Amitabh Bachchan: ছেলে হিট ওটিটি-তে, কিন্তু নিজের জনপ্রিয়তায় অখুশি বিগ বি সোশ্যাল মিডিয়ায় রাগ দেখালেন!

Amitabh Bachchan: ছেলে হিট ওটিটি-তে, কিন্তু নিজের জনপ্রিয়তায় অখুশি বিগ বি সোশ্যাল মিডিয়ায় রাগ দেখালেন!

ছেলে হিট ওটিটি প্ল্যাটফর্মে, কিন্তু তার জনপ্রিয়তায় খুশি নন, সোশ্যাল মিডিয়ায় উপচে পড়ল বিগ বি-র ক্ষোভ!

সিনিয়র বচ্চনের এবারের ট্যুইটের বিষয় ছায়াছবির প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি বনাম ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি!

  • Share this:

#মুম্বই: ছবিতে তাঁরা একরকম আর বাস্তব দুনিয়ায় সম্পূর্ণ অন্যরকম! অমিতাভ বচ্চনের (Amitabh Bachchan) নানা মন্তব্য ঘিরে এই বিষয়টা আজকাল প্রায়ই প্রকাশ পাচ্ছে! যে অমিতাভ পর্দায় অ্যাংরি ইয়ং ম্যান ইমেজ গড়ে তুলেছিলেন, ছিলেন আধুনিকতার দৃপ্ত ভাবমূর্তি, সেই তিনিই কিন্তু বাস্তবজীবনে বর্তমান সময়ের অনেক কিছু মেনে নিতে পারেন না। যা সম্প্রতি তাঁর এক ট্যুইটের মাধ্যমে নতুন করে প্রকাশ পেল!

সিনিয়র বচ্চনের এবারের ট্যুইটের বিষয় ছায়াছবির প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি বনাম ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি! নিজের যুবাবয়সের একটি ছবি সম্প্রতি বিগ বি পোস্ট করেছেন তাঁর Twitter হ্যান্ডেলে। সেই ছবিতে তাঁকে দেখা যাচ্ছে সত্তরের দশকের লম্বা চুল, বড় সানগ্লাস আর সামনে বোতাম দেওয়া গোল-গলা টি-শার্টের স্টাইল স্টেটমেন্টে। সেই সময়ের উল্লেখ করে প্রেক্ষাগৃহে ছবির মুক্তি পাওয়া এবং তার ব্যবসা নিয়ে কয়েকটা মন্তব্য জাহির করেছেন নায়ক।

অমিতাভ লিখেছেন যে সত্তরের দশক একটা সময় ছিল বটে! ১৯৭০ সালের বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন তিনি। জানিয়েছেন যে সেই সময়ে একেকটা ছবি ৫০ সপ্তাহ, এমনকি ১০০ সপ্তাহ ধরেও প্রেক্ষাগৃহে রমরমিয়ে একটানা ব্যবসা দিত। তাঁর অভিনীত ৬-৭টা ছবি যে ১৯৭০ সালে মুক্তি পেয়ে ব্যবসার দিক থেকে পরস্পরকে সমানে সমানে টেক্কা দিয়েছিল, সে কথাও জানাতে ভোলেননি তিনি। এই ছবিগুলোর মধ্যে তিনি বিশেষ করে নাম নিয়েছেন ডন (Don), কসমে ওয়াদে (Kasme Vaade), ত্রিশূল (Trishul), মুকাদ্দর কা সিকন্দর (Muqaddar Ka Sikandar), গঙ্গা কি সৌগন্ধ (Ganga Ki Saugand)-এর। বলেছেন যে এই সবগুলো ছবিই ৫০ সপ্তাহের বেশি চলেছিল প্রেক্ষাগৃহে। সব শেষে তিনি মন্তব্য করেছেন যে এই রকম গ্রাফ এখন ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মিলিয়ন ছুঁলে ধার্য হয়!

আর এখান থেকেই বলিউডের অন্দরমহলে শুরু হয়ে গিয়েছে সমালোচনা! বিগ বি-র শেষ ছবি গুলাবো সিতাবো (Gulabo Sitabo) ওটিটি প্ল্যাটফর্মেই মুক্তি পেয়েছিল, কিন্তু ভালো ব্যবসা দিতে পারেনি। অনেকেই মনে করছেন যে সেই ব্যর্থতার দায় নায়ক চাপিয়ে দিতে চাইছেন ওটিটি প্ল্যাটফর্মের উপরে। কিন্তু লক্ষ্যণীয় বিষয়, তাঁরই ছেলে অভিষেক বচ্চনের (Abhishek Bachchan) কেরিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংস কিন্তু জোরদার হয়েছে এই ওটিটি প্ল্যাটফর্মের হাত ধরেই! আবার একদা বিগ বি নিজেও মন্তব্য করেছিলেন যে সময়ের বদলের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়াই বুদ্ধির কাজ!

কিন্তু এখন কি তিনি আর তাল রাখতে পারছেন না সময়ের দাবির সঙ্গে? না কি ব্যাপারটা নেহাতই জেনারেশন গ্যাপ?

Published by:Raima Chakraborty
First published: