corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনের মধ্যেই বাড়িতেই KBC-12-র প্রোমো শ্যুট করেছিলেন অমিতাভ

লকডাউনের মধ্যেই বাড়িতেই KBC-12-র প্রোমো শ্যুট করেছিলেন অমিতাভ

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন বলিউড শহেনশাহ অমিতাভ বচ্চন ও তাঁর ছেলে অভিনেতা অভিষেক বচ্চন

  • Share this:

#মুম্বই: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন বলিউড শহেনশাহ অমিতাভ বচ্চন ও তাঁর ছেলে অভিনেতা অভিষেক বচ্চন ৷ দু’জনেই করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর ট্যুইট করে জানান ৷ তাঁরা দুইজনেই আপাতত চিকিৎসাধীন রয়েছেন মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ৷

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, অমিতাভ ও অভিষেক দু’জনের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ৷ হাসপাতাল সূত্রের খবর অনুযায়ী, খুব কম উপসর্গ নিয়েই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন অমিতাভ ও অভিষেক ৷ দু’জনের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ৷ দু’জনেরই অন্যান্য টেস্ট করা হচ্ছে ৷ চিকিৎসকদের কড়া নজরে রয়েছেন বিগবি ও জুনিয়ার বি ৷

আসলে, কাজ শুরু করে দিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন। সব ধরণের সতর্কতা অবলম্বন করেই নিজের বাড়িতে শ্যুটিং শুরু করেছিলেন তিনি। গত মে মাসে যখন লকডাউনের মধ্যেই Kaun Banega Crorepati 12-র রেজিস্ট্রেশনের সময় বিগবির নতুন প্রোমো সামনে এসেছিল, তখন অনেকেই সেটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। সেই সময় বিগবি লোকদের প্রশ্নের জবাবও দিয়েছিলেন।

দ্য শো গোজ অন -এই বলে বলিউড শহেনশাহ অমিতাভ বচ্চন লোকডাউনের মধ্যেই দেশের জনপ্রিয় কুইজ শো কেবিসি-র শ্যুটিং শুরু করে দিয়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নিয়ে অনেকে প্রশ্ন করেছিলেন যে লকডাউনের মধ্যে কীভাবে শো এর শ্যুটিং শুরু করতে পাড়েন। অনেক নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়াতে এই নিয়ে বিগবিকে ট্রোল করতে শুরু করে দিয়েছিলেন আর সেই সঙ্গে অনেকে আবার সামাজিক দূরত্ব না মানার জন্য তাঁকে পরামর্শও দিয়েছিলেন। তারপরেই বিগবি একটি ট্যুইট করে সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতিক্রিয়া নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিল।

অমিতাভ বচ্চন ট্যুইটে লিখেছিলেন, 'হ্যাঁ এই মাত্র কাজ থেকে ফিরেছি। আপনাদের কি এ নিয়ে কোনও সমস্যা আছে, তো সেটিকে নিজের কাছে রাখুন। পর্যাপ্ত সতর্কতা নেওয়া হয়েছিল। দু'দিনের কাজ একদিনেই শেষ করা হয়েছে। সন্ধ্যা ৬টায় কাজ শুরু হয়েছিল আর কিছুক্ষণের মধ্যেই শেষ করা হয়েছিল।' তিনি এটাও জানয়েছিলেন যে, এবার কেবিসি'র পুরো প্রক্রিয়াটি ডিজিটাল মাধ্যমে বাড়ি থেকেই করা হবে। এমন কী রেজিস্ট্রেশনের জন্য যে প্রোমোটি শ্যুট করা হয়েছিল, সেটিও তাঁর বাড়ি থেকে শ্যুট করা হয়েছিল।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: July 12, 2020, 8:25 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर