• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • প্রকাশ্যে এলেন সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার বাবা, তিনজনের নামে করলেন মারাত্মক অভিযোগ

প্রকাশ্যে এলেন সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার বাবা, তিনজনের নামে করলেন মারাত্মক অভিযোগ

এবার সেই সন্দেহ, একের পর এক প্রশ্ন আর সহ্য করতে না পেরেই সামনে এলেন দিশার বাবা। তিনি সরাসরি পুলিশে অভিযোগ করেছেন।

এবার সেই সন্দেহ, একের পর এক প্রশ্ন আর সহ্য করতে না পেরেই সামনে এলেন দিশার বাবা। তিনি সরাসরি পুলিশে অভিযোগ করেছেন।

এবার সেই সন্দেহ, একের পর এক প্রশ্ন আর সহ্য করতে না পেরেই সামনে এলেন দিশার বাবা। তিনি সরাসরি পুলিশে অভিযোগ করেছেন।

  • Share this:

    #‌মুম্বই:‌ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্য প্রতিদিনই যেন একটু একটু করে আরও জট পাকাচ্ছে। একদিকে রিয়া চক্রবর্তী অন্যদিকে সুশান্তের পরিবারে সদস্যরা, দু’‌পক্ষের দাবি, পাল্টা দাবিতে ক্রমে গুলিয়ে যাচ্ছে সব কিছু। এবার এর মধ্যে এসে পড়লেন সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার বাবা। সুশান্তের মৃত্যুর ক’‌দিন আগেই দিশার মৃত্যু হয়। দিশাও আত্মহত্যা করেন বলে জানিয়েছিল পুলিশ। কিন্তু কেন দিশা আত্মহত্যা করেছিলেন, সেটা খুব একটা স্পষ্ট নয়। আর তার কয়েকদিন বাদেই সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু হয়। এই দুই মৃত্যুর মধ্যে যোগ আছে কি না, তা এখনও তদন্ত সাপেক্ষ হলেও সন্দেহ তৈরি হয়েছে অনেকের মনেই।

    এবার সেই সন্দেহ, একের পর এক প্রশ্ন আর সহ্য করতে না পেরেই সামনে এলেন দিশার বাবা। তিনি সরাসরি পুলিশে অভিযোগ করেছেন। তিনজনের বিরুদ্ধে তিনি অভিযোগ দায়ের করেছেন। কারণ, দিশার বাবার অভিযোগ, তাঁর মেয়ের মৃত্যু নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছেন এই তিনজন। গত ৮ জুন, সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশার দেহ উদ্ধার করে ‌পুলিশ। পুলিশ জানায় ১৪ তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন দিশা। এরপর তাঁর পরিবারের সঙ্গে বারবার অভিযোগ করেছিলেন, সংবাদমাধ্যম একাধিক ফেক নিউজ ছড়িয়ে তাঁদের পরিবারকে বিরক্ত করছে। দয়া করে তাঁদের মৃত মেয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট না করতে। কিন্তু ক’‌দিন আগেই খবর আসে, দিশার দেহ পুলিশ নগ্ন অবস্থায় অদ্ধার করে। যদিও, সেই রটনাকে অস্বীকার করে মুম্বই পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, এমন কোনও তথ্য প্রশাসন কোনও সংবাদমাধ্যমকে দেয়নি তারা৷। যে বা যাঁরা এটা দাবি করছেন, তার কোনও ভিত্তি নেই।

    হতে পারে সেই কারণেই সামনে আসতে বাধ্য হলেন দিশার বাবা। যাতে আর মেয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে কেউ না পারে, তাই সরাসরি পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতে হল তাঁকে।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: