Mahima Chowdhury : তৃণমূলের হয়ে প্রচারের সপ্তাহ পরেই প্রচারে নামলেন বিজেপির হয়েও! কোন বলিউড সুন্দরী ইনি?

Mahima Chowdhury : তৃণমূলের হয়ে প্রচারের সপ্তাহ পরেই  প্রচারে নামলেন বিজেপির হয়েও! কোন বলিউড সুন্দরী ইনি?

কোন পক্ষে তিনি? Photo : Collected

এই অভিনেত্রী একই সঙ্গে তৃণমূল এবং বিজেপি উভয় শিবিরের প্রার্থীর হয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়েছেন।

  • Share this:

    #কলকাতা : ক্লাইম্যাক্সে পৌঁছে গিয়েছে বাংলার নির্বাচনী প্রক্রিয়া। চার দফা শেষ। বাকি আরও চার। তাই সপ্তমে ভোট প্রচারের উত্তাপ। সব প্রার্থীরাই কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন নির্বাচনী প্রচারে (Election Campaign)। আর সেখানে থেকেই উঠে এসেছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর খবর। তবে একুশের নির্বাচনে একেবারে অভিনব একটি দৃশ্য সামনে এসেছে তৃণমূল-বিজেপি উভয়েরই নির্বাচনী প্রচারে। আর বঙ্গবাসীকে সেই দৃশ্যের সাক্ষী করালেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী (Mahima Chowdhury)।

    এই অভিনেত্রী একই সঙ্গে তৃণমূল (TMC) এবং বিজেপি (BJP) উভয় শিবিরের প্রার্থীর হয়ে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়েছেন। ঠিক এক সপ্তাহ আগে গত ৫ এপ্রিল কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্রের (Madan Mitra) হয়ে প্রচার করে গিয়েছেন অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী। এবার সেই তাঁকেই দেখা গেল বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী দত্তের (Sabyasachi Dutta) হয়ে রোড শো-তে।

    প্রচারের 'মহিমা' Photo-File প্রচারের 'মহিমা'
    Photo-File

    উলেখ্য, আগামী ১৭ এপ্রিল কামারহাটি এবং বিধাননগর উভয় কেন্দ্রেই ভোটগ্রহণ। কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্রের হয়ে ইতিমধ্যেই প্রচার সেরেছেন মহিমা চৌধুরী। এবার বিধাননগর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী দত্ত, তথা তৃণমূল সরকারের মন্ত্রী প্রার্থী সুজিত বসুর প্রধান বিরোধীর হয়ে প্রচার করে চমকে দিলেন রাজনৈতিক মহলকে।

    বিজেপি প্রার্থী (BJP Candidate) সব্যসাচী দত্ত এনিয়ে জানান, তিনি যখন মেয়র ছিলেন তখনও মহিমা এসেছিলেন, এবারও পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। অভিনেত্রীর ব্যাখ্যা, সব্যসাচী দত্ত একজন মেয়র হিসেবে ভাল কাজ করেছেন। তাই তাঁর হয়ে প্রচার জরুরি। এনিয়ে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুরু হয়েছে তুমুল সমালোচনা। কেউ কটাক্ষ করে লিখেছেন, “প্রকৃত পেশাদার”। কেউ আবার লিখেছেন, “যে বেশি টাকা দিতে পারে!”

    একুশের ভোটকে তারকাখচিত বলাই যায়। নির্বাচন শুরু হওয়ার আগে থেকেই রাজনৈতিক দলগুলিতে তারকাদের দল বদল। রাজনৈতিক রঙে গা ভাসানো চোখে পড়েছে দেদার। একদিকে তৃণমূলের হাত ধরেছেন রাজ চক্রবর্তী, সায়নী ঘোষ, সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিকরা। অন্যদিকে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী, যশ দাশগুপ্ত, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, পায়েল সরকার, রুদ্রনীল ঘোষরা। ওদিকে আবার প্রার্থী না হলেও প্রচারের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছেন দেব, মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহানরা। বিজেপির হয়ে ‘মহাগুরু’ মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty) তো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পালে হাওয়া টানতে এসেছেন ‘ধন্যি মেয়ে’ জয়া বচ্চন (Jaya Bachchan)।কিন্তু মহিমা চৌধুরী ঠিক কোন পক্ষে? প্রশ্ন ঘুরপাক করছে সোশ্যাল মিডিয়ার আকাশে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: