Ajaz Khan arrest: বলিউডের ড্রাগ মামলায় এবার গ্রেফতার বিগ বস প্রতিযোগী-অভিনেতা এজাজ

Ajaz Khan arrest: বলিউডের ড্রাগ মামলায় এবার গ্রেফতার বিগ বস প্রতিযোগী-অভিনেতা এজাজ

এজাজ খান গ্রেফতার | Actor Ajaz Khan Arrested

দীর্ঘ ৮ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর অভিনেতা এজাজ খানকে (Ajaz Khan)গ্রফতার করে নারকটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোকে (NCB)

  • Share this:

    #মুম্বই: বলিউডের ড্রাগ মামলায় (Bollywood Drug case) অভিনেতা এজাজ খানকে (Ajaz Khan) গ্রেফতার করল নারকটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোকে (NCB)৷ দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এজাজকে৷ অভিনেতার উত্তরে অসঙ্গতি পান এনসিবি আধিকারিকরা৷ আজ, বৃহস্পতিবার, তাঁকে আদালতে তোলা হবে৷ গতকাল, বুধবার, রাজস্থান থেকে ফেরার পরই,তাঁকে মুম্বই বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয়৷ তদন্তকারী অফিসাররা জানিয়েছেন যে, তাঁর বাড়ি থেকে অ্যালপ্রাজোলাম ট্যাবলেট মিলেছে৷

    শুটিংয়ের কারণে এজাজ কিছুদিন রাজস্থানে (Rajasthan) ছিলেন। মুম্বই ফিরে আসার সঙ্গে সঙ্গে এনসিবি তাঁকে আটক করে। বাড়িতে নিষিদ্ধ ওষুধের রাখার কারণে এর আগেও ২০১৮ সালের শুরুর দিকেও তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

    এনসিবি সূত্রে জানা গিয়েছে যে, মুম্বইয়ের ড্রাগস সরবরাহকারী বৃহত্তম সিন্ডিকেটের সঙ্গে যোগ রয়েছে এজাজ খানের৷ সেই তথ্য পেয়েছে তদন্তকারীরা৷ এজাজকে আটক করার পর, মুম্বইয়ের অন্ধেরি এবং লোখন্ডওয়ালার একাধিক এলাকায় অভিযান চালায় এনসিবি। মুম্বইয়ের সবচেয়ে বড় ড্রাগ সরবরাহকারী ফারুক বাটাতার ছেলে শাদাব বাটাটাকে গত সপ্তাহে শনিবার গ্রেপ্তার করা হয়। ড্রাগ পেডলার শাদাব বাটাটা গ্রেফতার হওয়ার পর অভিনেতা এজাজের নাম সামনে আসে।

    এর আগে ২০১৮ সালের শুরুর দিকে নিষিদ্ধ ওষুধ সেবনের অভিযোগে এজাজ খানকে মুম্বই পুলিশের নারকোটিক্স সেলও গ্রেফতার করেছিল। জানা গিয়েছে, গ্রেফতার হওয়ার সময় তিনি নেশাতুর ছিলেন। তাঁর কাছ থেকে তিনি ৮ টি এক্সটেক ট্যাবলেট পাওয়া গিয়েছিল, যার ওজন ২.৩ গ্রাম এবং দাম ২.২ লক্ষ টাকা ছিল। এই সময়, নবি মুম্বইয পুলিশ, অভিনেতার কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোনও বাজেয়াপ্ত করে। একটি হোটেলে পার্টি চলাকালীন অভিনেতাকে গ্রেফতার করা হয়৷ জনপ্রিয় টিভি রিয়েলিটি শো বিগ বসের প্রতিযোগী ছিলেন এজাজ। বিধানসভা নির্বাচনেও অভিনেতা এজাজ খান মুম্বইয়ের বাইকুলা আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন৷ যদিও তিনি নোটা ভোটের চেয়ে কম পেয়েছিলেন এবং তার জমানত বাজেয়াপ্ত হয়।

    Published by:Pooja Basu
    First published:

    লেটেস্ট খবর