সংস্পর্শে ছিলেন রণবীর কাপুর-বনশালীর, কিন্তু কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ আলিয়ার!

সংস্পর্শে ছিলেন রণবীর কাপুর-বনশালীর, কিন্তু কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ আলিয়ার!

সংস্পর্শে ছিলেন রণবীর কাপুর, সঞ্জয় লীলা বনশালির; কিন্তু কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ এল আলিয়ার!

শোনা যাচ্ছে, ব্রহ্মাস্ত্র (Brahmastra)-র সেটে কাজ করার সময় করোনায় আক্রান্ত হন রণবীর।

  • Share this:

#মুম্বই: গতকাল সকাল থেকেই খবর পাওয়া যাচ্ছিল অসুস্থ রয়েছেন রণবীর কাপুর (Ranbir Kapoor)। কিন্তু কেন অসুস্থ, কী হয়েছে তাঁর, প্রথম দিকে সে খবর ছিল না কারও কাছে। সংবাদমাধ্যমে নায়ক শুধু জানিয়েছিলেন যে, তাঁর শরীর ভালো নেই। পরে তাঁর মা নীতু কাপুর ((Neetu Kapoor) জানান, রণবীর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। আর এই খবর সামনে আসার পর থেকেই আলিয়া ভাট (Alia Bhatt) কেমন আছেন, তা নিয়ে চিন্তায় পড়েন ভক্তরা। তবে, সকলের জন্য ভালো খবর, জানা গিয়েছে আলিয়ার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তিনি সুস্থ আছেন।

নীতু গতকাল Instagram-এ ছেলের একটি ছবি শেয়ার করে নিচে ক্যাপশনে লেখেন, আপনাদের শুভেচ্ছা এবং উদ্বেগের জন্য ধন্যবাদ। রণবীরের কোভিড-১৯ টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। ওর চিকিৎসা চলছে এবং দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছে। এই মুহূর্তে সেল্ফ কোয়ারান্টিনে রয়েছে ও সমস্ত সাবধানতা মেনে চলছে।

শোনা যাচ্ছে, ব্রহ্মাস্ত্র (Brahmastra)-র সেটে কাজ করার সময় করোনায় আক্রান্ত হন রণবীর। আলিয়া তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাই তাঁকে নিয়ে উদ্বেগ বাড়তে থাকে ভক্তদের মধ্যে। কিন্তু একটি রিপোর্ট আজ জানায়, আলিয়া প্রায় প্রতি দিন করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন এবং আজ তাঁর কোভিড ১৯ টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। কিন্তু তবুও তিনি নিজেকে ঘরবন্দী করে রেখেছেন।

রণবীর ছাড়াও সম্প্রতি কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালি (Sanjay Leela Bhansali)। গাঙ্গুবাঈ কাথিয়াওয়াড়ি (Gangubai Kathiawadi)-র শ্যুটিং চলাকালীন তাঁর সংস্পর্শে এসেছিলেন আলিয়া।

কয়েক মাস আগে যুগ যুগ জিও (Jug Jugg Jeeyo) সিনেমার শ্যুটিং চলাকালীন করোনায় আক্রান্ত হন রণবীরের মা নীতুও। আপাতত সুস্থ রয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি বেশ কয়েকটি প্রোজেক্টের কাজে ব্যস্ত রণবীর। আলিয়ার সঙ্গে ব্রহ্মাস্ত্রতে কাজ করেছেন। শ্রদ্ধা কাপুরের (Shraddha Kapoor) বিপরীতে আরেকটি ছবির শ্যুটিংয়েও ব্যস্ত তিনি।

এদিকে, ফের করোনার সংক্রমণ মাথাচাড়া দিয়েছে মুম্বইয়ে। পরিস্থিতি হাতের বাইরে যাতে না পৌঁছায়, তার জন্য একাধিক বিধি-নিষেধ লাগু হয়েছে শহরের একাধিক জায়গায়। সকলকে করোনার প্রাথমিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আর্জি জানানো হয়েছে সরকারের তরফে। মুম্বইয়ের পাশাপাশি সংক্রমণ বাড়ছে দেশের আরও বেশ কয়েকটি শহরে। সেখানেও একাধিক বিধি-নিষেধ জারি হয়েছে। কয়েকটি রাজ্য থেকে পশ্চিমবঙ্গে ফিরতে গেলে কোভিড নেগেটিভ রিপোর্টও আনতে হচ্ছে।

সব মিলিয়ে চেষ্টা চলছে, করোনা দ্বিতীয় ঝড় যাতে ভারতবাসীকে আর দেখতে না হয়!

গার্গী দাস

Published by:Raima Chakraborty
First published: