• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • বাবা করেছিলেন দ্বিতীয় বিয়ে, মা সামলেছেন সংসার! মাকে হারিয়ে আবেগঘন পোস্ট অর্জুন কাপুরের

বাবা করেছিলেন দ্বিতীয় বিয়ে, মা সামলেছেন সংসার! মাকে হারিয়ে আবেগঘন পোস্ট অর্জুন কাপুরের

পোস্টে লেখা আছে- আপনার মায়ের ভালবাসা এবং সংগ্রাম কখনও ভুলে যাবেন না।

পোস্টে লেখা আছে- আপনার মায়ের ভালবাসা এবং সংগ্রাম কখনও ভুলে যাবেন না।

পোস্টে লেখা আছে- আপনার মায়ের ভালবাসা এবং সংগ্রাম কখনও ভুলে যাবেন না।

  • Share this:

    #মুম্বই: বলা হয়ে থাকে বাচ্চারা কখনই মায়ের ঋণ শোধ করতে পারে না। মায়ের মৃত্যুর পর সন্তানরা বুঝতে পারেন যে, তিনি কতটা মূল্যবান ছিলেন তাঁদের জীবনে। বলি অভিনেতা অর্জুন কাপুরও তাঁর মা প্রয়াত মা মোনা কাপুরের খুব কাছের ছিলেন। স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের পর তিনিই সামলেছিলেন দুই সন্তানকে৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় অর্জুন মাকে স্মরণ করে অনেক পোস্ট শেয়ার করেছেন। সম্প্রতি, তিনি আবারও তাঁর মাকে স্মরণ করে আবেগতাড়িত হয়ে উঠলেন। মায়ের লড়াইয়ের কথা স্মরণ করে অর্জুন কাপুর জাপানি দার্শনিক 'দেশাকু ইকেদা'র একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন, যাতে তিনি বলেছেন যে মায়ের ভালবাসা, স্নেহ মূল্যবান৷

    পোস্টে লেখা আছে- আপনার মায়ের ভালবাসা এবং সংগ্রাম কখনও ভুলে যাবেন না। এমনকি তারা আপনার জন্য যে কাজ করেছেন তাও নয়। আমি এখন বুঝতে পেরেছি যে মানুষের মনে মায়ের একটি সুন্দর ছবি মনে থাকে। আমরা সকলেই একসঙ্গে সুখ ও শান্তির পথে চলব। এই পোস্টটি শেয়ার করার সঙ্গে তিনি লিখেছেন যে,' এটাই জীবনের সত্য ঘটনা, মায়ের ভালবাসা, মমতা এবং শান্তি'।

    অর্জুন কাপুরের এই পোস্টে তাঁর ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুরা এবং ভক্তরা বেশ কিছু কমেন্ট করেছেন। আয়ুষ্মান খুরানা কিছু লেখেননি ঠিকই, তবে হাত জোর করা ইমোজি দিয়েছেন৷ আয়ুষ্মানের স্ত্রী তাহিরা কাশ্যপও হার্ট ইমোজির মাধ্যমে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

    এই বছরে মার্দাস ডে-তে, অর্জুন একটি ভিডিওও শেয়ার করেন, যাতে তিনি সমস্ত মায়েদের 'হ্যাপি মাদার্স ডে' শুভেচ্ছা জানিয়ে ছিলেন৷ তাঁর মা মোনা কাপুরকে স্মরণ করে তাঁদের একসঙ্গে থাকা কিছু ছবিও তিনি তুলে ধরেছিলেন৷

    অর্জুন কাপুর বর্তমানে হিমাচল প্রদেশে রয়েছে। 'ভূত পুলিশ' ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত তিনি। এটি হরর-কমেডি ফিল্ম। ছবিটি পরিচালনা করছেন পবন কৃপালানী। এতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করছেন ইয়ামি গৌতম, সাইফ আলি খান এবং জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ।

    Published by:Pooja Basu
    First published: