা একটু তো স্পেশ্যাল হয়ই । আর ক্রিকেট-বলিউডের এই পাওয়ারফুল কাপল প্রথম থেকেই জানিয়েছিলেন, তাঁদের কাছে সন্তান ছেলে না মেয়ে, সেটা বড় কথা নয় । যেই আসুক, তাঁরা একইরকম খুশি হবেন ।

    আর সে কারণেই মেয়ের জন্মের খবর দিতে গিয়েও প্রচলিত প্রথা ভেঙেছিলেন বিরাট । ছেলে হলে আকাশী আর মেয়ের সঙ্গে গোলাপী রংকে জুড়ে দেওয়া হয় সর্বত্র । কিন্তু মেয়ের জন্মের সুখবর দিতে গিয়ে বিরাট বেছে নিয়েছিলেন উজ্জ্বল হলুদ রং । বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, তিনি লিঙ্গের ভিত্তিতে শ্রেণী বিভাজনে বিশ্বাস করেন না । শুধু তাই নয়, বাবা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিরাটের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টের বায়ো-তেও পরিবর্তন লক্ষ্য করা গিয়েছে । সেখানে লেখা ‘‘বিরাট কোহলি- একজন গর্বিত স্বামী ও বাবা ।’’


    ১১ জানুয়ারি, গত সোমবার বিকেলে মুম্বইয়ে ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে জন্ম হয় বিরাট-অনুষ্কার প্রথম সন্তানের । জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই সে খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান বিরাট । কিন্তু মেয়ের কোনও ছবি পোস্ট করেননি তাঁরা । এ দিকে, বিরুষ্কার ঘরে নবজাতকের আগমণের খবর ভাইরাল হতেই গুগলে ক্রমাগত বেবির ছবি সার্চ করা হয় । কিন্তু কোথাও তেমন বিশ্বাসযোগ্য ছবি দেখতে না পেয়ে খানিকটা হতাশই হন বিরুষ্কা ভক্তরা ।

    আসলে বিরাট-অনুষ্কা দু’জনেই চান, তাঁদের মেয়ের প্রাইভেসি এতটুকু যেন ক্ষুন্ন না হয় । ছোট থেকেই সে স্পেশ্যাল কোনও সুবিধা ভোগ করুক বা তাকে নিয়ে আলাদাভাবে কোনও মাতামাতি হোক তা তাঁরা চান না । আর সে কারণেই মুম্বইয়ের প্রতিটি সেলিব্রিটি ফোটোগ্রাফরকে বিরুষ্কা ব্যক্তিগত ভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন তাঁদের মেয়ের কোনও ছবি না তুলতে ।

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর